বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৬ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

করোনার ডেলটা প্লাস ছড়ায় দ্রুতগতিতে

ইউনাইটেড কিংডম হেলথ সিকিউরিটি এজেন্সির গবেষণা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০৪ এএম

করোনাভাইরাসের ডেলটা ধরনকে পেছনে ফেলেছে ডেলটা প্লাস। সম্প্রতি ইংল্যান্ডে পরিচালিত এক গবেষণায় এ তথ্য জানা গেছে। গবেষণায় প্রাপ্ত তথ্য হচ্ছে, করোনার অতি সংক্রামক পরিবর্তিত ধরন ডেলটার চেয়ে দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়া বা সংক্রমিত হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে রয়েছে এই ধরনটিরই উপপ্রজাতি ডেলটা প্লাস।
গতকাল শনিবার বিবিসি নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইংল্যান্ডের সরকারি স্বাস্থ্য সেবা ও স্বাস্থ্য নিরাপত্তা বিষয়ক সংস্থা ইউনাইটেড কিংডম হেলথ সিকিউরিটি এজেন্সি (ইউকেএইচএসএ) পরিচালনা করেছে এই গবেষণা। ইতোমধ্যে ডেলটা প্লাসকে ‘অনুসন্ধানাধীন ধরনের’ তালিকায় ফেলেছে সংস্থাটি।

সরকারি তথ্য অনুযায়ী, ইংল্যান্ডে বর্তমানে সক্রিয় করোনা রোগীদের ৬ শতাংশ ডেলটা প্লাসে আক্রান্ত। তবে ডেলটার এই উপপ্রজাতিটি মানবদেহে করোনার অন্যান্য পরিবর্তনের তুলনায় অতিরিক্ত অসুস্থতা তৈরি করে। আবার বর্তমানে বাজারে সুলভ করোনা টিকাগুলো ডেলটা প্লাসে অকার্যকর- এমন কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি বলেও বিবৃতিতে উল্লেখ করেছে ইউকেএইচএসএ।

এক বিবৃতিতে ইউকেএইচএসএর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘গত কয়েক মাস ধরে ইংল্যান্ডে ডেলটার এই উপপ্রজাতিটির সংক্রমণের উর্ধ্বগতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। আমাদের কাছে থাকা তথ্য-প্রমাণ বলছে, অদূর ভবিষ্যতে ডেলটার মতো ডেলটা প্লাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ইংল্যান্ডে আরও বাড়বে।’

বর্তমানে বিশ্বে করোনাভাইরাসের এক হাজারেরও বেশি পরিবর্তিত ধরন রয়েছে। ভাইরাস সবসময়ই অভিযোজন বা বিবর্তনের মধ্যে দিয়ে যায়। তাই নিয়মিত বিরতিতে এই জীবাণুর নতুন প্রজাতির আগমন অদ্ভুত বা ব্যাতিক্রমী কোনো ঘটনা নয়। ডেলটা প্লাসের বৈজ্ঞানিক নাম এওয়াই ফোর পয়েন্ট টু। ডেলটা থেকেই উদ্ধব হয়েছে এই ধরনটির। তবে স্পাইক প্রোটিনের গঠনে ডেলটার সঙ্গে কিছু পার্থক্য রয়েছে ডেলটা প্লাসের।

ইউকেএইচএসএর প্রধান নির্বাহী ডা. জেনি হ্যারিস বলেন, ‘ব্রিটেনের জনগণের উদ্দেশে আমরা বলতে চাই- ভয়ের কোনো কারণ নেই। যারা এখনও টিকা নেননি, দ্রুত নিয়ে নিন। নিয়মিত মাস্ক ব্যবহার করুন। যে ঘরে বসবাস করেন, সেখানে যেন পর্যাপ্ত আলো-বাতাস ঢুকতে পারে- সেদিকে খেয়াল রাখুন। আর করোনার লক্ষণ অনুভব করলে দেরি না করে যত দ্রুত সম্ভব টেস্ট করান। সূত্র : বিবিসি নিউজ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (5)
জসিম ২৪ অক্টোবর, ২০২১, ৯:৫৫ এএম says : 0
আমাদেরকে সাবধান থাকতে হবে
Total Reply(0)
Biswjit Biswas ২৪ অক্টোবর, ২০২১, ৭:২৪ এএম says : 0
মাহামারির জারা নিয়ম মানছে না বিশ্ব আইন দরকার
Total Reply(0)
Sujoy Chaitali Paul ২৪ অক্টোবর, ২০২১, ৭:২৫ এএম says : 0
সব জায়গাতে একই অবস্থা কাকে কি বলবো
Total Reply(0)
Tanmoy Debnath ২৪ অক্টোবর, ২০২১, ৭:২৫ এএম says : 0
আপনাদের আর কাজ কি আছে এই সব ভাইরাসের দালালি করেই কাজ চালিয়ে যান। আর সাধারণ লোক পেট আর গলায় গামছা দিয়ে মুরুক।
Total Reply(0)
Julekha Khatun ২৪ অক্টোবর, ২০২১, ৭:২৫ এএম says : 0
উদ্বেগ না থাকলেও আপনারা তো আছেন ,উদ্বেগ বাড়ানোর জন্য।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন