শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০৭ কার্তিক ১৪২৮, ১৫ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

প্রতারণার শিকার বিকাশ গ্রাহকরা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ মে, ২০২১, ৮:১২ পিএম

মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস (এমএফএস) বিকাশের গ্রাহকরা প্রতারণার শিকার হচ্ছেন। বাংলাদেশ ব্যাংকের আইন অনুযায়ী ক্যাশআউট চার্জ ১৮ টাকা ৫০ পয়সা হলেও এজেন্টরা গ্রাহকদের কাছ থেকে আদায় করছে ২০ টাকা। প্রতিদিনই কয়েক লাখ গ্রাহকদের কাছ থেকে এভাবে প্রতি হাজারে ১ টাকা ৫০ পয়সা করে বেশি আদায় করায় কোটি কোটি টাকা কার হাতে যাচ্ছে সেই প্রশ্ন তুলেছেন এই খাতের নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠানগুলো।

শনিবার টেলিকম রিপোর্টার্স নেটওয়ার্ক বাংলাদেশ টিআরএনবি আয়োজিত‘ প্রতিযোগিতা ও অংশীদারিত্বে প্রেক্ষাপট : প্রসঙ্গ এমএফএস সেবা’ এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় এসব কথা বলা হয়।

এমএফএস সেবায় গ্রাহকের সাথে প্রতারণার বিষয়টি তুলে ধরে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর আবুল কাশেম বলেন, বলা হচ্ছে বিকাশ লস করছে। আসলে সেটি হয়তো সত্য নয়, হয়তো হিসাবে গড়মিল আছে। নাহলে আলিবাবা, ব্র্যাক ব্যাংক বিনিয়োগ করতো না। চার্জের বিষয়ে তিনি বলেন, বিকাশের ১৮ টাকা ৫০ পয়সার জায়গায় ২০ টাকা নেয়া হচ্ছে। এটা বন্ধ করতে বিকাশ ও বাংলাদেশ ব্যাংক কি কোন উদ্যোগ নিতে পারে না। এটা গ্রাহকের সাথে সুস্পষ্ট প্রতারণা ও চুরি। প্রত্যেক দিন কত পরিমাণ গ্রাহক এই প্রক্রিয়ায় ঠকছে? বিকাশের মতো একটা লাইসেন্সধারী প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে এজেন্টরা এই ক্রাইম করছে। অন্যদিকে নগদের কথা তুলে ধরে আবুল কাশেম বলেন, নগদ বলছে ক্যাশআউট চার্জ ৯ টাকা ৯৯ পয়সা। এক পয়সা কি ফেরত দেয়া হয়? এটাও এক ধরণের প্রতারণা বা অতিচালাকি। সাধারণ মানুষের সাথে চিটিং।

সেন্ট মানিতে টাকা কাটার বিষয়ে আবুল কাশেম বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক বলছে সেন্ট মানিতে টাকা কাটা যাবে না। একজন (নগদ) শুনলেও আরেকজন (বিকাশ) সেটি শুনছে না। এটার বিহিত হওয়া দরকার।

টিআরএনবির সভাপতি রাশেদ মেহেদীর সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিটিআরসির চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর শিকদার, প্রতিযোগিতা কমিশনের চেয়ারম্যান মফিজুল ইসলাম, বাংলাদেশ ব্যাংকের উপ-মহাব্যবস্থাপক বদিউজ্জামান দিদার, এসেসিয়েশন অব মোবাইল টেলিকম অপারেটরস বাংলাদেশ (এমটব) এর সভাপতি এবং রবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ, বিকাশের চীফ কমার্শিয়াল অফিসার মিজানুর রশিদ, রকেটের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল কাশেম মো. শিরিন, নগদের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর আহমেদ মিশুক, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্টের (বিআইবিএম) সহযোগী অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান আলম ও সুপ্রীম কোর্টের ব্যারিস্টার ইফতেখার জোনায়েদ। সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন টিআরএনবির সাধারণ সম্পাদক সমীর কুমার দে।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, মানুষ জীবনযাত্রা সহজ করার জন্য সহজ জিনিস গ্রহণ করে তার উদাহরণ এমএফএস। ভবিষ্যতে ব্যাংকে ব্যাংক কর্মকর্তারা কাস্টমারের চেহারা দেখবেন কিনা সন্দেহ আছে। খরচের বিষয়ে তিনি বলেন, মুক্তবাজার অর্থনীতিতে কোন কিছু নির্ধারণ করে দেয়া মানে তার বিকাশে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করছেন। যে কোম্পানি চার্জ নির্ধারণ করে তা তার প্রতিষ্ঠানের ব্যবসার সক্ষমতার কথা বিবেচনা করে। কেউ সর্বোচ্চ চার্জ করেও টিকে থাকে আবার কেউ সর্বনিম্ন করেও হারিয়ে যায়। আমি সর্বোচ্চ নির্ধারণ করার পক্ষে সর্বনিম্নের পক্ষে না। কারণ সর্বনিম্ন করে দিলে জনগণকে সেটা বাধ্য হয়ে দিতে হয়। মিনিমাম লিমিট দেয়া না থাহলে তালে কোন না কোন প্রতিষ্ঠান তার নিচেও সেবা দিতে পারে। তাহলে জনগণ উপকৃত হবে। আর গ্রাহকরা খরচের অভিযোগ করে না কারণ আগে যে কাজ যে টাকা খরচ করে করতো সেটার সাথে তুলনা করে দেখছে এমএফএসে সেটি কম হচ্ছে। তবে সমস্যা, সঙ্কট আছে। এজন্য কর্তৃপক্ষ আছে। যাদের যা দায়িত্ব পালন করা দরকার সেটা করে মানুষের কষ্ট দুরবস্থার জায়গাগুলো চিহ্নিত করতে হবে। আমরা ডিজিটালাইজেশন আমাদের প্রয়োজন অনুসারে ব্যবহার করবো।

মন্ত্রী বলেন, মুক্তবাজার অর্থনীতিতে আমরা বিশ্বাস করি তবে কেউ যাতে মনোপলি করতে না পারে সেটি লক্ষ্য রাখছি। যাতে এককভাবে কেউ বাজার নিয়ন্ত্রণ করতে না পারে। তবে প্রতিযোগিতা না থাকলে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হবে মানুষ। প্রতিযোগিতা অবশ্যই বাঁচিয়ে রাখবো মনোপলি হতে দিবো না।

শ্যাম সুন্দর শিকদার বলেন, বিকাশের ক্যাশ আউটে ১৮ টাকা ৫০ পয়সার জায়গায় ২০ টাকা নেয়া হচ্ছে। এভাবে প্রতিদিন কোটি কোটি টাকা চুরি, প্রতারণা হচ্ছে। কার কাছে এটা চলে যাচ্ছে। অপারেটররা আয়-ব্যয়ের হিসেব দিচ্ছে না। চার্জের বিষয়ে তিনি বলেন, চার্জ কমালে মার্কেট নষ্ট হবে তা ঠিক নয়। মার্কেট পজিশন গাইড করবে অপারেটরদের কখন কোন জায়গায় রেট দাঁড়াবে। কস্ট কমানোর সুযোগ আছে। বিকাশও জানিয়েছে তাদের আপত্তি নেই। সরকার বিবেচনা করে করতে পারে।বিটিআরসির কিছু দায়ের কথা বলা হয়েছে। বিটিআরসির কিছু দায় আছে। বিটিআরসি দায়িত্ব যথাসময়ে জনস্বার্থে পালন করবে।

বদিউজ্জামান দিদার বলেন, কেউ নির্ধারিত রেটের চেয়ে বেশি নিতে পারবে না। আগে ২ শতাংশ নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছিল। অনেকগুলো পক্ষ এতে জড়িত। এজেন্ট, ডিস্ট্রিবিউটর, এমএনও, অপারেটর, সরকার সবার খরচটি মিলে এটি করা হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (40)
Mohammad Fazle Elahi ৮ মে, ২০২১, ৮:২১ পিএম says : 0
শুধু কি তাই? বিকাশ এপের মাধ্যমে টাকা পাঠাতে আগে খরচ নিত 5টাকা। এখন নেয় 10 টাকা। তার মানে আপনি 1000 টাকা পাঠাতে হলে 1000+20+10=1030/- শেষ। এই প্রতারণার শেষ কোথায়? বিকাশ কেন এধরণের প্রতারণা করে যাচ্ছে গ্রাহকদের সাথে?
Total Reply(1)
Mehedi Hasan ১০ মে, ২০২১, ২:০৫ এএম says : 0
Apni cashout koren apps cara 18.5 tk ar apps dia korle 17.5 tk katbe.1 poysao beshi khoroch hobe nah.apni nah bujhe dokandarer number e send money korle sob lav dokandarer. Companir bash
আব্দুল হক ৯ মে, ২০২১, ৪:৩৭ এএম says : 0
বিকাশ কে নগদের মত ক্যাশ আউট চার্জ করা যায় না ৯.৯৯ পতি হাজারে নগদ যদি কমে পারে বিকাশ কেন পারবেনা
Total Reply(0)
Moshiur Rahman ৯ মে, ২০২১, ১০:৪৩ এএম says : 0
তথ্যগুলো সঠিক নয়।
Total Reply(0)
Ghoori islam ৯ মে, ২০২১, ৮:৪১ পিএম says : 0
এদিকে বিকাশ এর ম্যানেজাররা জোরপূর্বক সব মার্চেন্ট কে একটি বিদেশি কোম্পানির দিকে পাঠিয়ে দিচ্ছে তাদের মাধ্যমে পেমেন্ট কালেক্ট করার জন্য। সেই নামে দেশী কাজে বিদেশী কোম্পানি কোটি কোটি টাকা হুন্ডি করে মানী লন্ডারিং করছে। এই বিকাশের ধ্বংস নগদেই অনিবার্য।
Total Reply(0)
Anis ৯ মে, ২০২১, ২:৩০ পিএম says : 0
আমার বিকাশ পিন লোক হয়ে আছে আমি কিবাবে ঠুকবো
Total Reply(0)
Md.shohag hossen ৯ মে, ২০২১, ২:০১ পিএম says : 0
আমি 2 তারিখে ৫২২টাকা কারেন্ট বিল দিই কিন্তু অতিরিক্ত আরো ৫৮০ টাকা কেটে নেই। কিন্তু বিকাশ কেয়ারে ফোন দিই বলে ২ দিনের মধ্যে টাকা একাউন্টে চলে যাবে কিন্তু আজ ৬ দিন হয়ে গেছে এখন ও টাকা পেলাম না।
Total Reply(0)
Babu ৯ মে, ২০২১, ২:১০ পিএম says : 0
বিকাশ এ ব্যপারে বেশি চতুরতা করছে।এরা কিছু কিছু এন জি ও প্রতিষ্ঠানের সাথে হাজারে ১০ টাকা চুক্তিতে একজন গ্রাহককে ঋনের বোঝা কমাতে গিয়ে উল্টো তাদের ঋনে জর্জরিত করে ফেলছে। এবং হাতিয়ে নিচ্ছে কোটি কোটি টাকা।এজন্য এম এফ এস সার্ভিস বন্ধ করা হোক
Total Reply(0)
MD SHOIKOT HOSSEN ৯ মে, ২০২১, ৮:০১ এএম says : 0
বিকাশ কতৃপক্ষ নিয়ম করলেও মানা হচ্ছেনা নিয়মনীতির তোয়াক্কা করছেনা।
Total Reply(0)
মো.রাকিবুল হাসান ৯ মে, ২০২১, ৯:২৮ এএম says : 0
প্রিয় বিকাশ কোম্পানি দয়া করে সেন্ড মানি চার্জ কমান।আর না হলে প্রিয় নাম্বার ছাড়া ৫০০০০/- টাকা পর্জন্ত সেন্ড মানি ফ্রী করুন
Total Reply(0)
রাকিব ৯ মে, ২০২১, ৯:৪৪ এএম says : 0
আপনাদের রিপোর্টে ভুল আছে প্রথমেই। ১০০০ টাকার ১৮.৫০ চার্জ কি এজেন্ট নেয় আপনি লিখছেন ২০ টাকাও নেয়া হচ্ছে। গ্রাহক ক্যাশ আউট করার সময় অটোমেটিক ১৮.৫০ পয়সা কেটে নেয় কম্পানি। আপনি লেখছেন এজেন্ট নিচ্ছে।সুতরাং ভাল করে জেনে রিপোর্ট করবেন
Total Reply(0)
SORIFUL I.S. ৯ মে, ২০২১, ৫:০৫ পিএম says : 0
আমি আজ ৪৭০০০ টাকা ক্যাশ আউট করলাম অথচ তারা ৪৫০০০ টাকা দিয়ে বলল বাকীটা ক্যাশ আউট চার্জ । © জাতীয় কপিরাইট আইন দ্বারা নিবন্ধিত । কপিরাইট করার আগে অবশ্যই আমার মেইলে ১১ টাকা রিচার্জ করে দিবেন । নতুবা ১২১ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ভোগ করতে হতে পারে ।
Total Reply(1)
Mehedi Hasan ১০ মে, ২০২১, ২:০৮ এএম says : 0
Cashout charge dokandar kete rakhle bujhben jaliati. Cashout charge apner blance theke katbe. Apni j poriman cashout korben oi poriman takai dokandar dite baddho. Jodi na nayainer asroy nen.
Kawsar ৯ মে, ২০২১, ১০:৫৪ পিএম says : 0
How an agent doing this plz explain. I am also an agent. We don't take any additional charges. If a customer come to me and said to send money with Charges he/she give me tk.1020 then I give 1020 to desired number. So additional tk will remain to desired bkash wallet not in agent account.
Total Reply(0)
Sumon Ahmed ১০ মে, ২০২১, ১২:০৬ এএম says : 0
প্রথম কথা হচ্ছে একজন গ্রাহক এজেন্ট পয়েন্টে কেন যায়,ক্যাশ ইন অথবা ক্যাশ আউট করার জন্য। এজেন্টের কাজ ক্যাশ ইন করা, এবং ক্যাশ আউট নেওয়া,ধরুন একজন গ্রাহক এজেন্টকে ১০২০ টাকা ক্যাশ ইন করার জন্য দিল এখন দেখোন আপনাকে সে আপনাাকে ১০২০ টাকায় কত টাকা লোড দিল ১০২০ না কি ১০১৮.৫ টাকা। ২য়ত এক জন গ্রাহক ক্যাশ আউটের সময় ১০০০ টাকা ক্যাশ আউট করলে গ্রাহকের মোবাইল থেকে সয়ংক্রিয় ভাবে ১৮.৫/১৭.৫ টাকা কেটে নেওয়া হয়।
Total Reply(0)
আফিফা বিবি ১০ মে, ২০২১, ১১:১৬ এএম says : 0
বিকাশ হ্যাকাররা আমার কাছ থেকে 35000টাকা নিয়ে গেছে এখনো এর কোন প্রতিকার পাইনি
Total Reply(0)
মোঃ সিরাজুল ইসলাম ১০ মে, ২০২১, ৪:০৪ পিএম says : 0
আমি একজন বিকাশের এজেন্ট। উপরে যে কথাটি বলা হয়েছে তাতে আমার আতে ঘা লেগেছে কারন, কারন একজন এজেন্ট কখনো বলেনা যে, ক্যাশ আউটের পর হাতে ১.৫০ পয়শা দেন, আপনি যত টাকা ক্যাশ আউট করবেন ঠিক তত টাকাই পাবেন, এজেন্ট প্রতারক না । প্রতারক নীতি নির্ধারকরা। ১০০০( এক হাজারে ক্যাশ আউট চার্জ ১৮.৫০ পয়সা এটা মানার মত নয়। এটা অমানবিক দেশের জনগনকে ঠকানো হচ্ছে. আমার মনে হয় ক্যাশ আউট চার্জ হাজারে ১০ টাকা হলেই যথেস্ট।
Total Reply(0)
Eusuf ১০ মে, ২০২১, ৮:৪১ এএম says : 0
No
Total Reply(0)
সেলিম ১১ মে, ২০২১, ১২:৪৪ এএম says : 0
আমি এজেন্ট সিরাজুল ভাই এর সাথে একমত ।
Total Reply(0)
আমার ১৫০০০ টাকা ফেরত চাই।
Total Reply(0)
Md.Rasul Sheikh ১২ মে, ২০২১, ১১:১৫ এএম says : 0
আমার মোনে ১৮.৫০ পয়সা একটা জালিয়াতি। কারন বাংলাদেশে. ৫০ টাকা তো দুরের কথা,১ টাকা খুঁজে পাওয়া যায় না। তাহলে গ্রাহককে কেমনে ১.৫০টাকা ফেরত দিবে।এমন একটা সংখ্যা নির্ধারন করা হোক( ১০,১২,১৪,১৫,১৬,) তাতে গ্রাহক টাকা হারাবে না, .৫০ টাকা বাদ দিয়ে দেন
Total Reply(0)
কবির ১২ মে, ২০২১, ৪:১৬ এএম says : 0
সাধারণের কাছে আমার অনুরোধ আপনারা আমার মতো বিকাশ ত্যাগ করে "নগদ" যান। তাহলে ৮.৫০ বাঁচবে প্রতি হাজারে।
Total Reply(0)
মোঃ রাশেদ ১২ মে, ২০২১, ৮:৪২ এএম says : 0
সেন্ড মানি তে কোন টাকা কাটার কথা না অথচ তারা দেদারছে টাকা কাটছে ফাইজলামির একটা লিমিট থাকা দরকার এদের বিচারের সম্মুখীন করা উচিত সাধারণ মানুষ বিকাশের মাধ্যমে লেনদেন করতে গিয়ে বিভিন্নভাবে ক্ষতিগ্রস্ত প্রতারক চক্রের মাধ্যমে অনেকে ক্ষতিগ্রস্ত এর প্রতিকার হিসেবে কাস্টমার কেয়ারে ফোন দিয়ে সাহায্য সহযোগিতার কথা বললে তখন তারা প্রশাসনের দিকে ইঙ্গিত করে সেখানে যান আসলে তারা ইচ্ছা করলে টাকা কোথায় গিয়েছে সেখান থেকে সেখান থেকে তারা চাইলে যেকোনো সময় সে টাকাটা কমপ্লেন কৃত নাম্বারে ফেরত দিতে পারে অথচ তারা এরকম কোনো পদক্ষেপই নেয় না কারণ কি? তারা কি প্রতারকদের সহযোগিতা করতেছে বলা যেতে পারে?
Total Reply(0)
Md. Suman Khan ১৩ মে, ২০২১, ১১:২০ এএম says : 0
আমি গত ১৬/০৯/২০২০ তারিখে একটি ভুল নম্বরে টাকা পাঠিয়ে ছি। বিকাশে অভিযোগ করার পারে উক্ত একাউন্ট টি ব্লক করা হয়েছে। আমাকে বলা হয়েছে ২ কার্জ দিবসের মধ্যে আমার সমস্যা সমাধান করে আমাকে ফোন করা হবে। কিন্তু ৭ মাস হয়ে গেলে এখনো টাকা ফেরত পাইনি। হেল্প লাইনে ফোন দিলে বার বার একই কথা "আপনার সমস্যা টি অতি দ্রুত সমাধান হয়ে যাবে।"
Total Reply(0)
Abdus Salam ১২ মে, ২০২১, ৮:৪৬ পিএম says : 0
সবাই নগদ চালু করুন।
Total Reply(0)
Nazmul Ahad ১৩ মে, ২০২১, ৮:৪৯ এএম says : 0
বিকাশ ত্যাগ করে নগদে চলে এসেছি। ঝামেলা চুকে গেছে।
Total Reply(0)
MD.MOHIUDDIN MIA ১৩ মে, ২০২১, ৮:৩৭ এএম says : 0
অনেকের সুন্দর সুন্দর কমেন্ট করেছেন বিকাশের প্রতারণা উপস্থাপন করেছেন এ বিষয়ে আমি আর কোনো কথা বলতে চাই না তবে নগদ এর ক্ষেত্রে বিশেষ করে ক্যাশ আউট এর ক্ষেত্রে নগদে 9 টাকা 99 পয়সা পরিবর্তে 12 টাকা প্রদান করতে হয় এই বিষয়টা আমি কোনোভাবেই বুঝতে পারিনা আসলে কি বেশি নিচ্ছে না কোথাও গেছে।
Total Reply(0)
খোলায়েদ আহমেদ ১৩ মে, ২০২১, ৫:৩৭ পিএম says : 0
প্রতিযোগিতার এই বাজারে উপায় আগমন করলো।তাদের কর্মপন্থা কেমন হবে, আল্লাহ্ মালুম। তারপর চাইবো, বিকাশের এই জুলুমের বিরুদ্ধে শক্ত প্রতিরোধ গড়ে তুলুক ,উপায় ।বেষ্ট অফ লাক।
Total Reply(0)
Md.Masudur Rahman ১২ মে, ২০২১, ৪:২২ পিএম says : 0
বিকাশ সেন্ড মানিতে ৫ টাকার পরিবর্তে ১০ টাকা কাটছে কেন?
Total Reply(0)
MD SOLAIMAN ১৩ মে, ২০২১, ২:৩৯ পিএম says : 0
বিকাশ একটা প্রতারক কিন্তু বিকল্প উৎসের অবস্থান দূর্বল হওয়ার কারণে বিকাশে লেনদেন করতে মানুষ বাধ্য হচ্ছে। বিকাশের এজেন্ট নিতে সব কাগজপত্র জমা দিলেও ঘুষ লাগে 3 হাজার টাকা! ভুল নাম্বারে টাকা গেলে বিকাশ ফেরত দেয় না। আমার ছোট ভাইয়ের বিকাশে সেন্ড মানি করার সময়ে 1টা ডিজিট ভুল হয়ে টাকা অন্য নাম্বারে চলে যায়। যার নাম্বারে গেছে, উনি পিন জানেন না, এমনকি সিম ও উনার নামে না। উনি টাকা ফেরত দিতে চাচ্ছে কিন্তু বিকাশের হেল্পলাইনে বলার পরেও টাকা ফেরত দিচ্ছে না। সেন্ড মানি চার্জ 10টাকা। 1হাজার টাকা সেন্ড মানি করলে 10টাকা চার্জ কাটে আবার সেট টাকা এজেন্ট থেকে ক্যাশ আউট করতে 18.5 টাকা চার্জ কাটে! তাহলে 1হাজার টাকায় চার্জ হলো 28.5 টাকা। বিকাশের এজেন্ট বেশি হওয়ার কারণে তারা একচেটিয়া ব্যবসা করে যাচ্ছে এবং প্রতারণা করছে, আইন মানছে না।
Total Reply(0)
Abdur Rafique ১৩ মে, ২০২১, ৯:২৫ পিএম says : 0
বিকাশ অ্যাপে আগে টাকা পাঠানোর সময় কোন টাকা লাগত না । কয়েক মাস আগে থেকে যে কোন পরিমাণ টাকা পাঠানোর সময় প্রেরকের নিকট হতে ৫ টাকা কাটতে শুরু করে। এখন যে কোন পরিমাণ টাকা পাঠানোর সময় প্রেরকের নিকট হতে ৫ টাকা হতে বাড়িয়ে ১০ টাকা কাটতে শুরু করে। পক্ষান্তরে নগদ অ্যাপে টাকা পাঠাতে কোন পয়সা/টাকা কাটে না। বরং নগদ অ্যাপে ১৫ টাকা হারে কমিশন নেয়। আসুন আমরা বিকাশ অ্যাপ ব্যবহার বন্ধ করি । নগদ অ্যাপে টাকা পাঠাই।
Total Reply(0)
রাসেল ১৩ মে, ২০২১, ৪:৩০ পিএম says : 0
বিকাশ একটা ফালতু! আমার নাম্বারে ভুল বশত টাকা আসছে এমন অভিযোগে আমার একাউন্ট বন্ধ করে দেয়,যিনি অভিযোগ করেছেন সে অভিযোগ তুলে নেওয়ার ৩ মাস অতিবাহীত হওয়ার পরেও আমার একাউন্ট সচল হয়নি। আমার একাউন্টে বর্তমান ২০,০০০৳ আছে আর যিনি ভুল বশত অভিযোগ করছেন তিনি আমার পরিচিত আমার মোবাইল বন্ধ পেয়ে ঘাবরে গিয়ে অভিযোগ করে বশে এবং পরে তা উঠিয়ে নেয়। আমার কথা হচ্ছে সিকিউরিটি রিজন থাকলে তারা আমাকে স্ব-শরিরে তাদের যেকোন এন্ডে ডাকতে পারে অথবা যিনি অভিযোগ করেছেন তার সাথে যোগাযোগ করতে পারে তা না করে আমার টাকাগুলাসহ একাউন্ট বন্ধ রাখছে। উল্লেখ্য নিকটস্থ কাষ্টমার সেন্টারে ৫ বার এবং কল সেন্টারে অসংখ্য বার কল করেও সমাধা পাইনি। এখন আমার করনিও কি? ধিক্কার জানাই এমন ফালতু সিষ্টেমের।
Total Reply(0)
নাঈম খাঁ ন ১৩ মে, ২০২১, ১২:১৪ পিএম says : 0
আসসালামু আলাইকুম সবাইকে ঈদ মোবারক আমিও একজন বিকাশ নগদ রকেটের এজেন্ট আমারও মনে হয় বিকাশ চার্জ টা একটু বেশি নিচ্ছে 15 টাকা ক্যাশ আউট চার্জ নিলে গ্রাহকদের জন্য ভাল হত আর সেন্ড মানির কথা আপনারা বলছেন আমরা *২৪৭# ডায়াল করে ব্যালেন্স চেক করি যত বারই বিকাশের থেকে মোবাইল অপারেটর কোম্পানিগুলো একটা চার্জ কেটে নেই তাই আমরা যতবার সেন্ড মানি করব ততোবারই তাদেরকে একটা চার্জ দিতে হয় বিকাশের তো উনাদের পকেট থেকে দিবেনা সেটা আমাদেরই দিতে হবে বিকাশ চাইলে পারে আমাদের একটা রুলস করে দিতে ১০০০ যেমন.২৫/৫০ পয়সা করে চার্জ দিতে হবে আর নগদের কথা কি বলব পুরাই চিটিং অ্যাড দেয় 9 টাকা 99 পয়সা ক্যাশ আউট চার্জ কিন্তু কিভাবে কাটবে সেটা কিন্তু উনারা বলে না এবং এটার পরে ভ্যাট কাটা হয় তারা কিন্তু বলে না এবং *১৬৭# ডায়াল ক্যাশ আউট করলে ১৪.৯৯ পয়সা কাটে ওনারা তা বলেনা গ্রাহকরা আমাদের দোকানদারদের সঙ্গে ঝামেলা করে গ্রাহকদের সঙ্গে চিটিং করছে আর রকেটের কথা কি বলব ওনারা সবসময় রকেটের গতিতেই চলে প্রতিদিনই ওনাদের সার্ভার ডাউন
Total Reply(0)
Ambu ১৩ মে, ২০২১, ১১:০৮ পিএম says : 0
বিকাশের চেয়ে জাল-জালিয়াতি এবং সুচতুর ও ধুর্ত কোম্পানী আর নেই। মানুষের মাঝে মিছরির ছুরি হয়ে মানুষের পকেটের টাকা হাতাইয়া নেয়। নগদে যদি 9.99 টাকায় লেনদেন করতে পারে বিকাশের কি এমন গুনাগুন যা তারা পারে না। সবাই যদি বিকাশের লেনদেন হতে সরে আসে তবেইতো আক্কেল হবে।
Total Reply(0)
Toriqul Sabuj ১৩ মে, ২০২১, ১১:১১ পিএম says : 0
নগদেই কি চিটিং করা হচ্ছে না ৯.৯৯ টাকার কথা বলে আবার ভ্যাট যোগ করে কেনই বা ১৪.৯৯ টাকা কাটা হচ্চে বলবেন কি? দেশের শতকরা ৯৯% লোক নরমাল ফোন ইউজ করে সেখানে অo্যাপস এর কথা কেন বলবে এটাও জনগণের সাথে কারচুপি নয়কি?
Total Reply(0)
khaled ১৪ মে, ২০২১, ১১:৪৪ এএম says : 0
bKash এর চার্জ খুবই বেশি
Total Reply(0)
Goljar Hossain ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১:২৩ পিএম says : 0
মোবাইল ব্যাংকিং ক্যাশ আউট চার্জ সব কোম্পানির একই হওয়া উচিত ।
Total Reply(0)
চয়ন ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৮:৪০ এএম says : 0
বিকাশে এখন ধাপ্পাবাজী বেড়ে গেছে
Total Reply(0)
Farhan ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১:৫১ পিএম says : 0
বিকাস যদি লস করে তা হইলে যে একবার ভেবে দেখেননা যে সব agent লাক লাক টাকা কেশ ইনভেস্ট করে কত কমিশন পায় তারা কি তাদের নেজ্জ পাওনা পাচ্ছে কি না?
Total Reply(0)
UMOR ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ২:১৯ পিএম says : 0
আমার বিকাশ থেকে প্রতি 15দিন পরপর 30 টাকা করে কেটে নেয়
Total Reply(0)
Rana ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৭:২০ এএম says : 0
এই রিপোর্টারের প্রধান উদ্দেশ্য নগদের দালালি।তা না হলে না জেনে বুঝে এভাবে ভুল রিপোর্ট করতো না।আর নিজের গা বাচাতে ও নগদের প্রচার করতে কৌশলে নগদের ক্যাশ আউট কম তা(৯.৯৯) দেখিয়ে ১ পয়সার ভুল ধরেছে।
Total Reply(0)
Didar Hossain Chowdhury ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৫:৫২ পিএম says : 0
এতে এজেন্টদের দোষ দেওয়া মোটেই ঠিক নয়। এজেন্টরা কাষ্টমার যাহা টাকা দেয় তাই বিকাশ করে। 1 পয়সাও অতিরিক্ত নেওয়ার সুযোগ থাকে না।
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন