মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯, ১৫ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

লাসা, তিব্বতে কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ

চীনের কিছু অংশে কোভিড লকডাউন প্রসারিত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৩ আগস্ট, ২০২২, ১২:০০ এএম

চীনের পর্যটনকেন্দ্র হাইনানের কয়েকটি শহর শুক্রবার লকডাউন বাড়িয়েছে। অন্যদিকে তিব্বতের লাসাও কভিড বিধিনিষেধে আরো কড়াকড়ি আরোপ করেছে। ‘ডাইনামিস কোভিড জিরো’ নীতির অধীনে প্রতিটি প্রাদুর্ভাব দ্রুত ছড়িয়ে পড়া বন্ধের লক্ষ্যে স্থানীয় সরকারগুলো সংক্ষিপ্ত লকডাউন আরোপ করেছে, যেখানে কয়েক দিন বা সপ্তাহের জন্য লোকেদের অপ্রয়োজনীয় চলাচলে বাধা দেওয়া হচ্ছে।
বসন্তে সাংহাইয়ের মতো টানা দুই মাসের ভাইরাস যুদ্ধের তুলনায় এই ধরনের লকডাউন কম ক্ষতিকর, তবে চীন জুড়ে ওমিক্রনের ক্রমবর্ধমান বিস্তার অন্যান্য শহরগুলোতেও ছড়িয়ে পড়তে পারে যা স্থানীয় ব্যবসায় ব্যাঘাত ঘটাতে পারে। দক্ষিণাঞ্চলীয় হাইনান প্রদেশে বর্তমানে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ দুইটি শহর ডংফাং এবং চেংমাই গতকাল শুক্রবার লকডাউন বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে, যার মোট জনসংখ্যা প্রায় ৯ লাখ। বর্ধিত এ লকডাউন হতে পারে এক সপ্তাহের কাছাকাছি।
হাইনানের প্রাদেশিক রাজধানী হাইকো শুক্রবার তার ২ ৯ লাখ জনসংখ্যাকে স্থানীয় সময় সকাল ৭টা থেকে ৬টা পর্যন্ত লকডাউনে রাখে। সোমবার, বুধবার এবং বৃহস্পতিবারও একই রকম বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছিল। এছাড়া লকডাউন তুলে নেওয়ার স্পষ্ট তারিখ ছাড়াই সান্যাসহ হাইনানের অন্যান্য শহরগুলোতে কয়েক মিলিয়ন লোক লকডাউনের অধীন রাখা হয়।
কোভিড কর্মীরা প্রধান শহুরে এলাকায় জীবাণুমুক্তকরণের কাজ করায় তিব্বতের পশ্চিম অঞ্চলে বৃহত্তম শহর লাসার বাসিন্দাদের শুক্রবার এবং সোমবারের মধ্যে জরুরী প্রয়োজন ছাড়া বাইরে যেতে না করা হয়। হাইনান এবং তিব্বতের বাইরের ছোট শহরগুলোর মধ্যে দক্ষিণ-পূর্ব প্রদেশ জিয়াংজির ফেংচেং এবং পশ্চিমাঞ্চলীয় জিনজিয়াংয়ের কুকা তার বাসিন্দাদের নতুন লকডাউনে অপ্রয়োজনীয়ভাবে বাড়ি থেকে বের না হওয়ার জন্য প্রচারণা চালায়। ন্যাশনাল হেলথ কমিসন শুক্রবার জানিয়েছে, মেনল্যান্ড চায়না ১১ আগস্ট ১,৮৫১টি অভ্যন্তরীণভাবে নতুন করোনভাইরাস সংক্রমণের খবর দিয়েছে, যার মধ্যে ৬৪৮টি লক্ষণযুক্ত এবং ১,২০৩টি উপসর্গবিহীন ছিল।
এসব নতুন সংক্রমণ এক ডজনেরও বেশি প্রদেশ, অঞ্চল এবং পৌরসভা জুড়ে শনাক্তের অংশ, তবে বেশিরভাগ হাইনানের। তবে দেশটিতে নতুন কোনো প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি। সূত্র : ট্রিবিউন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন