ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই ২০২০, ২৩ আষাঢ় ১৪২৭, ১৫ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

মানুষের হিংস্র আচরণে মৃত্যু

এনডিটিভি | প্রকাশের সময় : ৪ জুন, ২০২০, ১২:০১ এএম

অন্তঃসত্ত্বা এক হাতির নৃশংস হত্যা প্রত্যক্ষ করল ভারতের কেরালা রাজ্য। গত ২৭ মে হাতিকে খুন করা হয়। আনারসের মধ্যে পটকা ভরে খেতে দেওয়া হয় তাকে। এরপরই ওই হাতির মুখের মধ্যে ফেটে যায় পটকা। মর্মান্তিক ভাবে মারা যায় হাতিটি।

হাতির খুনের অভিযোগ স্থানীয় জনতার দিকে। উত্তর কেরালার মালাপ্পুরমের এক বন বিভাগের কর্মকর্তা সোশ্যাল মিডিয়ায় এই হত্যাকান্ডের বিশদ বিবরণ দেওয়ার পরে তা ক্রমশ ছড়িয়ে পড়ে।
ওই কর্মকর্তার পোস্ট থেকে জানা যাচ্ছে, হাতিটি জঙ্গল থেকে বেরিয়ে এসে কাছের গ্রামে উপস্থিত হয় খাবারের সন্ধানে। সে পথ দিয়ে হাঁটার সময় তাকে আনারস খেতে দেয় স্থানীয় বাসিন্দারা।

ফেসবুকে মোহন কৃষ্ণন নামের ওই কর্মকর্তা লেখেন, ‘হাতি মানুষকে বিশ্বাস করেছিল। আনারসটি খাওয়ার পরে যখন তার মুখের মধ্যে সেটিতে বিস্ফোরণ হল ও নিশ্চয়ই শিউরে উঠেছিল। নিজেকে নিয়ে ভেবে নয়, বরং ওর শরীরে বেড়ে ওঠা প্রাণ, যে আরও ১৮ থেকে ২০ মাস পরে ভূমিষ্ঠ হত তাকে নিয়ে।’

বিস্ফোরণটি এত ব্যাপক ছিল যে, হাতিটির জিভ ও মুখ ভয়ঙ্কর ভাবে আঘাতপ্রাপ্ত হয়। হাতিটি যন্ত্রণা ও ক্ষুধায় গ্রামের পথে ছুটতে থাকে। কিন্তু এই চরম অস্বস্তির মধ্যেও সে কোনও বাড়ি ভাঙেনি। কাউকে আক্রমণও করেনি।
পরে যন্ত্রণার উপশম পেতে সে স্থানীয় ভেলিয়ার নদীতে নেমে যায় পানি খেতে। তাকে পানি থেকে উদ্ধার করতে আরও দুই হাতিকে পাঠায় বন দফতর। কিন্তু নিজের অবস্থান থেকে নড়েনি হাতিটি। এরপর ২৭ মে বিকেল চারটেয় সে মারা যায়। পরে জঙ্গলের মধ্যে সমাধিস্থ করা হয় তাকে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
মোঃ আনোয়ার আলী ৪ জুন, ২০২০, ৬:০৫ এএম says : 0
যারা মানূষ মারতে কষ্ট পায়না, এরা জানূয়ার মারতে অসুবিধা কোথায়?
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন