সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১০ মাঘ ১৪২৮, ২০ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ফাইভ ফিঙ্গার স্ট্র্যাটেজি নিয়ে এগোচ্ছে চীন : তিব্বত প্রধান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ জুন, ২০২০, ৫:২১ পিএম

পূর্ব লাদাখে গোটা গালওয়ান ভ্যালি নিজেদের এলাকা বলে দাবি করছে চীন।  বিগত কয়েক দশকে সরাসরি যে দাবি করেনি, এখন হঠাৎ উঠেপড়ে লেগেছে চীন।  আর ঠিক এখানেই বিপদ আঁচ করতে পারছে তিব্বতের নির্বাসিত সরকার। চীনের অবস্থা দেখেই ভারতকে সতর্ক করলেন সেন্ট্রাল তিব্বত অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের প্রেসিডেন্ট লবসাং সাংগে।  সি এন এন, রয়টার্স, বিবিসি।
সিএনএন-নিউজ১৮- কে দেওয়া এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারে তিনি বোঝালেন, লাদাখ সীমান্তে চীনের কার্যকলাপ কিন্তু চীনের ‘ফাইভ ফিঙ্গার স্ট্র্যাটেজি’র অংশ। যে স্ট্র্যাটেজি শুরু করেছিলেন পিপলস রিপাবলিক অব চায়না’র প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মাও সে তুং। সাংগের কথায়, ‘যখন চীন তিব্বত দখল করল, মাও সে তুংসহ অন্যান্য চীনের নেতারা বলেছিলেন, তিব্বত হল হাতের তালু, যা আমাদের দখল করতেই হত। এরপর আমরা বাকি পাঁচ আঙুল বাড়াবো।  প্রথম আঙুলটি হল লাদাখ।  বাকি ৪টি আঙুল হল নেপাল, ভুটান, সিকিম ও অরুণাচলপ্রদেশ। ’
২০১৭ সালের ডোকলাম স্ট্যান্ড অফ প্রসঙ্গ টেনে তিনি জানান, লাদাখে এই হামলাও সেই ফাইভ ফিঙ্গার স্ট্র্যাটেজিরই অংশ। তিব্বতের নেতারা ভারতকে গত ৬০ বছর ধরে এটাই সতর্ক করে আসছেন।  নেপাল, ভুটান ও অরুণাচলের উপরেও চাপ রয়েছে। ১৯৬২ সালের যুদ্ধের পর থেকে এই প্রথম গোটা গালওয়ান ভ্যালির উপরে প্রথম নিজেদের আধিপত্য দাবি করল চীন। শান্তিপূর্ণ প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় পড়ল লাশের স্তূপ।
পূর্ব লাদাখে ওই উপত্যকায় ভারতীয় ভূখণ্ড রক্ষা করতে গিয়ে নিহত হয়েছে ২০ ভারতীয় সেনা। তারপর থেকেই লাগাতার আলোচনা চলছে দু’দেশের মধ্যে। তবে বিবাদ কিছুতেই মিটছে না। এখনও গালওয়ানে ঘাঁটি গেড়ে বসে আছে চীনা সেনা।
সোমবারের সংঘর্ষের জন্য ভারত এবং চীন উভয়ই একে অপরের বিরুদ্ধে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছে। যদিও পূর্ব লাদাখের নিয়ন্ত্রণরেখা এলএসি’র সীমানা ভালভাবে নির্দেশ করা নেই। উপরন্তু সেখানে নদী, হ্রদ এবং বরফে ঢাকা পর্বতের কারণে এর হেরফেরও ঘটে। ফলে নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর অনেকখানেই ভারত ও চীনের সেনারা মুখোমুখি অবস্থানে চলে আসে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (4)
MD:SHAHIN ALOM ২০ জুন, ২০২০, ৬:২৩ পিএম says : 0
তাই নাকি
Total Reply(0)
আনোয়ার হোছাইন ২০ জুন, ২০২০, ৮:০৪ পিএম says : 0
নিরীহ প্রতিবেশীদের প্রতি কাগুজে বাঘ হয়ে হরদম কামড়াকামড়ি করা দাদাবাবুদের এ দূর্দশা বড়ই আনন্দদায়ক!
Total Reply(0)
Rashed khan ২০ জুন, ২০২০, ১১:৫৬ পিএম says : 0
দাদা বাবুদের যখন কেউ মারে কি মজা লাগে
Total Reply(0)
Gopal Samadder ২২ জুন, ২০২০, ৭:৩৮ এএম says : 0
কমিউনিস্ট চিন এখন সাম্রাজ্যেবাদি। বিভিন্ন দেশ দখলের করছে। প্রথমে তিব্বত, তাইওয়ান, হ্্ক্্, পাকিস্তান তো কিছু জায়গা দিয়েদিয়েছে এবং যে দেশের জমি সরাসরি দখল করতে পারছে না তাদের ঋণ দিয়ে তাদের অথ'নিতী কবজা করে তাদের দাস বানাবে যেমন শৃলঙকা, নেপাল এবং সব'শেষ বাংলাদেশ কে ফাদে ফেলছে। এরপর চিন যা বলবে এই দেশগুলি কান ধরে সেই কথা ও কাজ করতে বাধ্য হবে।
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন