ঢাকা সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ২৩ ফাল্গুন ১৪২৭, ২৩ রজব ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

অনিয়ম-সংঘাত-সংঘর্ষ

দ্বিতীয় ধাপে ৬০টি পৌরসভা নির্বাচন সম্পন্ন # সিরাজগঞ্জে বিএনপির বিজয়ী প্রার্থী খুন : এজেন্টকে মারপিট করায় সারিয়াকান্দি উপজেলা যুবলীগ সদস্যের ১ বছর জেল : ৭ মেয়র প্রার্থীর নির্বাচন ব

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০১ এএম

সংঘাত-সংঘর্ষ, কেন্দ্র দখল, ককটেল বিস্ফোরণ, জাল ভোট ও নির্বাচন বর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে দ্বিতীয় ধাপের ৬০টি পৌরসভার নির্বাচন। এদিকে নির্বাচিত হয়েই খুন হয়েছেন সিরাজগঞ্জ সদর পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের বিএনপির প্রার্থী তরিকুল ইসলাম খান। গতরাত ৮টার দিকে শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। তিনি শহরের নতুন ভাঙাবাড়ি মহল্লার আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে। পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ কাউন্সিলর পদে ডালিম প্রতীকে তিনি ৮৫ ভোটে জয়লাভ করেন।
এর আগে গতকাল সকাল ৮টায় শুরু হয়ে ভোটগ্রহণ চলে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। ৬০টি পৌরসভা নির্বাচনের মধ্যে ২৮টিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) এবং বাকি ৩২টিতে ব্যালটে ভোটগ্রহণ করা হয়। দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনেও ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সমর্থিত নৌকা মার্কার প্রার্থীরা এক চেটিয়া বিজয় অর্জন করেছেন। ৬০টি পৌরসভার মধ্যে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নৌকা মার্কা প্রতীকে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন ৩৪টি পৌরসভায়। অন্যদিকে বিএনপি সমর্থিত ধানের শীষের প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন ৪ জন এবং ক্ষমতাসীন দলের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) ও অন্যান্য প্রার্থী জয়ী হয়েছেন ৮টি পৌরসভায়।
নির্বাচনে কেন্দ্র দখল, প্রার্থীকে মারধর, এজেন্ট বের করে প্রিজাইডিং অফিসারের সহযোগিতায় নৌকা মার্কায় সিল মারাসহ বিভিন্ন অভিযোগ এনে বিএনপি সমর্থিত ৬ মেয়র প্রার্থী নির্বাচন বর্জন করেছেন। ভোট বর্জন করেছেন মেহেরপুরের গাংনীর স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী। ককটেল বিস্ফোরণ এবং সংঘর্ষের ঘটনায় আনসার সদস্যসহ ১৫ জন আহত হয়েছেন। বগুড়ার সারিয়াকান্দি পৌরসভায় জাল ভোট দেওয়ার চেষ্টা ও এক প্রার্থীর এজেন্টকে মারপিট করে বুথ থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগে উপজেলা যুবলীগের সদস্য শাহাদত হোসেনকে ভ্রাম্যমান আদালত ১ বছরের জেল প্রদান করেছে।
এ ধাপে ৬১টি পৌরসভায় ভোট অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। তবে নীলফামারীর সৈয়দপুর পৌরসভার একজন প্রার্থী মৃত্যুবরণ করায় ভোট স্থগিত করা হয়। আর ৬০টি পৌরসভার ৫৬টিতে মেয়র পদে ভোট হয়েছে। নারায়ণগঞ্জের তারাব, পিরোজপুর, সিরাজগঞ্জের কাজিপুর, পাবনার ভাঙুরা এই চারটি পৌরসভায় ভোটের আগেই আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্ব›িদ্বতায় বিজয়ী হয়েছেন। তাই বাকি ৫২টিতে মেয়র পদে নির্বাচন হয়েছে।
নির্বাচন কমিশনার মাহাবুব তালুকদার বলেছেন, পৌরসভা নির্বাচন অংশগ্রহণ মূলক হয়নি। অন্যদিকে নির্বাচন কমিশনের সচিব দাবি করেছেন, বিচ্ছিন্নভাবে কয়েক জায়গায় সহিংস ঘটনার অভিযোগ উঠলেও সার্বিকভাবে নির্বাচন সুষ্ঠু শান্তিপূর্ণ হয়েছে, ভোটার উপস্থিতি ছিল সন্তোষজনক।
দ্বিতীয় ধাপের পৌর নির্বাচনেও বিভিন্ন স্থানে মারামারি, কেন্দ্র দখল, জাল ভোট দেওয়া, ককটেল বিস্ফোরণসহ বিভিন্ন অনিয়মের ঘটনা ঘটেছে। কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর, রাজশাহীর ভবানীগঞ্জ, কুষ্টিয়া সদর, মিরপুর, পাবনার ঈশ্বরদী এবং মোংলা পোর্ট পৌরসভার বিএনপির মেয়র প্রার্থীরা নির্বাচন বর্জন করেছেন। কেন্দ্র থেকে এজেন্ট বের করে প্রিজাইডিং অফিসারের সহযোগিতায় নৌকা মার্কায় সিল মারাসহ বিভিন্ন অভিযোগ এনে তারা নির্বাচন বর্জন করেছেন। ফেনীর দাগনভ‚ঞায় একটি কেন্দ্রে দুটি ককটেল বিস্ফোরণ হয়েছে। এতে এক আনসার সদস্য আহত হয়েছেন। এছাড়া, পাবনার ঈশ্বরদী এবং কুষ্টিয়া মিরপুরে বিএনপি মেয়র প্রার্থীদের মারধর করে কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মোংলা বন্দর পৌরসভা ও ঝিনাইদহের শৈলক‚পায় দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতি ও সংঘর্ষ হয়েছে। শৈলকূপায় ২জন এবং মোংলায় ৩জন আহত হয়েছেন। নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে বিভিন্ন কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ চলাকালে আওয়ামী লীগের দুই কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ওই সব কেন্দ্রে অতিরিক্ত পুলিশ-বিজিবি মোতায়েন করা হয়। কিশোরগঞ্জে ওয়ালী নেওয়াজ খান কলেজ কেন্দ্রে বিএনপি প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর সমর্থকদের ওপর হামলার অভিযোগ করা হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুপুরে ওই কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়।
বগুড়ার সারিয়াকান্দি পৌরসভায় জাল ভোট দেওয়ার চেষ্টা ও এক প্রার্থীর এজেন্টকে মারপিট করে বুথ থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগে উপজেলা যুবলীগের সদস্য শাহাদত হোসেনকে (৩০) এক বছরের সাজা দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। মাগুরা ও পাবনায় বিএনপির প্রার্থীরা ধানের শীষের এজেন্টদের বের করে দেওয়া, মারধর ও ভোটে বাধা দেওয়ার অভিযোগ করেন। টাঙ্গাইললের ধনবাড়ি, নাটোরের গোপালগঞ্জ, বাগেরহাটের মোংলা, খাগড়াছড়ি, পাবনার বেশ কয়েক জায়গায় আওয়ামী লীগের সমর্থকদের বিরুদ্ধে ভোটারদের ফিঙ্গার প্রিন্ট নিয়ে বের করে দেওয়া, ব্যালট ছিনিয়ে নিয়ে নৌকায় সিল মারা, বিএনপির এজেন্টদের মারধর ও কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়ার মতো অভিযোগ উঠেছে।
নোয়াখালী ব্যুরো জানায়, বহুল আলোচিত নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রাথী (নৌকা মার্কা) আবদুল কাদের মির্জা ১০ হাজার ৮৩৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। আবদুল কাদের মির্জা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী বিএনপি মনোনীত প্রাথী (ধানের শীষ) কামাল উদ্দিন চৌধুরী পেয়েছেন ১ হাজার ৭৭৮ ভোট এবং জামায়াত সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী (মোবাইল ফোন) মোশারফ হোসেন পেয়েছেন ১ হাজার ৪৫ ভোট। সকাল থেকে ৯টি কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। পুলিশ ও র‌্যাবসহ বিভিন্ন বাহিনীর সদস্যরা তৎপর ছিল। ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে মোবাইল টিমগুলো প্রতিটি কেন্দ্রে পরিদর্শন করেন।
রাজশাহী ব্যুরো জানায়, রাজশাহীর তিন পৌরসভার নির্বাচনে একটিতে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থীসহ অন্য দুইটিতেও আ. লীগ প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন। সন্ধ্যায় ভোট গণনা শেষে বেসরকারিভাবে কেন্দ্র থেকে তাদের বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌরসভায় ৫৯০২টি ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মুক্তার হোসেন। তার নিকটতম আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী শহিদুজ্জামান শহিদ পেয়েছেন ৪৩১৯ ভোট।
স্টাফ রিপোর্টার, সাভার থেকে, ঢাকার সাভারে উৎসব মুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হচ্ছে পৌরসভা নির্বাচন। সরেজমিনে অধিকাংশ কেন্দ্র ঘুরেও বিএনপি প্রার্থীর কোন এজেন্ট চোখে পড়েনি। ভোটারের উপস্থিতিও ছিল খুবই কম। কেন্দ্রে প্রিজাইডিং অফিসার মো. ইসহাক হোসেন বলেন, এবারই প্রথম ইভিএমএ ভোট হচ্ছে তাই মহিলাদের ভোট দিতে সমস্যা হয়েছে। না বোঝার কারণে অনেকেই অভিযোগ করছে তারা ভোট দিতে পারেনি। তার কেন্দ্রে বিএনপির কোন এজেন্ট নেই জানিয়ে বলেন, কোন এজেন্ট পরিচয়পত্রও নিতে আসেনি।
এদিকে দুপুরে সাভার পৌরসভার কয়েকটি ভোট কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে সাভার কলেজের কেন্দ্রে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার সাংবাদিকদের বলেছেন, এবার নির্বাচনে যে কয়টি ভোট কেন্দ্র পরিদর্শন করেছি কোথাও কোনো ধানের শীষের এজেন্টকে দেখি নি। অনেক জায়গায় পোস্টার দেখেছি কিন্তু কোনো জায়গায় বিএনপির পোস্টার দেখিনি। আশা করেছিলাম নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক হবে। ভোটার সংখ্যা কম প্রসঙ্গে নির্বাচন কমিশনার বলেন, যেহেতু ইভিএম-এ নির্বাচন হচ্ছে সেহেতু ভোটার সংখ্যা কম হতে পারে। ভোটার সংখ্যা কম হোক আর বেশি হোক সেটা নিয়ে আমি ভাবি না। কিন্তু নির্বাচনটা যথাযথ হচ্ছে কিনা সেটাই সবচেয়ে বড় কথা। এখন পর্যন্ত ভোটার সংখ্যা সন্তোষজনক নয় বলেন তিনি।
বাড্ডা এলাকার স্বর্ণকলি আদর্শ বিদ্যালয়ের মহিলা কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার ড. গৌতম কুমার জানান, তার কেন্দ্রে ২ হাজার ৭৯৯ জন ভোটার রয়েছে। বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত ১৬ ভাগ ভোট পড়েছে। তার কেন্দ্রেও বিএনপির কোন এজেন্ট তিনি দেখেননি বলে জানান।
বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় (পাকা ভবন) কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার আমজাদ হোসেন বলেন, তার কেন্দ্রে ১৮শ’ ৩৩ জন ভোটার রয়েছে। বেলা পৌনে ১২টা পর্যন্ত ১৭ ভোট পড়েছে। বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আরেক কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার সাইফুল ইসলাম বলেন, তার কেন্দ্রে ১ হাজার ৭৩৪ জন পুরুষ ভোটার রয়েছে। এ কেন্দ্রে ২৩ ভাগ ভোট পড়েছে বলে তিনি দাবি করেছেন। তবে এ দুই কেন্দ্রে বিএনপির কোন এজেন্ট তারা দেখেননি বলে জানিয়েছেন।
টাঙ্গাইল জেলা সংবাদদাতা জানান, টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী পৌরসভা নির্বাচনে ভোটারদের আঙ্গুলের ছাপ (ফিঙ্গার প্রিন্ট) রেখে বের করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে নৌকা সমর্থিত প্রার্থীর লোকজনের বিরুদ্ধে। আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী মনিরুজ্জামান বকল (নারিকেল গাছ) ও বিএনপি প্রার্থী এসএমএ ছোবহান (ধানের শীষ) এ অভিযোগ তুলেন। বেলা ১২টার দিকে ধনবাড়ী সরকারি ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। এ কেন্দ্রে বেশ কিছু ভোটারদের আঙ্গুলের ছাপ (ফিঙ্গার প্রিন্ট) রেখে বের করে দেয়ার অভিযোগ উঠে। দফায় দফায় এ কেন্দ্রে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মনিরুজ্জামান জানান, ‘আওয়ামী লীগের প্রার্থী খন্দকার মঞ্জুরুল ইসলাম তপনের লোকজন আমার এজেন্টদের বের করে দিয়েছে। আর ভোটারদের ফিঙ্গার রেখে তাদের বের করে দিয়ে নৌকা মার্কায় ভোট দিচ্ছে। বিএনপি প্রার্থী এসএমএ ছোবহান বলেন, ‘ধনবাড়ী সরকারি ডিগ্রি কলেজে ৮নং কেন্দ্রসহ কয়েকটি কেন্দ্রে ভোটারদের ফিঙ্গার রেখে বের করে দিয়ে নৌকা প্রার্থীর সমর্থিতরা নৌকায় ভোট দিচ্ছে। এখানে সুষ্ঠুভাবে ভোট হচ্ছে না। বেশিরভাগ কেন্দ্রে একই সমস্যা।
ওই কেন্দ্রের আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর এজেন্ট রাশেদুজ্জামান লিটন বলেন, ‘আমার সামনেই আওয়ামী লীগের লোকজন নৌকা মার্কায় ভোট দিচ্ছে। বাধা দিলে আমাকে তারা বের করে দেয়।’ এ বিষয়ে জানতে ওই কেন্দ্রে প্রিজাইডিং অফিসারের দায়িত্বে থাকা সুজন নাথের অফিসে গেলে তার কক্ষটি তালাবদ্ধ পাওয়া যায়। কক্ষের সামনে পাহারায় থাকা আনসার সদস্য জানান, স্যার বাইরে তালা দিয়ে ভিতরে বসে আছেন। পরে তিনি তালা খুলে দেন। তখন প্রিজাইডিং অফিসার বলেন, এখনও কেউ আমার কাছে অভিযোগ দেয়নি।’ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা করুনা সিন্ধু চাকলাদার বলেন, ‘ভোট সুষ্ঠুভাবে হচ্ছে। আমার কাছে কেউ কোন অভিযোগ করেনি।’
ফেনী জেলা সংবাদদাতা জানান, ফেনীর দাগনভ‚ঞা পৌরসভা নির্বাচনে হ্যাটট্রিক জয় পেলেন আ.লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী ওমর ফারুক খাঁন। পর পর তিনবার নির্বাচিত হয়ে এ পৌরসভার ইতিহাস সৃষ্টি করলেন তিনি। নির্বাচনী ফলাফলে ৮ হাজার ২শ ৩৪ ভোট পেয়ে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ওমর ফারুক খাঁন বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। এদিকে বিএনপি ধানের শীষ প্রতীকের মেয়র প্রার্থী সাইফুল ইসলাম স্বপন ৯৩৯ ভোট। লাঙল প্রতীকের প্রার্থী বিনোদ বিহারী ভৌমিক ১১৯ ভোট, স্বতন্ত্র প্রার্থী মোবাইল প্রতীকের তারেক আজিজ পেয়েছেন ৬১ ভোট। জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন পাটোয়ারী এ ফলাফল ঘোষণা করেন।
এদিকে ভোট শুরু হওয়ার এক ঘণ্টার পরে পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ডের গনিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটারদেরকে আতঙ্কগ্রস্থ করার লক্ষ্যে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটায়। ঘটনাস্থলে ককটেল বিস্ফোরণে আহত হয়েছেন দুই আনসার সদস্যসহ এক পুলিশ। এ ঘটনায় কেন্দ্রে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। ভোট কেন্দ্রের অদূরে তারেক ও সুজন নামের আরো দুজন আহত হয়েছেন বলে জানা যায়। ওই কেন্দ্রের পাশে মিন্নাত আলী বাড়ির কয়েকটি ঘর ভাঙচুর করেছে বলে অভিযোগ করেন বাড়ির বাসিন্দারা। তখন ঘটনাস্থলে গিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। গনিপুর কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার গোলম কিবরিয়া জানান, সকাল থেকে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দিচ্ছে ভোটাররা। আনুমানিক ৯টার দিকে বিদ্যালয়ের পেছন থেকে ককটেল ছুড়ে দুর্বৃত্তরা।
এদিকে উজিতপুর কেন্দ্রের টেবিল ল্যাম্প প্রতীকের স্বতন্ত্র কাউন্সিলর প্রার্থী কামরুল ইসলাম ক্লাইভকে সকালে ৮নং কেন্দ্রে যেতে বাধা দেয় এবং বহিরাগত সন্ত্রাসীরা তাকে অবরুদ্ধ করে রাখে। তার দুইটি কেন্দ্রে এজেন্ট ঢুকতে দেয়া হয়নি বলে অভিযোগ করেন। আ.লীগের মেয়র প্রার্থী ওমর ফারুক খানের নিজ বাড়ির রামানন্দপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে সকালে বিএনপি প্রার্থীর কোন এজেন্টকে ঢুকতে দেয়া হয়নি। কয়েকটি বুথে এসব চিত্র লক্ষ্য করা যায়। এদিকে বিএনপি প্রার্থী সাইফুল ইসলাম স্বপন জানান ভোটের আগের রাতে পৌরশহরে ককটেল পাটিয়ে ভোটারদেরকে ভয়ভীতি, আতঙ্কিত করা হয়েছে। সকালে সাধারণ ভোটারদেরকে কেন্দ্রে যেতে বাধা দিয়েছেন আ. লীগ প্রার্থীর কর্মী সমর্থকরা। ভোটারদেরকে বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি ধামকি দিয়ে ভয় দেখানো হয়েছে। অনেক কেন্দ্রে তার এজেন্টদেরকে মারধর করে বের করে দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন এটা নির্বাচন নয়, নির্বাচনের নামে একটি তামাশা।
স্টাফ রিপোর্টার, কুষ্টিয়া থেকে জানান, কুষ্টিয়ার ৪টি পৌর নির্বাচনে ৩টি নৌকা ১টিতে মশাল বিজয়ী হয়েছেন। বেসরকারী ফলাফলে এ সংবাদ জানানো হয়। কুষ্টিয়া পৌরসভায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত পৌর আনোয়ার আলী ফের বিজয় অর্জন করেছেন। মিরপুরে আওয়ামী লীগ সমর্থিত নৌকা প্রতীকে হাজী এনামুল হক ফের মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। এর আগে দুপুরে কুষ্টিয়া ও মিরপুর পৌরসভায় গোপনে ও প্রকাশ্যে ভোট মারার অভিযোগ করেছে প্রার্থীরা। মিরপুরে মেয়র প্রার্থী আরিফুল ইসলামের উপর হামলা করে নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা। তাকে আহতাবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পৌরসভার বিভিন্ন কেন্দ্রে জাল ভোট, ভোট কারচুপির অভিযোগে ভোট প্রত্যাহার করে নেন বিএনপির প্রার্থী রহমত আলী রব্বান। পৌর বিএনপির সেক্রেটারি ইব্রাহিম হোসেন অভিযোগ করেন সেখানে জোরপূর্বক ভোট মেরে নিয়েছেন আওয়ামী লীগের কর্র্মীরা। তাই বিএনপির প্রার্থী ভোট বর্জন করেন।
বগুড়া ব্যুরো জানায়, বগুড়ার শেরপুর পৌরসভায় বিশাল জয় পেয়েছেন বিএনপির মনোনয়ন বঞ্চিত বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী মো. জানে আলম খোকা। বেসরকারি ফলাফল অনুযায়ী তিনি ৮ হাজার ৭৭২ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন।
তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী বর্তমান মেয়র ও আওয়ামী লীগের প্রার্থী আব্দুস সাত্তার পেয়েছেন ৩,৩৭১ এবং বিএনপি প্রার্থী ইয়াসমিন স্বাধীন কুমার কুন্ডু পেয়েছেন মাত্র ৩,৩৭১ ভোট ।
এদিকে, বগুড়ার সারিয়াকান্দি পৌরসভায় জয় পেয়েছেন আওয়ামী লীগের মনোনিত মেয়র প্রার্থী মতিউর রহমান মতি। বেসরকারি ফলাফল অনুযায়ী তিনি ৫,৫৮৪ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন । বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি মেয়র প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র তোফাজ্জল হোসেন ভুট্টু মেয়র পদে জয়লাভ করেছেন। পৌরসভা নির্বাচনে আদমদীঘি উপজেলার সহকারী রিটানিং অফিসার বেসরকারী ভাবে এই ফলাফল ঘোষণা করেন।
দিনাজপুর অফিস জানায়, দিনাজপুর পৌরসভার নির্বাচনে তৃতীয় বারের মতো নির্বাচিত হয়েছে বিএনপি প্রার্থী সৈয়দ জাহাঙ্গীর আলম। কেন্দ্র থেকে প্রাপ্ত হিসাব মতে সে পেয়েছে ৪৪ হাজার ৫৬২ ভোট। তার নিকটতম প্রার্থী নৌকা প্রতীকের রাশেদ পারভেজ পেয়েছেন ২৪২৬২ টি ভোট। ইভিএমে অনুষ্ঠিত দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলা পৌরসভায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মোশাররফ হোসেন বাবুল পেয়েছেন ৩ হাজার ৯৯৩ ভোট। তার নিকটতম প্রার্থী নৌকা প্রতীকের নূর ইসলাম নূর পেয়েছেন ৩ হাজার ৯৪৬ ভোট।
এর আগে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে চলে ভোট গ্রহণ। এ জেলায় সদর ও বিরামপুর পৌরসভা ব্যালট পেপারে এবং বীরগঞ্জ পৌরসভায় ইভিএম-এর মাধ্যমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।
ফরিদপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, ফরিদপুরের বোয়ালমারী পৌরসভা নির্বাচনের তীব্র শীতকে উপেক্ষা করে সকাল থেকেই বিভিন্ন কেন্দ্রে ভোটারদের দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। বিভিন্ন ভোটকেন্দ্র গুলোতে আইন শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের তৎপরতা ছিল চোখে পড়ার মতো।
গোদাগাড়ী (রাজশাহী) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, রাজশাহীর গোদাগাড়ীর কাঁকনহাট পৌরসভায় শীত বেড়ে যাওয়ায় ভোটার উপস্থিতি ছিল কম।
ঝিনাইদহ জেলা সংবাদদাতা জানান, ঝিনাইদহ শৈলকুপায় পৌরসভা নির্বাচনে কাজী আশরাফুল আজম নির্বাচিত হয়েছেন। নৌকা প্রতীকে তার প্রাপ্ত ভোট ৯৮৪৯। আশরাফুল আজম তৃতীয় বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হলেন। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থী তৈয়বুর রহমান খান বাবু জগ প্রতীকে পেয়েছেন ৭২৬৫ ভোট। এর আগে একটি কেন্দ্রে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া এবং আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (স্বতন্ত্র) তৈয়বুর রহমানের গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটলেও বাকি ১৪ কেন্দ্রে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।
খাগড়াছড়ি জেলা সংবাদদাতা জানান খাগড়াছড়ি পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে জয়লাভ করেছেন খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্মলেন্দু চৌধুরী। তিনি নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ৯৩২৫ ভোট। আর তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী মো. রফিকুল আলম মোবাইল প্রতীকে পেয়েছেন ৮৬৪৭ ভোট।
কুলিয়ারচর (কিশোরগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, কুলিয়ারচর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী বিজয়ী লাভ করেছেন। এর আগে কুলিয়ারচর পৌর নির্বাচন বয়কট করেছেন বিএনপি প্রার্থী নুরুল মিল্লাত। কেন্দ্রীয় বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক, কিশোরগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি শরীফুল আলম বিএনপি সমর্থীত ভোটারদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে না দেয়া ও কারচুপির অভিযোগ এনে নির্বাচন বয়কট করেন।
লামা উপজেলা সংবাদদাতা জানান, লামায় নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন বিএনপি। লামা প্রেসক্লাব সড়কের ধানের শীষ মার্কার নির্বাচনী অফিসের সামনে দুপুর সোয়া ৩ টায় এ সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করেন বিএনপি'র প্রার্থী মো. শাহীন। সাংবাদিক সম্মেলনে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিয়ে বিএনপি'র প্রার্থী মো. শাহীনের উপস্থিতিতে বক্তব্য রাখেন, লামা পৌর বিএনপি'র সাধারন সম্পাদক আরিফ চৌধুরী।
মেহেরপুর জেলা সংবাদাতা জানান, ইভিএম এ কারসাজি ও এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগে গাংনী পৌর সভা নির্বাচন বর্জন করেছেন বিএনপি প্রার্থী আসাদুজ্জামান বাবলু ও স¦তন্ত্রপ্রার্থী বর্তমান মেয়র আশরাফুল ইসলাম। গতকাল দুপুর ২টার দিকে গাংনী পৌরসভার ৬ নম্বর কেন্দ্র পরিদর্শন ভোট বর্জনের সিদ্ধান্ত স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল ইসলাম ও দুপুর আড়াইটার দিকে ৩নম্বর ওয়ার্ড কেন্দ্র থেকে বিএনপি প্রার্থী আসাদুজ্জামান বাবলু ভোট বর্জনের সিদ্ধান্ত নেন। এসময় আশরাফুল ইসলাম বলেন, ইভিএম এ প্রথম অবস্থায় সব প্রতীক দেখা যাচ্ছে না। যখন এটি নিয়ে চ্যালেঞ্জ করা হচ্ছে তখন সব প্রতীক দেখা যাচ্ছে। ফলে ইভিএম নিয়ে জনগণের মধ্যে যে ধারণা ছিল তা সঠিক হয়েছে। এ নির্বাচন প্রহসনের নির্বাচন।
বাগেরহাট জেলা সংবাদদাতা জানান, বাগেরহাটের মোংলা পোর্ট পৌরসভার নির্বাচনে মেয়র পদে এই প্রথম আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শেখ আব্দুর রহমান বিজয়ী হয়েছেন। তবে, ভোট কারচুপি ও কেন্দ্র দখলের অভিযোগ এনে মোংলা পোর্ট পৌরসভার নির্বাচনে বিএনপি মনেনীত প্রার্থী মো. জুলফিকার আলীসহ ১২ কাউন্সিলর প্রার্থী ভোট বর্জন করেছেন। সকাল সাড়ে দশটায় শহরের মাদরাসা রোডস্থ পৌর মেয়রের বাসভবনের নির্বাচনী অফিস সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচন বর্জন করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে মেয়র প্রার্থী জুলফিকার আলী অভিযোগ করন, ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের চাপে সাধারণ ভোট কেন্দ্রে যেতে পারছেন না। বাধা পেরিয়ে কেউ কেউ যেতে পারলেও সরকারি দলের নিয়োগকৃত ক্যাডারদের সামনে তাদের পছন্দের প্রতীকে ভোট দিতে বাধ্য করা হচ্ছে। এভাবে কোন সভ্য দেশে নির্বাচন হতে পারে না। আমি নিজে কয়েকটি কেন্দ্র এমনি লজ্জাষ্কর ভোট ডাকাতির চিত্র দেখেছি। তিনি বলেন, আমি নিজে কোন কেন্দ্র ম্যাজিস্ট্রেট দেখিনি। নির্বাচন কমিশনকে এসববিষয়ে জানালেও কোন প্রকার প্রতিকার মেলেনি। একই সাথে বিএনপি সমর্থিত ১২জন কাউন্সিলর ও সতন্ত্র দুই জন কাউন্সিলর প্রার্থী ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন।
নওগাঁ জেলা সংবাদদাতা জানান, মোটামুটি শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নওগাঁর পত্মীতলা উপজেলার নজিপুর পৌরসভার ভোটগ্রহণ হয়েছে। সরকারদলীয় প্রার্থী বলছেন ভোট শান্তিপূর্ণ হচ্ছে। অপরদিকে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী বলছেন ভোট সুষ্ঠু হচ্ছে না। ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘ভোট সুষ্ঠু হচ্ছে না। ভোটের কোনো পরিবেশ নাই। কেন্দ্রে আমার এজেন্টদের প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। নৌকা প্রতীকের প্রার্থী রেজাউল কবির চৌধুরী বলেন, বিএনপি প্রার্থীর এজেন্ট প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না বলে যে অভিযোগ তা অভিত্তিহীন’।
স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে জানান, খুরশীদ হায়দার টুটুল বেসরকারি ফলাফলে মাগুরা পৌর মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন।
নাটোর জেলা সংবাদদাতা জানান, ২য় ধাপের পৌরসভা নির্বাচনে নাটোরের ২টি পৌরসভায় বেসরকারী ফলাফলে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরাই জয়ী হয়েছে। তন্মধ্যে নলডাঙ্গা পৌরসভা নির্বাচনে বেসরকারি ফলাফলে জয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মনিরুজ্জামান মনির ও লালপুরের গোপালপুর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী রোকসানা মোর্ত্তাজা লিলি বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। সকালে নাটোরে উৎসবমুখর পরিবেশে নলডাঙ্গা, গুরুদাসপুর ও গোপালপুর পৌরসভার ভোটগ্রহণ হয়েছে। দুপুর পর্যন্ত ৩টি পৌরনভার কোথাও কোন অপ্রীতিকর পরিস্থিতির খবর পাওয়া যায়নি।
বাগমারা (রাজশাহী) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার ভবানীগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচনে ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক। ভোট দিতে কেন্দ্রে যেতে বাধা দেয়ার অভিযোগ তুলে তিনি ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, সকাল ১০টার দিকে কয়েকজন সমর্থক নিয়ে তিনি শহীদ সেকেন্দার মেমরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয় ভোট দিতে যাচ্ছিলেন। এ সময় আওয়ামী লীগ প্রার্থী সমর্থকরা তাকে কেন্দ্রে যেতে বাধা দেয় এবং লাঞ্ছিত করে। পরে ভোট না দিয়ে সেখান থেকে ফিরে আসতে হয়েছে। বিষয়টি সাথে সাথে রিটানিং অফিসারকে জানানো হলেও কোন পদক্ষেপ নেয়নি বলে অভিযোগ করেন তিনি। রাজশাহী জেলা প্রশাসক ভোট কেন্দ্রে পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের বলেন, পৌরসভার সব কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট হয়েছে। কোন অপ্রীতিকর ঘটনার অভিযোগ পায়নি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (9)
habib ১৭ জানুয়ারি, ২০২১, ৯:২৬ এএম says : 0
Dark future begin in the country
Total Reply(0)
Munir Hussain ১৭ জানুয়ারি, ২০২১, ২:০৯ এএম says : 0
ইভিএম এ কারচুপি আজ ধরা পড়ে গেল , অধিকাংশ মেশিনে নৌকা প্রতীক ছাড়া অন্য কোনো মার্কা নেই
Total Reply(0)
বয়ড়া খাল পাড় ১৭ জানুয়ারি, ২০২১, ২:০৯ এএম says : 0
নির্বাচণের কি দরকার ছিল?
Total Reply(0)
MD Al-Amin ১৭ জানুয়ারি, ২০২১, ২:১০ এএম says : 0
যারা এই আমলে বিএনপি প্রাথী হয়ে নির্বাচিত হয়েছে তারা এই পদ না এই দেশে মন্ত্রী হওয়া ক্ষমতা রাখে
Total Reply(0)
Sagir Ahmed ১৭ জানুয়ারি, ২০২১, ২:১০ এএম says : 0
ভোটের হিসাব দেখেই বুঝা যায় নির্বাচন সুষ্ঠ হয় নাই।
Total Reply(0)
Rahman Asabur ১৭ জানুয়ারি, ২০২১, ২:১২ এএম says : 0
আওয়ামলীগ ক্ষমতায় থাকাকালীন অন্যকোন দলের লোক নির্বাচিত হবে এটা কল্পনা করা মানে বোকার সর্গে বাস করা।
Total Reply(0)
Sujana Mihir Soma ১৭ জানুয়ারি, ২০২১, ২:১৩ এএম says : 0
তাহলে কি আওয়ামীলীগ পতনের শুরুর দিকে এগুচ্ছে
Total Reply(0)
Towhid Chowdhury ১৭ জানুয়ারি, ২০২১, ২:১৯ এএম says : 0
নির্বাচনের মেরুদন্ড ভেঙ্গে গেছে
Total Reply(0)
মোঃ আশরাফুল হক ১৭ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:৩৩ পিএম says : 0
বর্তমান নির্বাচন কমিশনের অধীনে সুষ্ঠুনির্বাচন চাওয়া আর বাছুর বিহীন বলদের কাছে দুধ যাওয়া সমান কথা যাই হোক নির্বাচন খবর আর ভালো লাগেনা নির্বাচনের খবর বাদ দিয়ে সাংবাদিকদের অনুরোধ করবো আপনারা অন্য খবর ছাপা হোক ধন্যবাদ
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন