ঢাকা, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

জনগণের সহযোগিতায় পুলিশ সাফল্য অর্জন করছে- ডিএমপি কমিশনার

প্রকাশের সময় : ৫ অক্টোবর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : জনগণের সম্পৃক্ততা ও সহযোগিতায় পুলিশ বাহিনী আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় সাফল্য অর্জন করছে। পুলিশের সাম্প্রতিক সব সফলতার পিছনে জনসাধারণের ভূমিকা অনেক বলে মন্তব্য করেছেন ডিএমপি কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া।
গতকাল দুপুরে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ সদর দফতরে রানার গ্রুপের পক্ষ থেকে ১০টি হিউম্যান হলার হস্তান্তরের সময় ডিএমপি কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া এ মন্তব্য করেন। অন্যদিকে গতকাল মঙ্গলবার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ শেষে সাংবাদিকদের কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলকে বিশ্বমানের নিরাপত্তা দেয়া হবে। নিরাপত্তার কোন ধরনের ঘাটতি থাকবে না।
আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ইংল্যান্ডের সঙ্গে আমাদের যে সমঝোতা হয়েছিল, সে অনুযায়ী তাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা দেয়া হবে। বাংলাদেশ ক্রিকেট টিম বা ইংল্যান্ড টিমের মাঠে আসা-যাওয়ার সময় ভিভিআইপিদের যেভাবে নিরাপত্তা দেয়া হয়, সেভাবে নিরাপত্তা দেয়া হবে।
তিনি আরও বলেন, দর্শনার্থীরা ১, ৩, ৪ এবং ৫ নম্বর গেট দিয়ে প্রবেশ করতে পারবে। তাদের আর্চওয়ের ভেতর দিয়ে প্রবেশ করতে হবে। এছাড়া বিসিবি ও পুলিশ তাদের তল্লাশি করতে পারবে।
ডিএমপি কমিশনার বলেন, কোনও প্রকার দাহ্য পদার্থ ও ছুরি নিয়ে মাঠে কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না। খেলার আগের দিন সন্ধ্যা থেকে স্টেডিয়ামের সব দোকান বন্ধ থাকবে। ব্যবসায়ীদের লিখিত দিতে হবে যে, তাদের দোকানে কোনও বিস্ফোরক দ্রব্য নেই।
তিনি আরও বলেন, জাল টিকিট ও বিনা টিকিটে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না। যাদের কাছে মেশিন রিডেবল টিকিট থাকবে, তারাই মাঠে প্রবেশ করতে পারবে। নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে স্টেডিয়ামের ভেতরে সাদা পোশাকে পুলিশ সদস্যরা দায়িত্ব পালন করবেন। এছাড়া গোয়েন্দা সংস্থা, সিপি, ডিবি, পুলিশ এবং বিসিবির নিরাপত্তাকর্মীরা এক সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবেন।
বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) স্টিকার ব্যতীত কোনও গাড়ি স্টেডিয়ামের ভেতর প্রবেশ করতে দেয়া হবে না বলেও জানান ডিএমপি কমিশনার।
এদিকে হিউম্যান হলার প্রদান অনুষ্ঠানে রানার গ্রুপের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান খান বলেন, আমি একজন ব্যবসায়ী আর ব্যবসার সফলতা নির্ভর করে আইন-শৃঙ্খলার ওপর। যে কোনো সমস্যায় পুলিশের সহায়তা পেয়েছি। পুলিশ কর্মদক্ষতার মাধ্যমে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণ করে আমাদের ব্যবসা-বাণিজ্যের নিরাপত্তা নিশ্চিত করছে, যা অত্যন্ত প্রশংসার দাবিদার।
ডিএমপি কমিশনার, আইন-শৃঙ্খলা উন্নতির লক্ষ্যে রানার গ্রুপের পক্ষ থেকে ডিএমপিকে ১০টি গাড়ি উপহার দেয়ায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, আজকের এই গাড়িগুলো ডিএমপি’র থানা এলাকায় টহল কাজে ব্যবহৃত হবে। ফলে চুরি, দস্যুতা, ডাকাতি ও ছিনতাইসহ নানাবিধ অপরাধের প্রবণতা কমে যাবে।
এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন রানার গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শফিকুল জামান, রানার মোটরস পরিচালক নজর ই জিলানী, সিনিয়র জিএম তাইফুর রহমান ও ডিএমপি’র ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন