ঢাকা, সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১১ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৯ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

চট্টগ্রামে এবিটির সদস্য সন্দেহে চবি ছাত্রসহ গ্রেফতার ২

প্রকাশের সময় : ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

চট্টগ্রাম ব্যুরো : নগরীর বাকলিয়া থেকে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের (এবিটি) সদস্য সন্দেহে দুই যুবককে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। আটকদের একজন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) আইনের ছাত্র। গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া) আনোয়ার হোসেন বলেন, বুধবার দুপুরে বেশ কিছু ইসলামী বইসহ তাদের আটক করা হয়। তাদের মধ্যে নিজাম উদ্দিন (২৫) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের স্নাতকোত্তর (এলএলএম) পর্বের ছাত্র; অন্যজনের নাম রোকন উদ্দিন (২৪)।
গতকাল (বৃহস্পতিবার) এক সংবাদ সম্মেলনে নগর গোয়েন্দা পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) পরিতোষ ঘোষ জানান, বুধবার দুপুরে তাদের কে বি আমান আলী সড়কের একটি মেস থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি বলেন, সাতকানিয়া উপজেলার সোনাকানিয়া এলাকার আহমদ কবিরের ছেলে নিজাম চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এলএলবি পাস করে এলএলএম পড়ছেন।
নিজাম সাতকানিয়া কলেজে পড়ার সময় থেকেই ছাত্রশিবিরের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত দাবি করে পুলিশের এ কর্মকর্তা বলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহ আমানত হলে তিনি শিবিরের নিয়ন্ত্রিত সিটগুলোয় থাকতেন। গ্রেপ্তার অন্য যুবক রোকন বাঁশখালী উপজেলার বানিয়ারদিঘীর পশ্চিমপাড় বৈলগাঁও গ্রামের জামাল উদ্দিনের ছেলে বলে জানান তিনি। রোকন পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত লেখাপড়া করলেও ইন্টারনেটে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সম্পর্কে যথেষ্ট ধারণা রাখেন এবং তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেই নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ রাখতেন বলে জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।
পরিতোষ ঘোষ বলেন, দীর্ঘদিন ধরে চট্টগ্রামে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের একটি দল সক্রিয়ভাবে কাজ করছে। তারা ধ্বংসাত্মক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য বিভিন্ন সময়ে বৈঠক করে। তারা নিজেদের মধ্যে বিভিন্ন বই, মেমোরি কার্ড ও প্রশিক্ষণের জিনিসপত্র বিনিময় করে। আগে বিভিন্ন সময় অভিযানে যাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে, তাদের সঙ্গে এ দু’জনের যোগাযোগ ছিল। গত জুলাই মাসে সীতাকু- থেকে গ্রেপ্তার আনসারুল্লাহ সদস্য মুসআব ইবনে উমায়রসহ সংগঠনের বিভিন্নজনের সঙ্গেও তাদের সম্পৃক্ততা আছে বলে জানান পরিতোষ ঘোষ।
নিজামকে গত রোববার গ্রেপ্তার করা হয় বলে বুধবার চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়েছিল তার পরিবারের পক্ষ থেকে। মঙ্গলবারও পরিবারের পক্ষ থেকে নিজাম উদ্দিনকে তুলে নেয়ার বিষয়টি সাংবাদিকদের জানায় তার ছোট ভাই। এ বিষয়ে পুলিশ কর্মকর্তা পরিতোষ ঘোষ বলেন, নিজাম উদ্দিনের বিষয়টি পরিবার জানত বলেই ঘটনা ভিন্ন খাতে নিতে সংবাদ সম্মেলন করে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন