বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সৈয়দ আশরাফের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৪ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০৩ এএম

আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল রাজধানী ঢাকায় এবং মরহুম নেতার পৈতৃক গ্রামের বাড়ি ও নির্বাচনী এলাকা কিশোরগঞ্জে নানা কর্মসূচি পালিত হয়েছে। রাজধানীর বনানী কবরস্থানে সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের কবরে ‘সৈয়দ আশরাফ স্মৃতি সংসদ’সহ বিভিন্ন সংগঠন ফুল দিয়ে মরহুমের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে।

এ সময়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া, উপপ্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মারুফা আক্তার পপি, সংসদ সদস্য রুবিনা মীরা, আওয়ামী লীগ নেতা বলরাম পোদ্দার, আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক উপকমিটির সদস্য আনোয়ারুল কবির প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। মাহবুব উল আলম হানিফ এ সময় বলেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম ছিলেন একজন অত্যন্ত সজ্জন, সৃজনশীল মানুষ। তার আচরণ, কথাবার্তা ছিল পরিশীলিত। দুঃসময়ে তিনি ছিলেন অকুতোভয়। জাতির অনেক ক্রান্তিলগ্নে সৈয়দ আশরাফের ভূমিকা চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে।
তিনি বলেন, সৈয়দ আশরাফ রাজনৈতিক অঙ্গনে কখনো কারো মনে আঘাত দিয়ে কথা বলেননি। তিনি কোনোদিন কোন কটূক্তি করেছেন এমন নজির নেই। একজন মানুষের মধ্যে যে সভ্য আচার-আচরণ থাকা উচিত, সেগুলো সৈয়দ আশরাফের কাছ থেকে অনুকরণীয়। একই সময় সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের পরিবারের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করে দেশবাসীর কাছে দোয়া প্রার্থনা করেন তার বোন কিশোরগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ডা. সৈয়দা জাকিয়া নূর।
সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকীতে বনানী কবরস্থানে তার কবরে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেনও শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন। এছাড়াও আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক-সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরাও তার কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।
২০১৯ সালের ৩ জানুয়ারি থাইল্যান্ডের ব্যাংককে একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ৬৮ বছর বয়সী সৈয়দ আশরাফ। সৈয়দ আশরাফ ১৯৫২ সালের ১ জানুয়ারি ময়মনসিংহে জন্মগ্রহণ করেন। বঙ্গবন্ধুর অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ রাজনৈতিক সহকর্মী তার পিতা সৈয়দ নজরুল ইসলাম ১৯৭১ সালে মুজিবনগর সরকারের অস্থায়ী প্রেসিডেন্ট ছিলেন। কিশোরগঞ্জ থেকে স্টাফ রিপোর্টার জানান, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ৩য় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে জেলা আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার বিকেলে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট কামরুল আহসান শাহজাহানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট এম.এ আফজল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশফাকুল ইসলাম টিটু, কিশোরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মো. পারভেজ মিয়া প্রমুখ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক লুৎফুল আরেফিন গোলাপ, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক এনায়েত করিম অমি, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এ.কে.এম শামছুল ইসলাম খান মাসুম, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মো. আতাউর রহমান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন মোল্লা সুমন, সাধারণ সম্পাদক ফয়েজ ওমান খান, সাংগঠনিক সম্পাদক লুৎফর রহমান নয়নসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এছাড়া কিশোরগঞ্জের ৭৬৩টি মসজিদে জহুরের নামাজের পর দোয়া মিলাদ মাহফিল ও সনাতন ধর্মীদের মন্দিরে বিশেষ প্রার্থনা করা হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন