সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২, ০৩ মাঘ ১৪২৮, ১৩ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

যানজটে স্থবির রাজধানী

শাহবাগে গণঅনশন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০৫ এএম

পূজা মণ্ডপে হামলার ঘটনায় দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে রাজধানীর শাহবাগ মোড় অবরোধ করে গণ-অনশন, গণ-অবস্থান ও বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচি পালন করে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ। এ কর্মসূচির কারণে শাহবাগ মোড় দিয়ে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিটের অধীনে প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে ভর্তি পরীক্ষার কারণে পুরো রাজধানী যানজটে স্থবির হয়ে পড়ে।

জানা যায়, গতকাল শনিবার সকাল ছয়টা থেকে রাজধানীর শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে এ কর্মসূচি শুরু করেন তারা। পরবর্তীতে সকাল ১১টা ১০ মিনিটে এ কর্মসূচি পালনকারীদের একটি অংশ শাহবাগ মোড় অবরোধ করেন। এ সময় শাহবাগ মোড় দিয়ে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে তীব্র যানজটে স্থবির হয়ে পড়ে রাজধানীর ঢাকার জনজীবন।

রাজধানীর কারওয়ান বাজার, বাংলামটর, ফার্মগেট, পল্টন, গুলিস্তান, যাত্রাবাড়ী, মহাখালী, বিজয় স্মরণী ঘুরে দেখা যায়, রাস্তার দুই পাশে গাড়ি দাঁড়িয়ে রয়েছে। যাত্রী ও পথচারীদের ভোগান্তি বাড়িয়েছে। অনেক যাত্রী ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করে হেটে গন্তব্যে পৌঁছাতে দেখা গেছে।
শিকড় পরিবহনের যাত্রী মনিরুল ইসলাম বলেন, যাত্রাবাড়ী থেকে মিরপুর যাওয়ার উদ্দেশ্যে গতকাল দুপুর ১২টায় বাসে উঠেন। কিন্তু বাসটি বিকাল ৪টায় মিরপুরে গিয়ে পৌঁছায়। পথে এত বেশি যানজট-তার ওপর গরমে বাসের ভেতরে বসে থাকাও দায়।

এছাড়াও রাজধানীর শ্যামলী, টেকনিক্যাল, মিরপুর-১ এবং গাবতলী এলাকায়ও যানজট ছিল তীব্র। মিরপুর-১ ও গাবতলী থেকে আসা যানবাহনগুলো রাজধানীর শ্যামলী, কল্যাণপুর, আসাদগেট, ধানমন্ডি ও ফার্মগেট অভিমুখে যানজটে বেশ খানিকটা সময় দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে। অপরদিকে শাহবাগ মোড় রীতিমতো ব্লক হয়ে যাওয়ায় পুরান ঢাকার সদরঘাট, জনসন রোড, নবাবপুর, বংশাল, নয়াবাজার, বাবুবাজার, লালবাগ, আজিমপুর, মালিবাগ, খিলগাঁও, রামপুরা, বাড্ডা, গুলশান, বনানীর সড়কও স্থবির হয়ে যায়। এতে করে অ্যাম্বুলেন্সগুলো আটকা পড়ে রোগীদের সমস্যায় পড়তে হয়।

বনশ্রী থেকে মোটরসাইকেলে ফার্মগেটের উদ্দেশে রওনা হওয়া রহমত উল্লাহ বলেন, বনশ্রীর এফ ব্লকের বাসা থেকে বের হয়ে ইউলুপ পর্যন্ত আসতেই এক ঘণ্টার ওপরে লেগেছে। পরে বাড্ডা-গুলশান ঘুরে ফার্মগেটে যেতে হয়েছে।
তেজগাঁও অঞ্চল ঘুরে দেখা যায়, তেজগাঁও অঞ্চলের প্রতিটি রাস্তায় তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়। প্রতিটি রাস্তাতেই দীর্ঘ সময় ব্যক্তিগত গাড়ি ও পরিবহন দাঁড়িয়ে থাকে। কেউ কেউ গন্তব্যে পৌঁছাতে গাড়ি থেকে নেমে পায়ে হেঁটে রওনা দেন।
গাড়ি থেকে নেমে পায়ে হেঁটে গন্তব্যে যাওয়ার দৃশ্য প্রগতী স্বরণীতেও দেখা গেছে। পায়ে হেঁটে মতিঝিলের অফিসের উদ্দেশে রওনা হওয়া আরিফ হোসেন বলেন, প্রতিদিনের মত গতকালও সঠিক সময়ে বাসা থেকে বের হই। কিন্তু যানজটের কারণে অফিসে যেতে প্রায় দুই ঘন্টা দেরি হয়।


বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত মিজানুর রহমান বলেন, সাধারণত মোটরসাইকেলে যেকোনো জায়গায় যেতেই সময় কম লাগে। কিন্তু গতকাল সড়কে মোটরসাইকেল নিয়েও যানজটে পড়ে থাকতে হয়। আমি উত্তরা থেকে রওয়ানা হয়ে অফিসের কাজে যাই। কিন্তু সড়কের প্রতিটি সিগন্যালে দাঁড়াতে হয়েছে অন্যান্য দিনের তুলনায় একটু বেশি সময়। তবে ঢাকা মহানগর ট্রাফিক রমনা বিভাগের ডিসি জয়দেব চৌধুরী ইনকিলাবকে বলেন, শাহবাগে সমাবেশ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার কারণে এক ঘন্টা যানজট ছিলো। পরে স্বাভাবিক হয়ে গেছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন