সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১ আশ্বিন ১৪২৯, ২৯ সফর ১৪৪৪

জাতীয় সংবাদ

আবাসিক হোটেলে নারী চিকিৎসককে গলাকেটে হত্যা

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১২ আগস্ট, ২০২২, ১২:০৩ এএম

রাজধানীর পান্থপথের ফ্যামিলি সার্ভিস অ্যাপার্টমেন্ট আবাসিক হোটেল থেকে জান্নাতুল নাঈম সিদ্দীক নামে একজন নারী চিকিৎসকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বিয়ে করতে রাজি না হওয়ায় তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ। তার শরীরে অসংখ্য কাটা দাগ পাওয়া গেছে। গলাসহ সারা শরীরের কাটা দাগগুলো ধারালো অস্ত্রের। সিটি ব্যাংকের সাবেক কর্মকর্তা রেজাউল করিম রেজার সঙ্গে ওই নারী চিকিৎসকের দীর্ঘ দিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল।

গতকাল পর্যন্ত পুলিশ এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। গত বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ওই হোটেল থেকে নারী চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে ময়নাতদন্ত শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

ডিএমপি ডিসি ফারুক হোসেন ইনকিলাবকে বলেন, এ ঘটনায় নিহতের বাবা শফিকুল আলম বাদী হয়ে নিহত জান্নাতুলের ‘বয়ফ্রেন্ড’ রেজাউল করিম ও অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে কলাবাগান থানায় একটি মামলা করেছেন। মামলা নম্বর-১০। সিটি ব্যাংকের সাবেক কর্মকর্তা রেজাউল করিম রেজার সঙ্গে ভুক্তভোগী ওই নারী চিকিৎসকের দীর্ঘ দিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু কী কারণে হত্যা করা হলো সে বিষয়টি পরিষ্কার না। তবে ধারণা করা হচ্ছে দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্কের পর মেয়ের পরিবার তাদের বিয়েতে রাজি হচ্ছিল না।

তিনি আরো বলেন, বর্তমানে সিটি ব্যাংকের সাবেক কর্মকর্তা রেজাউল করিম রেজা বেকার ছিলেন। কিন্তু সিটি ব্যাংক থেকে তার চাকরি চলে যাওয়ার কারণ এখনও জানা যায়নি। তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। তার গ্রেপ্তারের পরেই এই বিষয়ে বিস্তারিত জানা যাবে।

জানা গেছে, জান্নাতুল মগবাজার কমিউনিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে এমবিবিএস পাস করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে স্ত্রী ও গাইনি বিষয়ে একটি কোর্সে অধ্যয়নরত ছিলেন।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, জান্নাতুল স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে ওই আবাসিক হোটেলে রেজাউল করিম রেজা নামের এক ব্যক্তির সঙ্গে উঠেছিলেন। এরপর রাতে পুলিশকে খবর দিলে হোটেলটির চতুর্থ তলার ৩০৫ নম্বর কক্ষের বিছানার ওপর থেকে ছুরিকাহত ও গলাকাটা অবস্থায় জান্নাতুল নাঈমের উদ্ধার করা হয়। সিআইডি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আলামত সংগ্রহ করেছে।

সুরতহালে কলাবাগান থানার এসআই নার্গিস আক্তার উল্লেখ করেন, নিহতর থুঁতনিতে, ঠোঁটে, গলায় সাড়ে ৮ ইঞ্চি, বাঁ কাঁধে দেড় ইঞ্চি, দুই বৃদ্ধাঙ্গুলিতে, বুকের মাঝখানে, পেটে ৬টি কাটা জখম রয়েছে। এছাড়া তার পিঠে, বাঁ পায়ে হাঁটুর ওপর ও নিচে ছেঁড়া-কাটার দাগ আছে। নিহতের গ্রামের বাড়ি নরসিংদীর মনোহরদি উপজেলার চন্দন বাড়ি গ্রামে। তারা বর্তমানে রাজারবাগ ২ নম্বর মোমেনবাগ দোলনচাঁপা ভবনে বসবাস করেন। নিহতের বাবা মো. শফিকুল আলম একজন অবসরপ্রাপ্ত চিকিৎসক।

এদিকে গতকাল রাতে প্রেমিক রেজাকে চট্টগ্রাম থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
salman ১২ আগস্ট, ২০২২, ২:৩১ এএম says : 0
Kuku'r ta k Cross fire kora uchit
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন