ঢাকা, বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০, ২৪ আষাঢ় ১৪২৭, ১৬ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

গণপরিবহন যেন সংক্রমণের উর্বর ক্ষেত্র না হয় : ওবায়দুল কাদের

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ মে, ২০২০, ১০:৫৭ পিএম

আমি আশা করবো আপনারা এমন সিদ্ধান্ত নেবেন এবং বাস্তবায়ন করবেন যেন গণপরিবহন সংক্রমণের উর্বর ক্ষেত্র হতে না পারে। এমনিতেই জনগণ উদ্বিগ্ন। আপনারা জনগণের উদ্বেগকে কমিয়ে আনতে সাহায্য করবেন।
শুক্রবার (২৯ মে) বিকেলে বিআরটিএ’র কর্মকর্তাদের সঙ্গে পরিবহন-মালিকদের বৈঠকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে বক্তব্যে এসব কথা বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের
তিনি বলেন, অতীতে দেশ-জাতির নানা সংকটে পরিবহনখাত সাহসী ও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। এখনও আমরা একটি পরীক্ষার মুখোমুখি। জননেত্রী শেখ হাসিনা গণপরিবহন সীমিত পর্যায়ে পরিচালনার যে সাহসী সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, তা আপনাদের ওপর দৃঢ় আস্থার বহিঃপ্রকাশ।
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, করোনা সংক্রমণ রোধে সরকার মার্চের শেষ সপ্তাহে সাধারণ ছুটি ঘোষণার পাশাপাশি গণপরিবহন বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয়। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মৃত্যুর সংখ্যা ও সংক্রমণ উদ্বেগজনক পর্যায়ে পৌঁছালেও সার্বিক দিক বিবেচনা করে লকডাউন শিথিল করা হচ্ছে। জনগণের জীবনের পাশাপাশি জীবিকার গতি সচল রাখতে শেখ হাসিনার সরকার বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করে সাধারণ ছুটি না বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে এবং গণপরিবহন চালুর বিষয়ে শর্তসাপেক্ষে সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
স্বাস্থ্যবিধি মেনে কীভাবে যাত্রী সেবা দেওয়া যায়, সে বিষয়ে শর্ত বা নীতিমালা ঠিক করার আহ্বান জানিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, গণপরিবহন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং সংক্রমণের জন্য ভয়াবহ হতে পারে। এখানে শ্রমিক-চালক-যাত্রী-পথচারী অনেকেই সংশ্লিষ্ট। একজন রোগী গাড়িতে উঠলে অন্যরা সংক্রমিত করতে পারে।
তাই ঢালাওভাবে নয়, নিয়ন্ত্রিত উপায়ে সীমিত পরিসরে যাত্রী সেবা দিতে আপনারা প্রতিপালনীয় শর্তগুলো ঠিক করুন। শুধু ঠিক করলেই হবে না কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে। এর পাশাপাশি দুর্ঘটনা যাতে না ঘটে সেদিকেও নজর রাখতে হবে। করোনার মৃত্যুর মিছিলের পাশাপাশি দুর্ঘটনায় মৃত্যুর মিছিল দেশের মানুষ দেখতে চায় না।
গাড়ি চালুর আগে টার্মিনালে চালকসহ শ্রমিকদের কাউন্সিলিং এবং প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিতে পরিবহন মালিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, পুলিশ প্রশাসন, মন্ত্রণালয় আপনাদের সহযোগিতা দেবে। পাশাপাশি নিয়ম অমান্য করলে ও শাস্তির বিধান থাকবে জনস্বার্থে বিআরটিএ’র মোবাইল কোর্ট সক্রিয় থাকবে।
তিনি বলেন, গণপরিবহন একটি সেবামূলক খাত। জাতির সংকটকালে আপনারা সেবক হন। পরিবহনগুলো যাতে সংক্রমণের কেন্দ্রে পরিণত না হয় সে বিষয়ে সজাগ থাকুন।
বৈঠকে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কার্যকরী সভাপতি শাজাহান খান, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি মশিউর রহমান রাঙা, মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ, সড়ক ও পরিবহন বিভাগের সচিব নজরুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (5)
Tanvir ৩০ মে, ২০২০, ১২:৫০ এএম says : 1
We are already going to heaven of covid 19.we are rubbish people whome are weaker than covid 19.
Total Reply(0)
Tanvir ৩০ মে, ২০২০, ১২:৫১ এএম says : 1
We are already going to heaven of covid 19.we are rubbish people whome are weaker than covid 19.
Total Reply(0)
Tanvir ৩০ মে, ২০২০, ১২:৫১ এএম says : 1
We are already going to heaven of covid 19.we are rubbish people whome are weaker than covid 19.
Total Reply(0)
শওকত আকবর ৩০ মে, ২০২০, ৯:৫০ এএম says : 0
করোনাক্রান্ত যখন দ্রুত ভয়াবহ ছড়াচ্ছ। তখন সবকিছু খুলে দেওয়া আত্বঘাতি সিদ্ধান্ত ছাড়া আর কিছুনা।জীবনের চেয়ে জীবিকা অনেক বড় করে দেখা।জানিনা এখন ভয়াবহতা কতখানী?
Total Reply(0)
Abdur Rafi ৩০ মে, ২০২০, ৮:১২ এএম says : 0
ঠান্ডা পানি খান ঠান্ডা যেন না লাগে। চিনি খেতে থাকুন ডাইবেটিক যাতে না হয়। .....
Total Reply(0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন