বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮, ২৩ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

রূপগঞ্জে স্কুলছাত্রকে হাত-পা বেঁধে শ্বাসরোধে হত্যা

প্রকাশের সময় : ২৬ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে মারুফ মিয়া নামে এক স্কুলছাত্রকে হাত-পা বেঁধে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।   গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার ভা-াবো এলাকা থেকে ওই স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার করা হয়। মারুফ মিয়া ভা-াবো এলাকার ওমর আলীর ছেলে। এছাড়া সে স্থানীয় ভুলতা স্কুল অ্যান্ড কলেজের ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র।
ভুলতা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ও উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহ আলম জানান, ভা-াবো এলাকার একটি ঘরে মারুফ মিয়ার হাত-পা বাঁধা লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশ ওই লাশ উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। ধারণা করা হচ্ছে, স্কুলছাত্র মারুফকে হাত-পা বেঁধে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন এলে প্রকৃত ঘটনা বলা যাবে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে জাহাঙ্গীর মিয়া (২০) নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে। আটক জাহাঙ্গীর নওগাঁ জেলার মান্দা থানার বরদঘাটা এলাকার মোসলেম মিয়ার ছেলে। জাহাঙ্গীর মারুফ মিয়াদের বাড়িতে ভাড়ায় বসবাস করে আসছে।
মা রাজিয়া বেগম জানান, তার স্বামী ওমর আলী একজন দিনমজুর। ওমর আলী ভোরেই কাজে বের হয়ে যান। সকালে রাজিয়া বেগম তার বাপের বাড়ি মাঝিপাড়ায় যান। এ সুযোগে ছেলে মারুফ মিয়াকে হত্যা করা হয়েছে। তিনি ছেলে হত্যার বিচার দাবি করেছেন।
বাবা ওমর আলী জানান, গত এক মাস আগে আটককৃত জাহাঙ্গীর তাদের বাড়িতে ভাড়ায় বসবাস করতে শুরু করে। বাড়িতে থাকা  ছোট ছেলে মাহাবুব মিয়া (৮), বড় ছেলে মারুফ মিয়াকে না পেয়ে খুঁজতে থাকে। এসময় ভাড়াটিয়া জাহাঙ্গীরকে জিজ্ঞাসা করলে সে  ছোট ছেলে মাহাবুবকে জানায় মারুফ মিয়া ঘরে আছে। সে আর কোনো দিন ফিরে আসবে না। জাহাঙ্গীরসহ তার লোকজনই মারুফ মিয়াকে হত্যা করেছে বলে তিনি দাবি করেছেন।
এ বিষয়ে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসমাইল হোসেন বলেন, আটক জাহাঙ্গীরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এছাড়া এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে গ্রেফতার করা হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন