ঢাকা, সোমবার , ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ০৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

অনিয়ম করে কার স্কীম প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে বিপিসি!

জ্বালানী খাতে শত কোটি টাকার অনিয়ম

প্রকাশের সময় : ১১ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

হাবিবুর রহমান : অর্থ মন্ত্রণালয়ের কোনো অনুমোদন ছাড়াই সম্পূর্ণ অনিয়মতান্ত্রিকভাবে কার স্কিম প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন (বিপিসি)। প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পর্ষদ নিজেদের পছন্দের কর্মকর্তাদের বিশেষ সুবিধা দিতেই প্রকল্পটি অনুমোদন দিয়েছে। এতে সরকারের প্রায় ৩ কোটি টাকা গচ্ছা গেছে। শুধু এটিই নয়, জ্বালানী খাতের বিভিন্ন কাজের নামে এভাবেই ১০১ কোটি ৯৮ লাখ ৯৩ হাজার ২৪০ টাকা অনিয়ম ও লুটপাট হয়েছে।
সরকারী হিসাব সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠকে বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের ১১টি প্রতিষ্ঠানের এসব অনিয়মের চিত্র প্রতিবেদন আকারে তুলে ধরেছে বাংলাদেশের মহাহিসাব-নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রকের কার্যালয়। কমিটি মন্ত্রণালয়ের একজন যুগ্মসচিব এবং প্রতিষ্ঠান ও অডিট অফিস থেকে প্রতিনিধি নিয়ে ৩ সদস্যের কমিটির মাধ্যমে বিষয়গুলো তদন্ত করে অনধিক ১৫ দিনের মধ্যে কমিটির কাছে প্রতিবেদন দাখিল করার নির্দেশ দিয়েছে সংসদীয় স্থায়ী কমিটি।
ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর ইনকিলাবকে বলেন, অর্থ মন্ত্রণালয়ের কোনো অনুমোদন ছাড়াই সম্পূর্ণ অনিয়মতান্ত্রিকভাবে কার স্কিম প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন (বিপিসি)। প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পর্ষদ নিজেদের পছন্দের কর্মকর্তাদের বিশেষ সুবিধা দিতেই প্রকল্পটি অনুমোদন দিয়েছে। তিনি বলেন, এতে সরকারের প্রায় ৩ কোটি টাকা গচ্ছা গেছে। শুধু এটিই নয়, জ্বালানী খাতের বিভিন্ন কাজের নামে এভাবেই ১০১ কোটি ৯৮ লাখ ৯৩ হাজার ২৪০ টাকা অনিয়ম ও লুটপাট করা হয়েছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদের ভবনে অনুষ্ঠিত কমিটির বৈঠকে  সভাপতিত্ব করেন ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, কমিটির সদস্য এ কে এম মাঈদুল ইসলাম, মো. আব্দুস শহীদ, মোহাম্মদ আমানউল্লাহ, পঞ্চানন বিশ্বাস, মো. রুস্তম আলী ফরাজী, মো. জিল্লল হাকিম, আ ফ ম রুহুল হক, মো. শামসুল হক টুকু ও বেগম রেবেকা মমিন। সিএন্ডএজি মাসুদ আহমেদ, বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের জ্বালানী বিভাগের সচিব নাজিম উদ্দিন চৌধুরীসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।
কমিটিতে উত্থাপিত প্রতিবেদনে বলা হয়, শেভরন ও কেয়ার্নকে চুক্তি অনুযায়ী যথাসময়ে বিল পরিশোধ করা হয়নি। একারণে তারা জরিমানা আদায় করেছে। এতে প্রতিষ্ঠানের ক্ষতি হয়েছে ৬ কোটি ৩ লাখ ৭ হাজার ৮৮৬। এ প্রেক্ষিতে কমিটি অডিট অফিস, প্রতিষ্ঠান ও মন্ত্রণালয় থেকে প্রতিনিধি নিয়ে ৩ সদস্যের একটি কমিটির মাধ্যমে বিষয়টি পরীক্ষা করে অনধিক ৬০ দিনের মধ্যে একটি প্রতিবেদন কমিটির নিকট প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছে। সুপার রিফাইনারী (প্রাঃ) লিমিটেডের বিল হতে উৎসে আয়কর কম কর্তন করায় সরকারের ৬ কোটি ৫০ লাখ ৬৫ হাজার ৫৩৯ টাকা রাজস্ব ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, প্রধান স্থাপনা চট্টগ্রাম হতে বাঘাবাড়ী ও চাঁদপুর ডিপোতে পেট্রোলিয়ামজাত পণ্য সরাসরি প্রেরণের পরিবর্তে ভায়া গোদনাইল প্রেরণ করায় অতিরিক্ত ট্যাংকার ভাড়া পরিশোধ এবং অনুমোদিত পরিবহন ঘাটতি একবারের স্থলে দু’বার প্রদান করতে হয়েছে। এতে ক্ষতি হয়েছে ৫ কোটি ১৬ লাখ ৪২ হাজার ৭০৭ টাকা। বিদেশী এয়ারলাইনসের বিক্রীত জেট -এ-১ এর মূল্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ উপেক্ষা করে ডলারের পরিবর্তে টাকায় গ্রহণ এবং ক্রেতার স্থানীয় এজেন্টের নিকট হতে ডলারের বিক্রয় মূল্যের পরিবর্তে ক্রয়মূল্যে টাকা আদায় করায় সরকারের ক্ষতি হয়েছে ৩ কোটি ৩০ লাখ ৮ হাজার ৯১৮ টাকা।
প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, শ্রমিক না হয়ে জাতীয় বেতন স্কেলভুক্ত কর্মকর্তা ও কর্মচারী হওয়া সত্বেও কোম্পানীর মুনাফায় শ্রমিকের অংশগ্রহণ তহবিল হতে অনিয়মিতভাবে ৪৭ কোটি ৯৭ লাখ ৪ হাজার ৮৭৯ মুনাফা বন্টন করে নেয়া হয়েছে। বিপিসি’র আদেশ উপেক্ষা বিভিন্ন ডিপোতে মূল্য বৃদ্ধির আগে অস্বাভাবিক পরিমান অতিরিক্ত ডিজেল বিক্রি করায় সরকারের ক্ষতি হয়েছে ৯ কোটি ৫৩ লাখ ৮৮ হাজার ২১৯ টাকা। পদ্মা অয়েল কোম্পানী লিমিটেডের টেন্ডারের মাধ্যমে ভাড়াকৃত ট্যাংকারের ভাড়া বিপিসি বিনা টেন্ডারে সমঝোতার মাধ্যমে নির্ধারিত ভাড়ার হারে আদায় করায় সরকারের রাজস্ব ক্ষতি হয়েছে ১ কোটি ২৮ লাখ ৭২ হাজার ২৩৭ টাকা, প্রাপ্য স্কেল অপেক্ষা অঙ্গীকারনামার ভিত্তিতে উচ্চতর স্কেল প্রদান ও নিয়ম বহির্ভূতভাবে সিলেকশন গ্রেড প্রদান করায় ক্ষতি ৫৬ লাখ ৬৪ হাজার ৯৩০ টাকা, অবসর গ্রহণকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণকে প্রাপ্য অপেক্ষা অতিরিক্ত গ্র্যাচুইটি প্রদান করায় প্রতিষ্ঠানের ক্ষতি হয়েছে ১৭ লাখ ৯৯ হাজার ৯৭৩ টাকা এবং কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের প্রাপ্যতা বহির্ভূত ভাতাদি প্রদান করায় ১৭ কোটি ৫০ লাখ ৭০ হাজার ৩৩৯ টাকা সরকারের ক্ষতি হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন