বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯, ১৭ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

ইসলামী বিশ্ব

আজান ধ্বনিতে মুগ্ধ অমুসলিমরা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ ডিসেম্বর, ২০২২, ১২:০০ এএম

চলতি বছরের ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হচ্ছে বিশ্বের অন্যতম ছোট দেশগুলোর একটি কাতারে। বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই ক্রীড়া ইভেন্ট উপভোগে সারা বিশ্বের লাখ লাখ ফুটবল ভক্তের উপস্থিতি এখন এই দেশটিতে। জাঁকজমক ফুটবল আয়োজনে মানুষকে মাতিয়ে রাখার পাশাপাশি ইসলামও প্রচার করছে কাতার। মূলত বিশ্বকাপ আয়োজনের সুবিধা কাজে লাগিয়ে ইসলাম সম্পর্কে মন পরিবর্তন করতে বা এমনকি ধর্মান্তরিত করার জন্য হাজার হাজার অমুসলিম দর্শনার্থীর কাছে শান্তির এই ধর্ম প্রচার করছে দেশটি। এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা এএফপি। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইসলাম সম্পর্কে মন পরিবর্তন করতে বা এমনকি ধর্মান্তরিত করার জন্য কয়েক হাজার দর্শনার্থীর কাছে পৌঁছানোর জন্য বিশ্বকাপকে কাজে লাগিয়েছে গর্বিত মুসলিম দেশ কাতার। মূলত মধ্যপ্রাচ্যের উপসাগরীয় এই দেশটি হলো প্রথম কোনও মুসলিম দেশ যারা ফুটবল বিশ্বকাপের মতো বিশাল ইভেন্ট আয়োজন করেছে। আর এই আয়োজন উপভোগে সারা বিশ্বের লাখ লাখ ফুটবল ভক্ত মধ্যপাচ্যের এই ধনী দেশটিতে পৌঁছেছেন এবং তাদের মধ্যে অমুসলিম দর্শকদের কাছেই ইসলামকে পরিচিত করিয়ে দিচ্ছে কাতার। এএফপি বলছে, কানাডিয়ান দম্পতি ডোরিনেল এবং ক্লারা পোপা কাতারের রাজধানী দোহার কাতারা সাংস্কৃতিক জেলায় অবস্থিত অটোমান-শৈলীর একটি মসজিদে নামাজের আযান শোনেন। দেয়ালে নীল ও বেগুনি রঙের টাইলসের চমৎকার মোজাইক থাকার কারণে এই মসজিদটি দোহার ব্লু মসজিদ নামে পরিচিত। মসজিদের সামনে যাওয়ার পর একজন গাইড কানাডীয় এই দম্পতিকে স্থাপনা ঘুরে দেখাতে ভেতরে নিয়ে যান। ৫৪ বছর বয়সী পেশায় অ্যাকাউনটেন্ট ডোরিনেল পোপা বলছেন, কাতারে এসে তারা প্রথমবার ইসলাম সম্পর্কে জানলেন। তিনি বলছেন, বিশ্বের বিভিন্ন সংস্কৃতি ও মানুষ সম্পর্কে আমাদের নানা কুসংস্কার আছে। আর সেগুলো মূলত অন্যদের কাছে (কোনও বিষয়বস্তু সম্পর্কে) প্রকাশের অভাবের কারণেই।’ ডোরিনেল পোপার স্ত্রী ক্লারা পোপা পেশায় একজন চিকিৎসক। ৫২ বছর বয়সী ক্লারা বলছেন, ‘(ইসলাম সম্পর্কে) আমাদের মাথায় কিছু ধারণা ছিল এবং এখন হয়তো সেগুলো পরিবর্তন হবে।’ এএফপি। কাতারের রিলিজিয়াস এনডোমেন্টস মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা এএফপিকে বলেছেন, ‘ইসলামে ধর্মান্তরিতদের সংখ্যা নয়, বরং যারা এই ধর্ম সম্পর্কে যারা নিজেদের মতামত পরিবর্তন করছেন তাদের সংখ্যাই’ কাতারের লক্ষ্য। এএফপি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Abu Taher Mohmmed Kader Siddiky ৯ ডিসেম্বর, ২০২২, ৩:৫২ পিএম says : 0
কাতারকে এই ধরনের মানষিকতা নিয়ে আরো বড় ধরনের আয়োজক হবার তাউফিক দান করুন । - আমীন
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন