ঢাকা শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩ আশ্বিন ১৪২৭, ২৯ মুহাররম ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

একনেকে ২৮০৫ কোটি টাকার পাঁচ প্রকল্প অনুমোদন

প্রকাশের সময় : ৩১ আগস্ট, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা : দুই হাজার ৮০৫ কোটি টাকার পাঁচটি উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। এর মধ্যে দেশজ উৎস থেকে দেওয়া হবে এক হাজার ৯৩২ কোটি টাকা। আর বিদেশি সহায়তা হিসেবে পাওয়া যাবে ৮৭৩ কোটি টাকা।
গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের পরিকল্পনা কমিশনের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত একনেক সভায় এ সব প্রকল্প অনুমোদন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা। একনেকে অনুমোদিত প্রকল্পগুলো হলোÑএক হাজার ১৬৩ কোটি টাকার চট্টগ্রাম জেলার মিরসরাই বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল (বেজা) বন্যা নিয়ন্ত্রণ, সড়ক ও বেড়িবাঁধ প্রতিরক্ষা এবং নিষ্কাশন; ৭১৭ কোটি টাকার জামালপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল এবং জামালপুর নার্সিং কলেজ স্থাপন; ১২৭ কোটি টাকার পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) কর্মকর্তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং তদন্তসহায়ক যন্ত্রপাতি ক্রয়; ৫৮১ কোটি টাকার বিআরটিসির জন্য দ্বিতল, একতলা এসি ও নন-এসি বাস সংগ্রহ এবং বিআরটিসির জন্য ট্রাক সংগ্রহ প্রকল্প।
সভাশেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সাংবাদিকদের প্রকল্পগুলো সম্পর্কে অবহিত করেন। তিনি বলেন, ভারতীয় লাইন অব ক্রেডিটের (এলওসি) আওতায় বিআরটিসির জন্য বাস-ট্রাক কেনা হচ্ছে। বিআরটিসির জন্য দ্বিতল, একতলা এসি ও ননএসি বাস কেনার জন্য ৫৮০ কোটি ৮৭ লাখ টাকার একটি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এই প্রকল্পের ৪৩৪ কোটি ৩২ লাখ টাকা ভারতীয় ঋণ (ইন্ডিয়ান লাইন অব ক্রেডিট) থেকে পাওয়া যাবে। বাকি ১৪৬ কোটি ৫৫ লাখ টাকা সরকারি তহবিল থেকে যোগান আসবে।
তিনি জানান, প্রকল্পের আওতায় ৩০০টি ডাবল ডেকার বাস, ১০০ সিঙ্গেল ডেকার এসি সিটি বাস, ১০০ সিঙ্গেল ডেকার এসি ইন্টারসিটি এবং ১০০টি সিঙ্গেল ডেকার ননএসি বাস কেনা হবে।
২১৭ কোটি ৩৫ লাখ টাকা ব্যয়ে বিআরটিসির ৫০০ ট্রাক কেনা প্রকল্প সম্পর্কে মুস্তফা কামাল বলেন, এই প্রকল্পের আওতায় ১৫ টন মালামাল ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন ৩৫০ এবং ১০ টন মালামাল ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন ১৫০টি ট্রাক কেনা হবে। প্রকল্প ব্যয়ের মধ্যে ভারতীয় ঋণ ১৫৮ কোটি ৪০ লাখ এবং সরকারি তহবিল থেকে পাওয়া যাবে ৫৮ কোটি ৯৫ লাখ টাকা।
তিনি জানান, বিআরটিসির যেসব বাস ও ট্রাক নষ্ট হয়ে গেছে, সেগুলো দ্রুত নিলামের মাধ্যমে বিক্রি করে প্রাপ্ত অর্থ রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এ জন্য একটি কমিটি গঠন করার কথাও বলেন তিনি। এছাড়া বাংলাদেশ ডাক বিভাগের জন্য কাভার্ড ভ্যান হিসেবে কয়েকটি ট্রাক আমদানি করারও নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, বিআরটিসির জন্য যে বাসগুলো কেনা হবে, এগুলো রাজধানীবাসীর যাতায়াতের জন্য রাস্তায় চলাচল করবে। আর ট্রাকগুলো সরকারের বিভিন্ন দফতর বা সংস্থার কাজে ব্যবহৃত হবে।
মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরির সফর নিয়ে একনেক বৈঠকে কোনো আলোচনা হয়েছে কিনা, এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সফরকালে বাংলাদেশ ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর বিষয়ে জন কেরির আন্তরিক আগ্রহ সবার মন ছুঁয়ে গেছে। তার সফরের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক নতুন এক উচ্চতায় পৌঁছাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন