সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সাফজয়ী ফুটবলারদের লাগেজ থেকে ডলার চুরি

চুরির অভিযোগের সত্যতা মেলেনি-বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের দাবি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:০৩ এএম

তদন্তে মাঠে নেমেছে একাধিক সংস্থা
সাফজয়ী নারী ফুটবলারদের লাগেজ থেকে চুরি হওয়া ডলার ও টাকাসহ আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ৮টা পর্যন্ত পর্যন্ত উদ্ধার হয়নি। এ ঘটনায় ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) পক্ষ থেকে মতিঝিল ও বিমানবন্দর থানায় জিডি করা হয়েছে। ইতিমধ্যে তদন্ত শুরু করেছে এপিবিএন, বিমানবন্দরে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা গোয়েন্দা সংস্থা, পুলিশের একাধিক ইউনিট ও র‌্যাব। বাফুফে আনুষ্ঠানিকভাবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও সিভিল এভিয়েশনকেও চিঠি দিয়েছে।

তবে হযরত শাহজালাল (রহঃ) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের দাবি, তারা বিমানবন্দরে সাফ জয়ী নারী ফুটবলারদের লাগেজে চুরির প্রমাণ পায়নি। ফুটবলারদের লাগেজে থাকা অর্থ নিয়ে উল্টো প্রশ্ন তুলেন বিমান বন্দরের কোনো কোনো কর্মকর্তা। তারা বলেন, মেয়েরা এত ডলার কিংবা টাকা কোথায় পেল। মেয়েদের নগদ অর্থ সাথে না রেখে লাগেজে রাখা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন কর্মকর্তারা।

গত বুধবার নেপাল থেকে ঢাকায় ফেরার পর হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দুই ফুটবলার কৃষ্ণা রানী সরকারের লাগেজের তালা ভেঙে ৯০০ মার্কিন ডলার ও ৫০ হাজার টাকা এবং শামসুন্নাহারের লাগেজ কেটে ৪০০ মার্কিন ডলারসহ কিছু মূল্যবান জিনিসপত্র চুরি হয়। ভুক্তভোগী দুই নারী ফুটবলার ও বাফুফে শুরু থেকেই ডলার ও টাকা খোয়া যাওয়ার বিষয়টি অভিযোগ করে আসছেন। কিন্তু বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ বিষয়টি অস্বীকার করে আসছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তারা নারী ফুটবলারদের লাগেজ চুরির অভিযোগের সত্যতা পায়নি।

বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক গ্রæপ ক্যাপ্টেন মো. কামরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ সিসিটিভি ফুটেজ পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ করেছে। সিসিটিভি বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত বুধবার দুপুর ১টা ৪২ মিনিটে বিজি-৩৭২ ফ্লাইট কাঠমান্ডু থেকে এসে ঢাকায় অবতরণ করে। ১টা ৫৮ মিনিটে ব্যাগেজ মেকআপ এরিয়ায় ট্রলি আসে। ১টা ৫৯ মিনিটে ব্যাগেজ মেক আপ এরিয়ায় প্রথম লাগেজ ড্রপ হয়। ২টায় কনভেয়ার বেল্ট ৮ এ প্রথম লাগেজ ড্রপ হয়। ২টা ৮ মিনিটে ব্যাগেজ মেক আপ এরিয়ায় শেষ ব্যাগেজ ড্রপ হয়। পরে বাফুফে প্রটোকল প্রতিনিধি ও দুজন টিম অফিসিয়াল কর্তৃক লাগেজ ট্যাগ চেক করে সম্প‚র্ণ অক্ষত এবং তালাবন্ধ অবস্থায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে লাগেজগুলো বুঝে নিয়ে বিমানবন্দর ত্যাগ করেন।

পরে বাফুফের প্রটোকল প্রতিনিধি ইমরান এবং বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম থেকে ফুটবল দলের দুই নারী ফুটবলারের লাগেজ থেকে অর্থ চুরির অভিযোগ পাওয়া যায়।
বিমানবন্দরে দায়িত্বরত এপিবিএন’ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জিয়াউল হক পলাশ বলেন, বিষয়টি স্বপ্রণোদিত হয়ে তদন্ত করছে এপিবিএন। একইভাবে ডিবি উত্তরা বিভাগের ডিসি মো. আকরামুল হোসেন বলেন, এরই মধ্যে ডিবির ইউনিট কাজ শুরু করেছে।

র‌্যাবের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, জয়ী দলের সদস্যের অর্থ চুরির ঘটনা দুঃখজনক এবং মর্মান্তিক। এ ঘটনার সঙ্গে যে বা যারাই জড়িত তাদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনতে র‌্যাব গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করেছে। এছাড়া বিমানবন্দর ও এর আশপাশের এলাকার একাধিক সিসিটিভি ফুটেজ পর্যালোচনা করা হচ্ছে।

কৃষ্ণা রানী সরকার ও শামসুন্নাহারের লাগেজ থেকে ডলার, টাকা ও মালামাল খোয়া যাবার বিষয়টি জানতে পেরে নড়েচড়ে বসেছেন বাফুফে কর্মকর্তারা। এবার আনুষ্ঠানিক পদক্ষেপ নিল তারা। গতকাল বাফুফে ভবনে এক অনানুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে নারী উইংয়ের চেয়ারম্যান মাহফুজা আক্তার কিরণ বলেন, আমরা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স, সিভিল এভিয়েশনকে আনুষ্ঠানিক চিঠি দিয়েছি। এছাড়া মতিঝিল থানা ও বিমানবন্দর থানায়ও জিডি করা হয়েছে। তিনি যোগ করেন, ছোট মেয়েদের জন্য এটা অনেক বড় অর্থই। যদি শেষ পর্যন্ত শনাক্ত না হয় তাহলে আমরাই এটা মেয়েদের দেব। বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ বলেন, বিমানবন্দর অথরিটি ও সিভিল এভিয়েশন ইতোমধ্যে তদন্তের কাজ শুরু করছে। এছাড়া বাফুফে ভবনের সিসিটিভি ফুটেজও দেখা হবে প্রয়োজনে।

 

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন