শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

নিয়োগ দুর্নীতির অভিযোগ শেবাচিম হাসপাতালের তিন কর্মকর্তা সাসপেন্ড

প্রকাশের সময় : ১৯ জানুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বরিশাল ব্যুরো : বরিশাল শের এ বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণি কর্মচারী নিয়োগে দুর্ণীতি ও অনিয়মের অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক ও উপ-পরিচালকসহ প্রশাসনিক কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।
গতকাল স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের পৃথক ৩টি প্রজ্ঞাপনে তাদের সাময়িক বরখাস্তের আদেশ জারি করা হয়েছে।
সচিব সৈয়দ মঞ্জুরুল ইসলাম ও উপসচিব (পার-২) একেএম ফজলুল হক’র স্বাক্ষরিত আদেশে বলা হয় ‘শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণি কর্মচারী নিয়োগ কার্যক্রমে ব্যপক অনিয়ম সংঘটন করান সাথে জড়িত থাকার বিষয়টি তদন্তে প্রাথমিক ভাবে প্রমাণিত হয়েছে। নিয়োগ কমিটির সভাপতি হিসেব উক্ত মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালকের দায়িত্বরত ডা. মো. নিজাম উদ্দিন ফারুক, উপ-পরিচালক ডা. মো. সহিদুল ইসলাম হাওলাদার ও প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. আব্দুল জলিলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো’।
উল্লেখ্য গত ১ ডিসেম্বর থেকে ১২ ডিসেম্বর বরিশাল শের-এ-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩য় ও ৪র্থ শ্রেণির কর্মচারী ২২৬টি পদে নিয়োগ পত্র প্রদান করা হয়। নিয়োগ কার্যক্রমে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়ায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মো. নাসিম’র নির্দেশে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কমিটির রিপোর্ট অনুযায়ী গতকাল ঐ আদেশ জারি করা হয়েছে।
উপ-পরিচালক অবরুদ্ধ
বেতন শীটে সাক্ষর না দেয়ায় বরিশাল শের-এ-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালককে এক ঘন্টারও বেশি সময় অবরুদ্ধ করে রাখে নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মচারীরা। এসময় তারা হাসপাতালের প্রশাসনিক গেটে তালা মেরে বিক্ষোভ করেন। পরে বিকেল ৪টায় বেতন শীটে স্বাক্ষরের বিষয়টি নিশ্চিত হলে বিক্ষোভ তুলে নেয় কর্মচারীরা।
উপ-পরিচালক ডা. শহীদুল ইসলাম মুক্ত হওয়ার পরে হাসপাতালের গাড়ি যোগে পরিচালক ডা. নিজাম উদ্দিন ফারুকসহ কর্মকর্তাদের সাথে বের হয়ে যান। এর আগে বেলা আড়াইটার দিকে নতুন নিয়োগ প্রাপ্ত কর্মচারীরা বেতন শীটে সাক্ষর না দেয়ায় তাকে অবরুদ্ধ করে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন