মঙ্গলবার, ০৩ আগস্ট ২০২১, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৩ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

অ্যাডভোকেট যুথি ও তার মেয়েকে ক্ষতিপূরণের রায়

ইত্তেহাদ এয়ারলাইন্সের হয়রানি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ জুন, ২০২১, ১২:০৮ এএম

দুই নারী যাত্রীকে হয়রানির ঘটনায় ইত্তেহাদ এয়ারলাইন্সকে ২ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ প্রদান সংক্রান্ত রায় প্রকাশিত হয়েছে। গতকাল বুধবার রায় প্রকাশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। তিনি জানান, সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথি ও তার মেয়ে তানজিন বৃষ্টিকে হয়রানির অভিযোগে তাদের প্রত্যেককে এক কোটি করে মোট দুই কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে রায় দিয়েছেন আদালত। ইত্তেহাদ এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ এ ক্ষতিপূরণ পরিশোধ করবে। রায়ের অনুলিপি পাওয়ার পরবর্তী মাস থেকে ২০ কিস্তিতে ক্ষতিপূরণ পরিশোধ করতে বলা হয়েছে। নারী যাত্রীদের সঙ্গে অধিকতর সতর্কতার সঙ্গে সম্মানজনক আচরণ করতে রায়ে ইতিহাদ এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বিচারপতি মো. আশরাফুল কামাল এবং বিচারপতি রাজিক-আল-জলিলের ডিভিশন বেঞ্চ স্বাক্ষরিত ১৯২ পৃষ্ঠার এ রায় প্রকাশিত হয়।

এখন থেকে ৯ বছর আগে বাংলাদেশী দুই নাগরিক অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথি ও তার মেয়ে তানজিন বৃষ্টিকে হয়রানির অভিযোগে এক কোটি টাকা করে ক্ষতিপূরণ দিতে ইত্তেহাদ এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষকে গত বছর ৮ অক্টোবর নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। এ বিষয়ে জারি করা রুল আংশিক মঞ্জুর করে আদালত উপরোক্ত রায় ঘোষণা করেন। রায়ে আদালত বলেন, দুজন নারীকে আবুধাবি এয়ারপোর্টে যে ধরণের হয়রানি ও নির্যাতন করা হয়েছে, তা অর্থদন্ড দিয়ে পরিমাপ করা যায় না।
আদালত ‘নেগলিজেন্স গেস টর্ট’ আইনের ভিত্তিতে ক্ষতিপূরণের রায় প্রদানের বিষয়টি উল্লেখ করেন। এ ছাড়া আদালত ইত্তেহাদ এয়ারলাইন্সকে ভবিষ্যতের জন্য সতর্ক করেন, যেন জেন্ডার বা শরীরের রং বিবেচনায় ভবিষ্যতে কোনো যাত্রীর সঙ্গে এ রকম আচরণ করা না হয়।
আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। তাকে সহায়তা করেন অ্যাডভোকেট রিপন বাড়ৈ। ইত্তেহাদের কান্ট্রি ম্যানেজারের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট আজমালুল হোসেন কিউসি ও মো. আজিজ উল্লাহ ইমন। ২০১১ সালের ২৮ জুন আবুধাবি এয়ারপোর্টে এ দুই নারীকে হয়রানি/নির্যাতন/আটকের ঘটনা ঘটে।
এরপর একই বছর ইতিহাস এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে একটি রিট পিটিশন করেন বাংলাদেশি যাত্রী তানজিন বৃষ্টি।
রিটে পররাষ্ট্র সচিব, সিভিল এভিয়েশন সচিব ও চেয়ারম্যান, এয়ারপোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, ইত্তেহাদের অপারেশন ম্যানেজার, কান্ট্রি ম্যানেজারসহ ৭ জন। রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে ওই বছরের ১৪ জুলাই হাইকোর্ট রুল জারি করেন। প্রসঙ্গত: অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথি সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক কোষাধ্যক্ষ। তিনি যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশের সহধর্মিণী।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন