ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ২২ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

চুয়াডাঙ্গায় স্কুল ছাত্র অপহরণ ও হত্যা মামলার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

প্রকাশের সময় : ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

দামুড়হুদা উপজেলা সংবাদদাতা : চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার গোবিন্দহুদা গ্রামে র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে মারা গেছে চুয়াডাঙ্গার আলোকদিয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড সদস্য রাকিবুল ইসলাম রাকিব। শনিবার দিনগত রাত ২টায় এ ক্রসফায়ারের ঘটনা ঘটে। রাকিব দামুড়হুদার স্কুলছাত্র মাহফুজ আলম সজীব অপহরণ ও হত্যা মামলার প্রধান আসামি। র‌্যাব-৬’র ঝিনাইদহ ক্যাম্প কমান্ডার মেজর মনির আহমেদ জানান, শনিবার রাতে র‌্যাবের একটি টহলদল দামুড়হুদা এলাকায় নিয়মিত টহলে ছিলো। এসময় গোপনসূত্রে খবর আসে গোবিন্দহুদা গ্রামের মাঠে একদল দূর্বৃত্ত গোপন বৈঠক করছে। র‌্যাবের টহলদল সেখানে অভিযান চালালে দূর্বৃত্তরা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এসময় র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় একজনকে উদ্ধার করে দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে এলাকাবাসী মৃত ব্যক্তিকে রাকিব মেম্বর বলে সনাক্ত করে।
র‌্যাব কমান্ডার আরো জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি ওয়ান শ্যূটারগান, দুই রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।
চুয়াডাঙ্গা ভি জে. জেলা স্কুলের ৮ম শ্রেণির ছাত্র মাহফুজ আলম সজীবকে গত ২৯ জুলাই দামুড়হুদা উপজেলা কমপ্লেক্সে আয়োজিত বৃক্ষমেলা থেকে অপহরণ করে। পরে তার পরিবারের কাছে ২০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। এক পর্যায়ে সজিবকে হত্যা করে চুয়াডাঙ্গা কেদারগঞ্জ সি অ্যান্ড বি পাড়ার জেলা মৎস্য অফিসের পার্শ^বর্তী রাকিবের চার্জার লাইটের কথিত কারখানায় সেপটিক ট্যাংকে লাশ গুম করা হয়। এরপর র‌্যাব তদন্ত শুরু করে অপহরণের ৩২ দিনের মাথায় গত ৩১ আগস্ট সেপটিক ট্যাংক থেকে গলিত লাশ উদ্ধার করে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন