শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ১৪ মাঘ ১৪২৮, ২৪ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

আউটসোর্সিং প্রথা বাতিলের দাবি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩ ডিসেম্বর, ২০২১, ১১:৫৯ পিএম

সরকারি বিভিন্ন দফতর-অধিদফতরে আউটসোর্সিংয়ে মাধ্যমে নিয়োগ প্রথা বাতিল করে আউটসোর্সিং কর্মচারীদের রাজস্বখাতে স্থানান্তর ও স্থায়ীকরাসহ ৬ দফা দাবি জানিয়েছে, স্বাধীনতা আউটসোর্সিং কর্মচারী কল্যাণ পরিষদ।

গতকাল শুক্রবার রাজধানীর সচিবালয় লিংক রোডে আয়োজিত এক মানববন্ধন থেকে এসব দাবি জানানো হয়। পরিষদের অন্যান্য দাবিগুলো হচ্ছে, আউটসোর্সিং নীতিমালা অনুযায়ী সেবা নেওয়া ও সেবা ক্রয়কারীর মধ্যে ঠিকাদারকে না রাখা, আউটসোর্সিং প্রথা বন্ধ করে আউটসোর্সিং ও দৈনিক মজুরি ভিত্তিক নিয়োজিত সকল কর্মচারীদের চাকরি পর্যায়ক্রমে বয়স শিথিল করে স্থায়ী করা, সরকারি দফতর-অধিদফতর পরিদফতরে বিনা অপরাধে বা ঠিকাদারকে ঘুষ না দিতে পারায়, যাদের চাকরিচ্যুত করা হয়েছে তাদেরকে চাকরিতে পূর্নবহাল করা, উৎসব, বোনাসসহ সকল ভাতা দেওয়া ও আউটসোর্সিংয়ে কর্মরত সকল কর্মচারীদের বকেয়া বেতন দ্রুত পরিশোধ করা এবং ডিজিটাল বাংলাদেশে দাস প্রথা মানব বেচা-কেনা না করা।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, আউটসোর্সিংয়ে নিয়োজিত সরকারি দফতর-অধিদফতরের কর্মচারীদের দুঃখ-দুর্দশা অনেক। টেন্ডার জটিলতায় কর্মরত অনেকের চাকরি চলে যায়, বছর শেষে জুন মাসে চাকরি নবায়ন করার নামে বিপুল অঙ্কের ঘুষ দাবি করে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান, সেটি দিতে না পারলে চাকরি চলে যায়। প্রতি মাসে ঠিকমত বেতন পাইনা, কখনো কখনো ৬ মাস থেকে ২ বছরও পরর বেতন বকেয়া থাকে। মাতৃত্বকালীন ছুটি থেকে বঞ্চিত হয় আউটসোর্সিং নিয়োগ প্রাপ্ত বোনেরা এবং মাতৃকালীন সময় কর্মস্থলে উপস্থিত না হতে পারলে সেই বোনটি চাকরিচ্যুত হয়। কোনো অপরাধ ছাড়াই বিনা কারনেই কথায় কথায় চাকরি চলে যায় দক্ষ কর্মচারীদের। সরকারি দফতর-অধিদফতর পরিদফতরে এরই মধ্যে অনেকেই বিনা অপরাধে এবং ঠিকাদারকে ঘুস না দিতে পারায় চাকরিচ্যুত হয়েছেন।

 

বক্তরা বলেন, এই মানুষগুলো ঝুঁকি ভাতা ও প্রনোদনাসহ ঈদ বোনাস, বৈশাখী ভাতা থেকে বঞ্চিত হয়। প্রধানমন্ত্রী ব্যাংক অ্যাকাউন্টে বেতন বিল পরিশোধ করার কথা বললেও ঠিকাদাররা ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা না দিয়ে হাতে হাতে টাকা দিয়ে থাকে। আর ব্যাংকের চেক আউটসোর্সিং কর্মচারী থেকে আগে নিয়ে রাখেন। আমরা এসব সমস্যা সমাধানে সরকারের সুদৃষ্টি প্রত্যাশা করছি।
মানববন্ধনে পরিষদের সভাপতি মো. মাহবুবুর রহমান আনিস, সাধারণ সম্পাদক এম এম জীবনসহ শতাধিক আউটসোর্সিং কর্মজীবীরা উপস্থিত ছিলেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন