রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯, ০৩ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

‘যানজট কমাতে শিক্ষার্থীদের জন্য বাস চালু করতে হবে’

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ মে, ২০২২, ১২:০১ এএম

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, ঢাকার যানজট কমাতে শিক্ষার্থীদের স্কুল-কলেজে যাতায়াতে প্রাইভেটকারের বদলে বাস চালু করতে হবে। বিশেষ করে ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলে আমরা লক্ষ্য করেছি, স্কুলের বাচ্চাদের মধ্যে প্রাইভেটকারে একটা প্রতিযোগিতা চলে। বাচ্চারা বলাবলি করে, কার কী কার আছে। এই প্রতিযোগিতার অবসান হবে। মেয়র হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের দুই বছর পূর্তিতে গতকাল শনিবার ‘মিট দ্যা প্রেস’ এ তিনি এ আহ্বান জানান।

হাতিরঝিলের জন্য কারওয়ান বাজারে বিজিএমই ভবন ভাঙতে পারলে মহাখালীতে সেতু ভবন ও সড়ক ভবন কেন ভাঙা যাবে না, সেই প্রশ্নও তোলে তিনি বলেন, বনানী থেকে শুরু করে উত্তরা পর্যন্ত যানজট লেগে থাকে এই সেতু ভবন আর বিআরটিএ ভবনের জন্য, রাস্তার উপরে সম্পূর্ণ অপরিকল্পিতভাবে এই ভবন দুটি করা হয়েছে। এখানে আগে অনেক গাছ ছিল সব কেটে করা হয়েছে সেতু ভবন আর বিআরটিএ ভবন। আমি আহ্বান জানাব- এই ভবন যেন ভেঙে ফেলা হয়।
মেয়র আতিক বলেন, আমি থানায় ফোন করলে তারা বলেন- এগুলো মামলার আলামত, সরানো যাবে না। আমি আদালতের কাছে দাবি জানাচ্ছি-এখন ডিজিটাল যুগ, ছবি তুলে ভিডিও করে আলামতগুলো রেখে দেয়ার ব্যবস্থা করে দিন। এই গাড়িগুলো থেকে এইডিস মশার উৎপত্তি হয়। দীর্ঘদিন পড়ে থাকে, পানি জমে আর উৎপত্তি হয় এইডিস মশার। ঢাকার বিভিন্ন রাস্তার উপরে বিভিন্ন ধরনের আইটেম রাখা হয়, এমনকি দোকানপাটও করা হয়। বলতে গেলে একজন বলে এটা পুলিশের, পুলিশ বলে এটা কাউন্সিলরের, আবার আরেকজন বলে রাজনীতিকের।
আমরা অ্যাপস করেছি, নগরবাসীকে আমি আহ্বান জানাবো আপনারা তথ্য দিন। আমরা এইডিস মশা নিয়ন্ত্রণের জন্য র‌্যাপিড অ্যাকশন টিম করেছি। তথ্য দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে টিম চলে যাবে। ১০টা ১০ মিনিটে প্রতি শনিবার, নিজের আঙিনা করি আমরা পরিষ্কার। এটা আমরা করছি, আপনারাও করুন। সপ্তাহে একদিন একটা নির্দিষ্ট সময়ে আপনারা পরিষ্কার করেন। শনিবারে ছুটির দিন, এই দিন অন্তত একটু নিজের আঙিনা পরিষ্কার করুন। ১৭ মে থেকে ২৬ মে পর্যন্ত ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রনে চিরুনি অভিযান চালানো হবে, করোনাভাইরাস কমেছে আমরা ডেঙ্গু চাই না। হোল্ডিং ট্যাক্স দিতে গ্রাহকদের আর ভোগান্তি হবে না জানিয়ে আতিক বলেন, আমরা নো ক্যাশ ট্রানজেকশন ব্যবস্থা চালু করেছি। এখানে কোনো গ্রাহককে সরাসরি হোল্ডিং ট্যাক্স দিতে হবে না। সরাসরি ট্যাক্স দিতে গেলে কর্মকর্তারা সুযোগ পেয়ে যায়। যার কারণে একজন গ্রাহক বিরক্ত হয়ে সরাসরি কন্ট্রাক্টে চলে যায়। এই ব্যবস্থাই আর রাখছি না। নগদ টাকা হবে না, ট্যাক্স হবে অনলাইানে, নো ক্যাশ ট্র্যানজেকশন ব্যবস্থা চালু হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps