রোববার ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

অনুমোদনের দশ দিনেও দায়ের হয়নি মামলা

বিআইডবিøউটিএ’র চেয়ারম্যানসহ ১৩ আসামি

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৫ অক্টোবর, ২০২২, ১২:০০ এএম

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডবিøউটিএ)’র চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেকসহ ১৩ কর্মকর্তা এবং ইজাদারদের বিরুদ্ধে মামলা অনুমোদন হয়েছে ২৪ সেপ্টেম্বর। অনুমোদনের ১০ দিন অতিক্রান্ত হলেও গতকাল পর্যন্ত দায়ের হয়নি কোনো মামলা। বিষয়টিকে ‘রহস্যজনক’ বলে মনে করছেন খোদ দুদক কর্মকর্তারাই।
দুদকের নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, মামলার অনুমোদন দেয়ার পরপরই কমিশনের ওপর নেমে আসে অদৃশ্য চাপ। ‘উপরমহল’ থেকে মামলা থেকে বিরত থাকতে তদবির আসতে থাকে। আর এ চাপের মুখেই স্বশাসিত স্বাধীন এ সংস্থাটি মামলা দায়ের থেকে নিবৃত থাকে। যা কমিশন প্রতিষ্ঠার ইতিহাসে এক নজিরবিহীন ঘটনা। এর আগে গত ২৪ সেপ্টেম্বর কমিশন মামলাটির অনুমোদন দেয়। অনুমোদনপত্রে বিআইডবিøটিএ’র চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেক ছাড়াও প্রতিষ্ঠানটির সদস্য দেলোয়ার হোসেন, ২ পরিচালক আবু জাফর হাওলাদার, ওয়াকিল নওয়াজ, অতিরিক্ত পরিচালক সাইফুল, যুগ্ম পরিচালক জুলফা খানম, উপ-পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান, তৎকালিন তিন উপ-পরিচালক সেলিম রেজা, কবির হোসেন, মাসুদ পারভেজের নাম রয়েছে আসামি হিসেবে। তাদের সঙ্গে ইজারাদার এজাজ আহমেদ সোহাগ,সাইফ আহমেদ ইমন এবং রফিকুল ইসলাম খানকেও আসামি করা হয়।
অনুমোদিত এজাহারে আসামিদের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহার,পরষ্পর যোগসাজশন এবং শুল্ক আদায় কেন্দ্র’র ইজাদারদের সহযোগিতায় সরকারের ৬ কোটি ৮১ লাখ ৫৩ হাজার টাকার বেশি আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়।
আরিচার নগরবাড়ি,কাজিরহাট, নরাদহ নদী বন্দরে ইজারা প্রদানের ক্ষেত্রে কোনো নিয়ম-নীতি মানা হয়নি। এভাবে ২০২০-২১ এবং ২০২১-২২ এ দুই অর্থবছরে দুর্নীতির মাধ্যমে ইজারা দিয়ে ৬ কোটি ৮০ লাখ টাকার বেশি সরকারকে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে-মর্মে অনুসন্ধান প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।
দুদকের উপ-সহকারি পরিচালক আলিয়াজ হোসেন বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করার কথা ছিলো। শেষ পর্যন্ত কেন মামলা দায়ের করা হয়নি-জানতে দুদক সচিব মো: মাহবুব হোসেনের বক্তব্য নেয়ার চেষ্টা করা হয়। তবে তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন