বৃহস্পিতবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ০৩ ভাদ্র ১৪২৯, ১৯ মুহাররম ১৪৪৪

জাতীয় সংবাদ

বিশ্বব্যাংকের বিদায়ী ভাইস প্রেসিডেন্টের সৌজন্য সাক্ষাৎ

বাংলাদেশকে অর্থায়নে অর্থমন্ত্রীর ধন্যবাদ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২ জুন, ২০২২, ১২:০২ এএম

বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের বিদায়ী ভাইস প্রেসিডেন্ট হার্টউইগ শেফার অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এর সঙ্গে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন। হার্টউইগ শেফার ২০১৮ সালের ১ জুলাই দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের ভাইস প্রেসিডেন্ট এর দায়িত্ব গ্রহণ করেন। এই সময়ে তিনি আফগানিস্তান, বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত, মালদ্বীপ, নেপাল, পাকিস্তান, এবং শ্রীলংকার সাথে বিশ্বব্যাংকের পোর্টফোলিও দেখভাল করেন।
অর্থমন্ত্রী বিদায়ী ভাইস-প্রেসিডেন্টকে শুভেচ্ছা জানিয়ে তার কর্মকালীন বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রকল্পে, বিশেষতঃ করোনাকালীন বাজেট সহায়তা, কোভিড মোকাবেলা এবং কোভিড ভ্যাকসিন ক্রয়ে অর্থায়নের জন্য ধন্যবাদ জানান। অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে করোনাকালীন সময়ে গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপসহ দেশের উন্নয়নে গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের উল্লেখ করেন। ভিশন ২০৪১ কে সামনে রেখে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপে এগিয়ে এসে উন্নয়নের অংশীদার হতে এসময় তিনি বিশ্বব্যাংককে অনুরোধ জানান। ঢাকাকে আরো বাসযোগ্য করে গড়ে তুলতে বিশ্বব্যাংক বিভিন্ন দেশের অভিজ্ঞতা বিনিময় করতে পারে বলেও তিনি জানান। এছাড়া, দক্ষতা উন্নয়নে, কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে, স্বাস্থ্যখাতে উদ্ভাবনী সমাধান নিয়েও বিশ্বব্যাংক কাজ করতে পারে। এসময় তিনি সরকারের নতুন সার্বজনীন পেনশন ব্যবস্থা নিয়েও ভাইস-প্রেসিডেন্টকে অবহিত করেন। অর্থমন্ত্রী বিদায়ী ভাইস-প্রেসিডেন্টকে তার ভবিষ্যত জীবনের প্রতি শুভ কামনা জানিয়ে বাংলাদেশের প্রতি তার অবদানের জন্য তাকে ধন্যবাদ জানান।
দ্বিপক্ষীয় সভায় বিশ্বব্যাংকের ভাইস-প্রেসিডেন্ট হার্টউইগ শেফার বাংলাদেশের ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা করে বলেন, বাংলাদেশ বিভিন্ন অর্থনৈতিক এবং সামাজিক নির্দেশকে বিভিন্ন প্রতিবেশি দেশের থেকে বর্তমানে অনেক এগিয়ে রয়েছে, বিশেষতঃ করোনা মোকাবেলায় বাংলাদেশের বিভিন্ন সময়োচিত পদক্ষেপেরও প্রশংসা করেন। বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল ডেভলপমেন্ট এসোসিয়েশন (আইডিএ) এর সবচেয়ে বড় গ্রহীতা হিসেবে বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশের সাথে আরো নিবিড়ভাবে কাজ করে যাবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।
দ্বিপক্ষীয় এই সভায় উপস্থিত ছিলেন বিশ্বব্যাংকের বিকল্প নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ শফিউল আলম; অর্থ বিভাগের সিনিয়র সচিব আব্দুর রউফ তালুকদার, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব শেখ মোহাম্মদ সলীম উল্লাহ, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব আবদুল বাকী, বিশ্ব ব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর মারসি টেম্বন এবং অপারেসন্স ম্যানেজার ড্যানড্যান চেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন