রোববার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৪ শাবান সানি ১৪৪৫ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ঋণের ভারে জর্জরিত দেশ দেউলিয়া হওয়ার পথে : ভিপি নুর

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ জুলাই, ২০২২, ১২:০৭ এএম

গণঅধিকার পরিষদের সদস্য সচিব ও ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর বলেছেন, প্রকল্প বাস্তবায়নের ঋণ নিয়ে সরকার দেশের অর্থনীতির বারোটা বাজিয়েছে। ঋণের ভারে জর্জরিত করে আজকে দেশকে দেউলিয়াত্বের পথে নিয়ে যাচ্ছে। রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গতকাল বাংলাদেশ প্রবাসী অধিকার পরিষদ আয়োজিত এক মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সিন্ডিকেট হটিয়ে সরকারের নির্ধারিত খরচে মালয়েশিয়ায় কাজের সুযোগের দাবিতে এই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।
নুর বলেন, আগামীকাল যদি সরকার ক্ষমতা হস্তান্তর করে আমাদের হাতে, সহজ কথা আমরাও দেশ চালাতে হিমশিম খাবো। তিন লাখ ৪০ হাজার কোটি টাকার ঋণের কিস্তি ২০২৪ সাল থেকে বাংলাদেশকে দিতে হবে।
তিনি বলেন, বিশেষজ্ঞরা বলছেন দেশ দেউলিয়া হওয়ার পথে। কারণ যেখানে চারদিন আগে অর্থমন্ত্রী বলেছিলেন আইএমএফের কাছ থেকে ঋণ নেবো না, প্রয়োজন হলে ঋণ নেব। তার চারদিনের মাথায় আমরা দেখলাম আইএমএফের কাছে ৪৫০ কোটি ডলার ঋণ চেয়েছে, জাপানি উন্নয়ন সংস্থা জাইকার কাছ থেকে ৫০ কোটি ডলার ঋণ চেয়েছে। এভাবে বিভিন্ন দাতা সংস্থাগুলোর কাছ থেকে ঋণ চেয়েছে। চারদিন আগে যে কথা বলেছেন চারদিন পরই তাদের কথা ও কাজের মিল নাই।
বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির প্রেক্ষাপট তুলে ধরে ডাকসুর সাবে ভিপি বলেন, যদি কোনো রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করে তাহলে যার যা কিছু আছে তা নিয়ে থানা পুলিশ ঘেরাও করবেন। সরকার আলেম ওলামাদের চরিত্রের উপর কালিমা লেপন করে মিথ্যা মামলায় বন্দি করে রেখেছে। যদি তাদের মুক্তি না দেওয়া হয় তাহলে আমরা সারাদেশের মানুষকে নিয়ে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলবো।
সরকারপ্রধানের সমালোচনা করে নুর বলেন, প্রধানমন্ত্রী শুধু হিংসাত্মক কথা বলেন। ভোট ডাকাতি করে ক্ষমতায় থাকলেও তিনি বলেন আমরা জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়েছি। এ ধরনের মিথ্যাচার পুরো জাতিকে হতভম্ব করে।
এসময় মালয়েশিয়াগামী প্রবাসীদের নানা দুর্ভোগের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, সিন্ডিকেট হটিয়ে সরকারনির্ধারিত ৭৮ হাজার ৯০০ টাকায় মালয়েশিয়ায় অভিবাসনপ্রত্যাশী বেকারদের কাজের সুযোগ করে দিতে হবে। অভিবাসন ব্যয় ১ লাখ টাকার মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখতে হবে। মালয়েশিয়াগামী প্রবাসীদের সংকটের সমাধান না হলে প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয় ঘেরাও করা হবে।
বাংলাদেশ প্রবাসী অধিকার পরিষদের সভাপতি মো. কবীর হোসেনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন গণঅধিকার পরিষদের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক মাহফুজুর রহমান খান, যুগ্ম আহ্বায়ক শাকিলুজ্জামান, মালেক ফরায়েজি, যুগ্ম সদস্য সচিব তারেক রহমান, বাংলাদেশ প্রবাসী অধিকার পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এস এম সাফায়েত হোসেন প্রমুখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন