ঢাকা রোববার, ২৪ জানুয়ারি ২০২১, ১০ মাঘ ১৪২৭, ১০ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ড. তারিকুলের একের পর এক সাফল্য

মাহবুব আলম | প্রকাশের সময় : ১২ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

পুরো বিশ্বের জন্য ২০২০ সাল ছিল বেদনার বছর। চারদিকে মৃত্যু আর মানুষের দুঃখ-কষ্ট বিরাজ করছে। এরই মাঝে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে চমৎকার কিছু সাফল্যের মধ্য দিয়ে বছরটি পার করেছেন তরুণ গবেষক ড. মোহাম্মদ তারিকুল ইসলাম। তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকার ও রাজনীতি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক। সম্প্রতি তিনি স্কুল অফ ওরিয়েন্টাল অ্যান্ড আফ্রিকান স্টাডিজ এর ভিজিটিং ফেলো হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন। এর আগে তিনি বিশ্বখ্যাত অক্সফোর্ড এবং কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিজিটিং স্কলার হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেন। এছাড়া গবেষণার ফলে তিনি কোভিড-১৯ এর সময় হয়েছেন দক্ষিণ এশিয়ার সম্ভাবনাময় স্কলার্সের তালিকায় নাম লিখিয়েছেন।
ড. তারিকুল ইসলাম বলেন, কোভিড-১৯ মহামারির মধ্যেও যেসব গবেষণা কাজ আমি হাতে নিয়েছি সেগুলি দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম স্কলার হয়ে উঠতে আমাকে সাহায্য করেছে।
অন্যদিকে কাভিড-১৯ মহামারির শুরু থেকে ড. তারিকুল ইসলাম ৩৫টির বেশি আর্টিকেল লিখেছেন। যা বাংলাদেশ, নেপাল এবং ভারতে বিভিন্ন ইংরেজি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত হয়। এছাড়া বিশ্বের বেশ কয়েকটি স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তার গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে।
এছাড়া গবেষণায় ড. তারিকুল ইসলামের অবদানের জন্য এবং ২০টিরও বেশি আর্টিকেল এবং ৫টি সাক্ষাৎকার প্রকাশ করেছে নেপালের জনপ্রিয় ইংরেজি দৈনিক খবরহাব। এছাড়া খবরহাব আন্তর্জাতিক ক্যাটাগরিতে ২০২০ সালের সেরা লেখক সম্মাননায় ভ‚ষিত করেছেন ড. তারিককে। বর্তমানে তিনি ভারতের যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় এবং নেপালের ত্রিভ‚বন বিশ্ববিদ্যালয়ে গেস্ট ফ্যাকাল্টি হিসেবে কাজ করেছেন। তিনি লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিক্সের দক্ষিণ এশিয়াবিষয়ক ব্লগ এবং নয়াদিল্লি­ভিত্তিক পলিসি ওয়েব জার্নাল ‘সাউথ এশিয়া মনিটর’ এ নিয়মিত লেখেন।
ড. তারিকুল ইসলাম বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণকেন্দ্রে প্রশিক্ষক হিসেবেও অবদান রাখছেন। সুশাসন ও উন্নয়ন বিষয়ে বর্তমানে ব্যাপক জনপ্রিয় ‘লোকাল গভর্মেন্ট, সেন্টার ফর সোশ্যাল হারমোনি অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট’ শীর্ষক অনলাইন মাধ্যমের প্রতিষ্ঠাতা তিনি। তার সম্পাদিত বই ‘হিউম্যান সিকিউরিটি, পিস অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট: সাউথ এশিয়ান পার্সপ্রেসিভ’ জুলাই ২০১৮ সালে ভারতের কলকাতা থেকে প্রকাশিত হয়েছিল।
এই শিক্ষকের নানা বিষয়ে লেখা নিবন্ধ বিশ্বের বিভিন্ন জনপ্রিয় জার্নাল যেমন- রাউটলেজ, এলশিভিয়ার, সেজ, ¯িপ্রঞ্জার, অক্সফোর্ড ইত্যাদিতে প্রকাশিত হয়েছে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Tareq Sabur ১২ জানুয়ারি, ২০২১, ১১:৫৪ এএম says : 0
সব বুঝলাম ভাই, ধন্যবাদ। কিন্তু আসল দরকারি জিনিসটা বুঝলামনা। কেউ কি একটু বুঝিয়ে বলবেন যে আসলে উনার তথাকথিত সাফল্য কি মানবতার কোন কাজে আসছে নাকি শুধু উনার কাজে আসছে? উনার জন্য এই প্রচারের কি কোন রাজনৈতিক উদ্দ্যেশ্য আছে কিনা তাও ভেবে দেখা দরকার।
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন