সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১০ মাঘ ১৪২৮, ২০ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

অকালে ঝিরি ঝিরি বর্ষণ

পৌষের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে উঁচুতে

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০৩ এএম

পৌষ মাস বিদায় বেলায়। দুয়ারে কড়া নাড়ছে মাঘ মাস। পঞ্জিকার পাতায় এখন শীত ঋতুর মাঝভাগ। ভরা শীত মৌসুমেই গতকাল বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা, চট্টগ্রামসহ সবক’টি বিভাগের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষিপ্ত হালকা থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি, ঝিরি ঝিরি বৃষ্টিপাত হয়েছে। আবহাওয়া বিশেষজ্ঞ সূত্র জানায়, পশ্চিমা লঘুচাপের প্রভাবে এবং পশ্চিমা বায়ুর সাথে পূবালী বায়ুর সংযোগের ফলে অকালে দেশের অধিকাংশ স্থানে বৃষ্টিপাত হচ্ছে। অধিকাংশ স্থানে আকাশ ছিল আংশিক মেঘলা থেকে মেঘাচ্ছন্ন। গতকাল দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয় দিনাজপুরে ১১ মিলিমিটার।

এদিকে উত্তর বঙ্গোপসাগর থেকে আসা উষ্ণ মেঘ ও জলীয়বাষ্পের প্রভাবে ভরা শীতের পৌষ মৌসুমে স্বাভাবিকের চেয়ে তাপমাত্রার পারদ ঊর্ধ্বে রয়েছে। স্থানভেদে দেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা মৌসুমের এ সময়ের স্বাভাবিকের তুলনায় ২ থেকে ৫ ডিগ্রি সে. বেশি রয়েছে। গতকালও দেশের কোথাও শৈত্যপ্রবাহের পর্যায়ে তাপমাত্রা ছিল না। দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ফেনীতে ১৪ এবং সর্বোচ্চ টেকনাফে ৩০.৪ ডিগ্রি সে.। ঢাকার তাপমাত্রা সর্বোচ্চ ২৪.৭ এবং সর্বনিম্ন ১৮.৪ ডিগ্রি সে.। চট্টগ্রামে যথাক্রমে ২৬.৩ এবং সর্বনিম্ন ১৭ ডিগ্রি সে.।

গতকাল দিনাজপুরে ছাড়াও উল্লেখযোগ্য অকাল বর্ষণ হয়েছে- ঢাকা, রাজশাহী, সিলেটসহ বিভিন্ন জেলায় এক মিলিমিটার করে, টাঙ্গাইলে ৮, ময়মনসিংহে ৬, নেত্রকোণায় ৭, সীতাকুণ্ডে ৩, পাবনায় ৬, চুয়াডাঙ্গায় ৯, সাতক্ষীরা ও কুমারখালীতে ৮, যশোর ও পটুয়াখালীতে ২ মি.মি.সহ বিভিন্ন স্থানে বিক্ষিপ্ত হালকা ও গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিপাত হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে আবহাওয়াবিদ মো. শাহীনুল ইসলাম জানান, রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দুয়েক জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টিপাত হতে পারে। শেষরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের কোথাও কোথাও হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে।

সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা এক থেকে ২ ডিগ্রি সে. হ্রাস পেতে পারে। দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টায় বৃষ্টিপাতের প্রবণতা হ্রাস পেতে পারে। এরপরের ৫ দিনে রাতের তাপমাত্রা ক্রমেই হ্রাস পেতে পারে।পশ্চিমা লঘুচাপের একটি বর্ধিতাংশ হিমালয়ের পাদদেশীয় পশ্চিমবঙ্গ ও এর সংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। যার একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন