বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

করোনা বিস্তার রোধে নতুন বিধিনিষেধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যে প্রতিক্রিয়া

সোশ্যাল মিডিয়া ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১০ জানুয়ারি, ২০২২, ১১:৩২ পিএম

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রনের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়া ঠেকাতে সরকার নতুন করে কিছু বিধি-নিষেধ আরোপ করায় নানা প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন নেটিজেনরা। নতুন করে দেওয়া এই বিধিনিষেধে অনেকেই উদ্বেগ জানিয়েছেন। আবার অনেকে সভা-সমাবেশ বন্ধ রাখার কথা বললেও নির্বাচনী জনসংযোগ বন্ধ না করা ও সব কিছু খোলা রেখে অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের নির্দেশনার সমালোচনা করেছেন।

নতুন এই বিধি-নিষেধে উন্মুক্ত স্থানে যে কোনো সামাজিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠান কিংবা রাজনৈতিক সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ থাকছে। তবে বাস-ট্রেনে আবার অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলবে করতে পারবে। আগামী বৃহস্পতিবার থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া অবধি এই নির্দেশনা কার্যকর থাকবে বলে জানানো হয়েছে।

আজ সোমবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে ১১টি বিধি নিষেধ আরোপ করে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। করোনাভাইরাসজনিত রোগ (কোভিড-১৯)-এর নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের প্রাদুর্ভাব ও দেশে এই রোগের সংক্রমণ পরিস্থিতি পর্যালোচনা সংক্রান্ত আন্তঃমন্ত্রণালয় সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ১৩ জানুয়ারি থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সার্বিক কার্যাবলি/চলাচলে বিধি-নিষেধ আরোপ করা হয়।

আলী হাসান শিহাব ফেসবুকে সমালোচনা করে লিখেছেন, ‘‘সরকারের করোনা রোধে বিধিনিষেধ হাস্যকর। সভা সমাবেশ বন্ধ রাখার কথা বললেও নির্বাচনে জনসংযোগ ও ভোট কার্যক্রম বন্ধের কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। অফিস আদালত স্কুল কলেজ শপিং মল খোলা রেখে গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রী এটা জনভোগান্তি চরম আকার ধারণ করবে। ১১ দফা বিধিনিষেধ করোনা রোধে কোনো সমাধান হতে পারে না। সরকারের উচিত ছিল স্বাস্থ্যবিধির উপর জোড় দেওয়া। হাত ধোঁয়া মাস্ক পড়া টিকা নিশ্চিত করা হাসপাতাল গুলোতে চিকিৎসা সেবা বাড়ানো ইত্যাদির উপর বেশি বেশি নজর দেওয়া উচিত ছিল।’’

অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের নির্দেশে ক্ষোভ জানিয়ে রিয়াদ আহসান রানার মন্তব্য, ‘‘এমনিতেই বাস ভাড়া বেড়েছে ৪০-৫০% তারমধ্যে আবার অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের নামে গনডাকাতির সুযোগ করে দিচ্ছেন।আপাতত মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করে দিলে হত না? মানুষ তো আর অর্ধেক করা যাবেনা!অফিস আদালতে জনবল যদি একই রাখেন তাহলে পরিবহন সংকটেও পরবে অফিসগামী লোকজন।’’

নাসিম হাসান মেহেদী লিখেছেন, ‘‘দেশের কিছু লোক গোঁপে তেল দিচ্ছে সামনে লকডাউন আসতেছে। বাসভর্তি লোক থাকবে, ভাড়াও দ্বিগুন হবে, ২ টাকার মাক্স ১০০ টাকা হবে, দোকান ভর্তি মাল থাকবে দামও দ্বিগুন হবে !!! আহ্ কত মজা, মজাই মজা!!!’’

নাইম মাহফুজ লিখেছেন, ‘‘আবদ্ধ স্থানে করোনা ছড়ায় না? এই মনে করেন বাণিজ্য মেলা এর চারপাশে দেয়াল কিন্তু ভেতরে হাজার হাজার মানুষ সেখানে করোনা হবেনা? নারায়নগঞ্জের নির্বাচনে করোনা ছড়াবেনা?’’

জাহান ইমতিয়াজ লিখেছেন, ‘‘কিছুদিন আগেইনা ভাড়া বাড়লো!! সবকিছু খোলা রেখে অর্ধেক যাত্রী পরিবহনের নামে মানুষের ভোগান্তি তৈরি করা ও পকেট কাটার চমৎকার একটি সিদ্ধান্ত!’’

আলী আকবার লিখেছেন, ‘‘হাস্যকর পাগলামি ! সরকার কত শতাংশ মানুষকে টিকা দিয়ে এই প্রজ্ঞাপন জারি করেছেন। আঠারো বছরের নীচে কি কেউ হোটেল খাবে না ! ফাজলামি আর পাগলামি সরকার..।’’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন