ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬, ১৭ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

বিএমএ নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা ড্যাবের

প্রকাশের সময় : ৬ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ মেডিক্যাল এসোসিয়েশন (বিএমএ) নির্বাচন বর্জন করার ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি সমর্থিত চিকিৎসক সংগঠন ডক্টরস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব)। গতকাল শনিবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ড্যাব-এর মহাসচিব অধ্যাপক এজেডএম জাহিদ হোসেন এই বর্জনের ঘোষণা দেন।
তিনি বলেন, জাতীয় নির্বাচন কমিশনের মতোই বিএমএ নির্বাচন কমিশনও একতরফা নির্বাচনের লক্ষ্যে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। আমরা বিএমএ নির্বাচন-২০১৬ কার্যক্রম বর্জন করছি। একই সঙ্গে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সাধারণ চিকিৎসকদের নিয়ে আগামীতে এর বিরুদ্ধে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন ড্যাব মহাসচিব।
সংবাদ সম্মেলনে কেনো বর্জন করা হচ্ছেÑ তা ব্যাখ্যা করে বলা হয়, বিএমএ নির্বাচন-২০১৬ কাযক্রমে গঠিত নির্বাচন কমিশন বিএমএ’র নিয়মনীতি ভঙ্গ করে করা হয়েছে। তফসিল ঘোষণার আগে অংশগ্রহণকারী চিকিৎসক সংগঠনগুলোর সঙ্গে কোনো আলাপ-আলোচনা করেনি।
অধ্যাপক জাহিদ বলেন, বিতর্কিত ব্যক্তিদের দ্বারা অসামঞ্জস্য তফসিল ঘোষণা, সদস্য ফরম থেকে শুরু করে মনোনয়নপত্র বিতরণসহ সর্বপ্রকার অনিয়মের বিরুদ্ধে আমরা গত ৩ নভেম্বর বিএমএ সভাপতি ও মহাসচিব বরাবর চিঠি দিয়েছি। কিন্তু পরিতাপের বিষয়, আগের মতোই বিএমএ আমাদের পত্রের কোনো জবাব দেয়নি। যা সম্পূর্ণ অগণতান্ত্রিক স্বেচ্ছাচারী আচরণ ও বিএমএ’র ঐতিহ্যের বিরোধী। আমরা পুনঃ পুনঃ নির্বাচন কমিশন গঠন ও পুনঃতফসিলের আবেদন জানিয়েছি। কিন্তু তারা কর্ণপাত করেনি। এমতাবস্থায় আমরা বর্জনের এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।
তিনি অভিযোগ করে বলেন, ২০১২ সালের নির্বাচন কমিশনের সম্পাদককে পদোন্নতি দিয়ে সভাপতি ও সদস্যকে পদোন্নতি দিয়ে সম্পাদক করে ২০১৬ সালে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছে। তাদের এই পদোন্নতি ভোট জালিয়াতির পুরস্কার বলে আমরা মনে করি। বিএমএ’র ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ২২ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণ হবে সকাল ১০টা থেকে ৫টা পর্যন্ত।
সংবাদ সম্মেলনে ড্যাব-এর সভাপতি অধ্যাপক একেএম আজিজুল হক, কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যাপক রফিকুল কবীর, অধ্যাপক মোস্তাক রহিম স্বপন, অধ্যাপক এমএ সালাম, অধ্যাপক ফরহাদ হালিম ডোনার, অধ্যাপক সিরাজউদ্দিন আহমেদ, অধ্যাপক হারুন আল রশিদ, অধ্যাপক এসএম রফিকুল ইসলাম বাচ্চু প্রমুখ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন