ঢাকা, বুধবার, ২৭ মে ২০২০, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৩ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

ইসলামী বিশ্ব

আইএসের রেডিও স্টেশন ধ্বংস

আফগানিস্তানে মার্কিন ড্রোন হামলা

প্রকাশের সময় : ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম



ইনকিলাব ডেস্ক : আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের চালকবিহীন বিমান (ড্রোন) হামলায় ইসলামিক স্টেট (আইএস) জেহাদি গোষ্ঠীর একটি রেডিও স্টেশন ধ্বংস হয়েছে। গত মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্র ও আফগান কর্মকর্তাদের বরাতে এ খবর জানিয়েছে বিবিসি। দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় নানগারহার প্রদেশের প্রত্যন্ত আচিন জেলায় আইএস পরিচালিত খলিফার কণ্ঠস্বর নামে রেডিও স্টেশনটিতে ড্রোন বিমান ব্যবহার করে হামলা চালানো হয়। গেল বছর থেকে আফগানিস্তানে কার্যক্রম শুরু করে আইএস। এরপর নতুন সদস্য সংগ্রহের জন্য এই রেডিও স্টেশনটি চালু করে। সোমবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টা থেকে ৮টার মধ্যে হামলাটি চালানো হয় বলে, জানিয়েছেন নানগারহার প্রদেশের মুখপাত্র আতায়ুল্লাহ খোজিয়ানি। এ সময় স্টেশনটি লক্ষ্য করে ড্রোন থেকে চারটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়। এতে রেডিও স্টেশনটির পাশাপাশি একটি ইন্টারনেট নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র ও আইএসের অন্যান্য স্থাপনাও ধ্বংস হয় বলে জানিয়েছেন তিনি।
এসব হামলায় রেডিও স্টেশনটির পাঁচ অপারেটরসহ ২১ জন নিহত হয়েছেন বলে প্রকাশিত প্রতিবেদনগুলো থেকে জানা গেছে। খলিফার কণ্ঠস্বর স্টেশনটি থেকে পশতু, দারি ও আরবি ভাষায় অনুান প্রচার করা হত। এসব অনুষ্ঠানে সরকার বিরোধী প্রপাগা-া ও আইএসে যোগ দেওয়ার জন্য তরুণ আফগানদের প্রতি আহ্বান জানানো হত। রেডিও আফগান জনগণের বিনোদন ও খবরের প্রধান উৎস। দেশটিতে ১৭০টিরও বেশি রেডিও স্টেশন আছে। আইএস জেহাদিরা দেশটির সরকারি বাহিনীর সঙ্গে লড়াই করার পাশাপাশি তালিবান জঙ্গিদের সঙ্গেও লড়াই করছে। আইএসের সদস্যরা স্থানীয় অনেক মানুষকেও হত্যা করেছে। প্রাণে বেঁচে ফিরে আসা মানুষেরা তাদের ভয়াবহ অত্যাচারের বিবরণ দিয়েছেন।
এর আগে, আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে একটি পুলিশ কার্যালয়ের বাইরে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ১০ জন নিহত ও ২০ জন আহত হয়েছে। উপ-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আইয়ুব সালাঙ্গি স্যেশাল মিডিয়া ওয়েবসাইটে গত সোমবারের এ হামলায় হতাহতের সংখ্যা জানান এবং এদের বেশিরভাগই বেসামরিক নাগরিক বলে উল্লেখ করেন। শহরের পশ্চিমাঞ্চলে দেহমাজাং এলাকায় এ হামলার দায় এক বিবৃতিতে স্বীকার করেছে তালেবান। তারা হামলায় ৪০ জন পুলিশ কর্মকর্তা নিহত হওয়ার দাবি করেছে। একজন প্রত্যক্ষদর্শী ঘটনাস্থলে তিনটি মৃতদেহ এবং আরও বহু আহত মানুষকে পড়ে থাকতে দেখার কথা জানিয়েছেন।
আফগানিস্তানে পশ্চিমা সমর্থিত সরকারের বিরুদ্ধে তালিবান জঙ্গিরা হামলা জোরদার করার পর থেকে কাবুলে গতমাসে কয়েক দফা আত্মঘাতী হামলা হয়েছে। বর্তমানে তালিবানের সঙ্গে আফগান সরকারের বন্ধ হয়ে যাওয়া শান্তি আলোচনা নতুন করে শুরুর চোর এ সময়ে ফের আত্মঘাতী হামলার ঘটনা ঘটছে। বিবিসি, রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন