বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৫ মাঘ ১৪২৯, ১৬ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

জাতীয় সংবাদ

বিএনপির জনসভার স্থান নিয়ে সরকারের অবস্থান ব্যর্থতা ঢাকার অপচেষ্টা

সংবাদ সম্মেলনে বাম গণতান্ত্রিক জোট

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৯ ডিসেম্বর, ২০২২, ১২:৫৬ পিএম

বিএনপির ১০ ডিসেম্বর ঢাকা সমাবেশকে কেন্দ্র করে জনসভার স্থান নিয়ে সরকার বাকযুদ্ধে লিপ্ত হয়ে মূল সমস্যা থেকে জনগণের দৃষ্টি আড়াল করে দেশের সম্পদ লুন্ঠন, ব্যাংক ডাকাতি, অর্থপাচার, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধিসহ জনজীবনের সংকট নিরসনে সরকার তার ব্যর্থতা ঢাকার অপচেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেছে বাম গণতান্ত্রিক জোট।

আজ সকালে রাজধানীর মৈত্রী মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেছে তারা। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ১০ তারিখের সমাবেশকে ঘিরে গণগ্রেপ্তার ও গায়েরী মামলা দায়েরে জনমনে চরম উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠা বিরাজ করছে। এহেন পরিস্থিতিতে পুলিশের বিএনপি কার্যালয়ে হামলা, গুলি করে হত্যা, নেতৃবৃন্দকে গ্রেপ্তার করে রাজনৈতিক পরিস্থিতি যেমন আরও সংঘাতময় করে তুললো তেমনি এই ঘটনায় সরকারের ফ্যাসিবাদী চরিত্র আরেকবার উন্মোচিত হলো। পাল্টাপাল্টি বাকযুদ্ধের পরে গতকাল রাতে জনসভার স্থান নিয়ে সমঝোতায় আসার খবর শুনে মানুস যখন স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছিল তার পরেই গভীর রাতে মির্জা ফখরুলসহ নেতৃবৃন্দকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় পুনরায় জনমনে উৎকণ্ঠা বেড়ে গিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরো জানানো হয়, বিরোধী দলসমূহের প্রতি সরকারের এহেন আচরণ, না সিপিবি সমাবেশে সরকার দলীয় সন্ত্রাসী ও পুলিশের হামলা, বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশে বাস, ট্রাক, লঞ্চ, থ্রি-হুইলার বন্ধ করে বাধা সৃষ্টি এবং ১০ ডিসেম্বর বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সমাবেশকে কেন্দ্র করেও সরকার পুলিশের ন্যাকারজনক ভূমিকা এবং যুদ্ধাংদেহী মনোভাব গোটা দেশের জনগণের মধ্যে চরম উৎকণ্ঠার সৃষ্টি কে আমরা অবিলম্বে সরকার ও পুলিশ কর্তৃক বিরোধী মত দমনের পথ পরিবহার করে শান্তিপূর্ণভাবে রাজনৈতিক দলের সভা-সমাবেশ করতে দেয়ার জোর দাবি জানাচ্ছি। একই সাথে বিএনপি অফিসে হামলা, টিয়ার সেল নিক্ষেপ ও হত্যাকাণ্ডে সাথে জড়িত নারী পুলিশের বিচার এ রকৃত নেতৃবৃন্দের মুক্তি, নিহতের পরিবারকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ, আহতদের সুচিকিৎসা প্রদান এর গায়েবী মামলা বন্ধের জোর দাবি জানাই।

আরো জানানো হয়, আমরা ২০১৪, ২০১৮ সালের নির্বাচনে নজীরবিহীন জালিয়াতি ও ভোট ডাকাতির দৃষ্টান্ত সৃষ্টিকারী শেখ হাসিনার সরকারকে অবিলম্বে পদত্যাগ করে, সংসদ ভেঙে দিয়ে সংখ্যানুপাতিক নির্বাচন পদ্ধতি নির্বাচ সংস্কার করে নির্দলীয় তদারকি সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি জানাচ্ছি। এক সরকারকে উৎখাত করে অনগণের ভোট ও ভাতের অধিকার প্রতিষ্ঠায় সকল নাম-গণতান্ত্রিক শক্তি বাতিকে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানাচ্ছি।

উপরোক্ত দাবিতে দেশব্যাপী ১৩ ডিসেম্বর প্রতিবাদ ও বিক্ষোত দিবস পালনের কর্মসূচি ঘোষণা দিয়েছে জোটটি। একই দিন বিকেল ৪টায় পল্টন মোড়ে সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠাননের ঘোষণা দিয়েছেন তারা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন