ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

পুরনো উইন্ডোজে এটিএম হ্যাকিংয়ের ঝুঁকি বাড়ছে

দুর্বল নিরাপত্তা

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

নিরাপত্তার হালনাগাদ বন্ধ হয়ে যাওয়া অপারেটিং সিস্টেম উইন্ডোজ এক্সপি আর সেভেনে চলছে অনেক ব্যাংকের এটিএম বুথ। অর্থ চুরির জন্য হ্যাকারদের অন্যতম টার্গেট এখন এটিএম বুথ। এজন্য ব্যবহার হয় ম্যালওয়ার বা কম্পিউটার ভাইরাস। যা দিয়ে বুথের সাইবার নিরাপত্তা ভেঙে ফেলে হ্যাকাররা। তথ্যপ্রযুক্তি বিশ্লেষকরা বলছেন, দুর্বল নিরাপত্তার এসব অপারেটিং সিস্টেমের কারণেই এটিএম বুথে হ্যাকিংয়ের ঝুঁকি বাড়ছে। কিন্তু, বড় বিনিয়োগের অজুহাতে ব্যাংকগুলো এটিএম হালনাগাদ করছে ধীরগতিতে।
দেশের ৫২টি ব্যাংকের ১১ হাজার এটিএমের বেশকিছু এখনো চলছে পুরনো উইন্ডোজে। যার নিরাপত্তা ব্যবস্থা ঝুঁকিপূর্ণ বলছে তথ্যপ্রযুক্তি বিশ্লেষকরা।

মেট্রোনেট বাংলাদেশ লিমিটেড প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ আলমাস কবীর বলেন, এটিএম বুথগুলোতে সাধারণত উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়। আর বাংলাদেশে উইন্ডোজের যে ভার্সন ব্যবহার করা হয় তা অনেক পুরনো। নিরাপত্তার স্বার্থে এগুলোকে হালনাগাদ করা উচিত।
বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট (বিআইবিএম) বলছে, পুরনো এটিএম মেশিনে হালনাগাদ হবে না উইন্ডোজ। আর পাইরেটেড ভার্সনের ব্যবহারেও ঝুঁকি বাড়ছে হ্যাকিংয়ের।

বিআইবিএম এর সহযোগী অধ্যাপক শিহাব উদ্দিন খান বলেন, বাংলাদেশের বুথগুলোতে ব্যবহৃত মেশিন অনেক পুরাতন হওয়ায় উইন্ডোজ সিস্টেম হালনাগাদ হবে না। আর এ মেশিনগুলোতে উইন্ডোজের আপডেট ভার্সন সাপোর্ট করে না। সেক্ষেত্রে পুরাতন মেশিনগুলো পরিবর্তনের পরামর্শ দেন শিহাব উদ্দিন খান।
বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজির সহকারী অধ্যাপক তানভীর হাসান জোহা জানান, পাইরেটেড সফটওয়্যার ব্যবহার করার কারণে ব্যাংকের সেন্ট্রাল সিস্টেম হ্যাক করে অর্থ হাতিয়ে নেয়া খুব সহজ।
এদিকে, বড় খরচের অজুহাতে ব্যাংকগুলোতে এটিএম হালনাগাদ চলছে ধীরগতিতে।
এ বিষয়ে ইসলামী ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু রেজা মোহাম্মদ ইয়াহিয়া বলেন, নতুন মেশিন স্থাপনের পর দেখা যাবে সেটাও পুরাতন হয়ে যাবে। প্রযুক্তির ক্ষেত্রে কিছু সীমাবদ্ধতা অবশ্যই আছে। এখানে অর্থের বিষয়টাও মাথায় রাখতে হয় কেননা এ মেশিনগুলা বাইরে থেকে আনতে হয়।
নতুন উইন্ডোজে ম্যালওয়্যার আক্রমণ ঝুঁকি প্রায় ৭০ শতাংশ হ্রাস পাবে বলছে বিআইবিএম। এছাড়া সময়মতো সিকিউরিটি পেজ আপডেট করতে পারলে বুথগুলোতে নিরাপত্তা ঝুঁকি ৬০ থেকে ৭০ শতাংশ কমানো সম্ভব বলে মনে করেন বিআইবিএম’র সহযোগী অধ্যাপক শিহাব উদ্দিন খান। গেল জুনে দেশে প্রায় ১ কোটি ৩৬ লাখ বার লেনদেন হয়েছে এটিএম বুথগুলোতে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন