ঢাকা, বুধবার, ২৭ মে ২০২০, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৩ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

ইসলামী বিশ্ব

কিছু রাজনীতিক ইসলাম সম্পর্কে খোঁড়া বাগাড়ম্বর চালাচ্ছেন

বাল্টিমোরের মসজিদ পরিদর্শনকালে ওবামার অভিমত : যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী মুসলমানদের অনেকেই দেশপ্রেমিক ও শ্রদ্ধাভাজন

প্রকাশের সময় : ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা প্রথমবারের মতো যুক্তরাষ্ট্রের বাল্টিমোরে একটি মসজিদ পরিদর্শন করলেন। এ সময় ওবামা বলেন, আমাদের দেশে ইসলামবিরোধী বাগাড়ম্বরের কোনো স্থান নেই। তিনি  রিপাবলিকান দলীয় প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের নাম উল্লেখ না করে তার সমালোচনা করে এই বলে অভিযোগ করেন যে, কিছু রাজনীতিক ইসলাম সম্পর্কে খোঁড়া রাজনৈতিক বাগাড়ম্বর চালাচ্ছেন। তিনি মার্কিন মুসলিমদের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে বলেন, তাদের অনেকেই যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে শ্রদ্ধাভাজন ও দেশপ্রেমিক। গত বুধবার ম্যারিল্যান্ডের ইসলামিক সোসাইটি অব বাল্টিমোর মসজিদ পরিদর্শন শেষে ভাষণ দিতে গিয়ে এসব কথা বলেন তিনি। মসজিদের পাশাপাশি এখানে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত পড়ানোর একটি শিক্ষালয়ও রয়েছে। সেখানে এ সময় প্রায় ২০০ মার্কিন মুসলিম প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন। ওবামা তাদের উদ্দেশে বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে আমি বলছি, আপনারা এ দেশের জন্য সম্পূর্ণ উপযুক্ত। সাত বছর মার্কিন প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালনকালে ওবামা বিশ্বের অন্যান্য দেশের মসজিদ পরিদর্শন করলেও নিজ দেশে এই প্রথম তিনি কোনো একটি মসজিদ পরিদর্শন করলেন। মার্কিন প্রেসিডেন্টরা সাধারণত কোনো উপাসনালয় পরিদর্শন করেন না। ভাষণের শুরুতেই ওবামা বলেন, প্রথমেই আমি দুটি শব্দ বলতে চাই, যা মুসলিম মার্কিনিরা প্রায়ই শোনেন না এবং সেটি হলো : আপনাদের ধন্যবাদ। আমাদের কমিউনিটির সেবার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ, প্রতিবেশীদের জীবনমান উন্নয়ন ও একটি মার্কিন পরিবার হিসেবে আমাদের শক্তিশালী ও ঐক্যবদ্ধ রাখার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। প্রসঙ্গত, প্যারিসে সন্ত্রাসী হামলার পর যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা দেশগুলোতে ক্রমবর্ধমান মুসলিম বিদ্বষের মধ্যে ওবামার এ সফর অনুষ্ঠিত হলো। ওবামা বলেন, কিছু লোকের অপকর্মের জন্য প্রায়শই মার্কিন মুসলিমদের লক্ষ্যবস্তু এবং তাদের দোষী করা হয়। একটি ধর্মের ওপর আঘাত, সব ধর্মের ওপরই আঘাত। ওবামা প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর থেকেই তার সমালোচকরা বলছেন, তিনি একজন মুসলিম কিন্তু খ্রিস্টানের ভান করছেন। ওবামার বাবা ছিলেন মুসলিম। এখনো তার বহু আত্মীয়-স্বজন মুসলিম ধর্মাবলম্বী। তার নামের একটি অংশ হুসেন। সাম্প্রতিক এক জরিপে দেখা যাচ্ছে, ২৯ ভাগ মার্কিনি এবং ৪৫ ভাগ রিপাবলিকান মনে করেন যে ওবামা এখনো মুসলিম। তবে ওবামা এ ধরনের সমালোচনা নাকচ করে দিয়েছেন।
খবরে বলা হয়, সাম্প্রতিক সময়ে একাধিক সন্ত্রাসী ঘটনা ও রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থীদের ইসলামবিরোধী মনোভাবের ফলে যুক্তরাষ্ট্রে মুসলিমবিদ্বেষ নাটকীয়ভাবে বেড়ে গেছে। এর মধ্যে ওবামার মসজিদে যাওয়ার ঘটনাটি বিশেষ গুরুত্ব বহন করছে। মার্কিন ইতিহাস থেকে উদাহরণ দিয়ে ওবামা বলেন, একদম শুরু থেকেই মুসলিমরা এ দেশ গড়ায় অংশ নিয়েছে। দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্যি, কোনো সন্ত্রাসী হামলার পরই আমেরিকার মানুষ মুসলিমদের নাম শুনতে পায়। এ অবস্থার পরিবর্তন হওয়া দরকার। ওবামা বলেন, মার্কিন টেলিভিশন অনুষ্ঠানে ইতিবাচক মুসলিম চরিত্র দেখানো উচিত। তিনি মনে করিয়ে দেন, একটা সময় ছিল যখন এ দেশের টিভিতে কালো মানুষদেরও দেখা যেত না। হোয়াইট হাউস থেকে জানানো হয়েছে, ওবামার আনুষ্ঠানিক ভাষণের আগে মসজিদের ইমাম ইয়াসিন শেখ ও মার্কিন অসি চালনা দলের একমাত্র নারী মুসলিম সদস্য ইবতিহাজ মোহাম্মদের সঙ্গে পৃথকভাবে কথা বলেন। এএফপি, বিবিসি, রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন