সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯, ০৯ মুহাররম ১৪৪৪ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

২৫০০ কোটি টাকা দিলে জামিনে মুক্তি পাবেন ডেসটিনির দুই কর্মকর্তা

আপিল বিভাগের আদেশ

প্রকাশের সময় : ১৪ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : ট্রি প্ল্যান্টেশন প্রকল্পের গাছ বিক্রি করে ২ হাজার ৮শ’ কোটি টাকা অথবা নগদ ২ হাজার ৫শ’ কোটি টাকা ক্ষতিগ্রস্তদের পরিশোধ করতে পারলে দুদকের দুই মামলায় জামিন পাবেন ডেসটিনির শীর্ষ কর্মকর্তা রফিকুল আমিন ও মোহাম্মদ হোসাইন। গতকাল রোববার প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বেধীন তিন বিচারপতির বেঞ্চ এ আদেশ দেন।
আগামী ছয় সপ্তাহের মধ্যে তাদেরকে ওই শর্ত পূরণ করলে জামিনে মুক্তি পাবেন। আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন খুরশীদ আলম খান। আদালতে ডেসটিনির পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার আজমালুল হোসেন কিউসি। দুদকের আইনজীবী সাংবাদিকদের বলেন, আদালত ৬ সপ্তাহের কিছু নির্দেশনা দিয়েছেন। এসব নির্দেশনা পূরণ করলে জামিনে মুক্তি পাবেন। আদালতে তাদের পক্ষ থেকে একটি হলফনামা দেয়া হয়েছে। যাতে বলা হয়েছে, তাদের কাছে ৩৫ লাখ গাছ আছে। প্রতিটি গাছ আট হাজার টাকা করে বিক্রি করে ২ হাজার ৮শ’ কোটি টাকা দিতে পারবেন তারা। এ গাছ বিক্রি করতে দুই আসামি যে কারাগারে আছেন, সেখানে তাদের সঙ্গে গাছ বিক্রির সকল কাগজপত্রে স্বাক্ষর ও আলোচনা করার সুযোগ দিতে কারা কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।
ডেসটিনি ট্রি-প্ল্যানটেশনের সিইও ড. শামসুল হক ভূঁইয়া এমপির তত্ত্বাবধানে সবকিছু হবে। যদি গাছ বিক্রি করে ২ হাজার ৮শ’ কোটি টাকা দিতে না পারেন, তাহলে নগদ ২ হাজার ৫শ’ কোটি টাকা ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে জমা দেবেন তারা। এর অনুলিপি দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান বরাবরে পাঠাতে হবে। এরপর যারা ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তি, যাচাই করে তাদের কাছে টাকা হস্তান্তরের পর জামিনে মুক্তি পাবেন দুই কর্মকর্তা। ২০১২ সালের ৩১ জুলাই ডেসটিনি গ্রুপের এমডি রফিকুল আমিন ও মোহাম্মদ হোসাইনসহ ২২ জনের বিরুদ্ধে মামলা দু’টি করে দুদক। সাধারণ বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ থেকে ডেসটিনি মাল্টিপারপাস কো-অপারেশন (এমএলএম) ও ট্রি প্ল্যানটেশন প্রকল্পের নামে গ্রাহকদের কাছ থেকে সংগৃহীত অর্থের মধ্য থেকে ৩ হাজার ২৮৫ কোটি ২৫ লাখ ৮৮ হাজার ৫২৪ টাকা আত্মসাত করে পাচারের অভিযোগে রাজধানীর কলাবাগান থানায় মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইনে তাদের বিরুদ্ধে এ মামলা করা হয়। বর্তমানে এ মামলায় দু’জনই কারাগারে রয়েছেন। গত ২০ জুলাই হাইকোর্ট শর্তসাপেক্ষে রফিকুল আমিন ও মোহাম্মদ হোসাইনকে জামিন দেন। পরে দুদকের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তা স্থগিত করে দেন আপিল বিভাগ। এরপর এ আবেদনের ওপর শুনানির এক পর্যায়ে আপিল বিভাগ আত্মসাৎকৃত টাকা জমা দেয়ার কথা বলেন। সে অনুসারে ডেসটিনির পক্ষ থেকে গাছ বিক্রি করে টাকা দেয়ার কথা বলা হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন