বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৫ বৈশাখ ১৪৩১, ০৮ শাওয়াল ১৪৪৫ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

এই সরকার উগ্রবাদী তা সারাবিশ্বে প্রমাণিত

বিক্ষোভ সমাবেশে ভিপি নুর

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ ডিসেম্বর, ২০২২, ১২:০৫ এএম

গণঅধিকার পরিষদের সদস্য সচিব ও ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর বলেছেন, এই সরকার যে একটি জঙ্গি ও উগ্রবাদী সরকার তা আজ সারাবিশ্বে প্রমাণিত। জঙ্গিরা নিজের মতামত জোর করে প্রতিষ্ঠিত করতে চায়, নিজের মতামত অন্যের ওপর চাপিয়ে দিতে চায়। ঠিক একই ভাবে এই সরকারও জঙ্গিদের মতো আচরণ করছে। পাশাপাশি তাদের এই জঙ্গিবাদকে জায়েজ করার জন্য বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের ওপর দায় চাপাচ্ছে।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গতকাল গণঅধিকার পরিষদ আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনকালে মাগুরা, পাবনা, ময়মনসিংহ, খুলনা, বাগেরহাট ও গোপালগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে গণঅধিকার পরিষদ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের ওপর আওয়ামী সন্ত্রাসীদের বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে এই বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

সমাবেশে নুরুল হক নুর বলেন, ১০ ডিসেম্বর বিএনপির সমাবেশের দিন আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা মাস্তান-সন্ত্রাসীদের মতো পাড়ার মোড়ে মোড়ে টহল দিয়েছে। যাতে বিরোধী দলের নেতাকর্মীরা সভা সমাবেশে যোগ দিতে না পারে। এমনকি তারা মানুষের ব্যক্তিগত নিরাপত্তা লঙ্ঘন করে মোবাইলের গ্যালারিতে পর্যন্ত ঢুকেছে। তাই আমরা জনগণকে সতর্ক করে বলে দিতে চাই, আজকে আওয়ামী লীগ এবং তার উচ্ছিষ্টভোগীরা অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলেরর জন্য যেভাবে বেপোরোয়া উন্মাদে পরিণত হয়েছে, জনগণ যদি এদেরকে প্রতিহত করতে না পারে, এদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে না পারে, তাহলে বেডরুমেও কেউ সুরক্ষিত থাকবেন না।

তিনি বলেন, সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনিকে বেডরুমে ঢুকে হত্যা করা হয়েছে। সেই হত্যাকাণ্ডের প্রতিবেদন দেওয়ার সময় ৯৩ বার পিছিয়েছে। বুয়েট ছাত্র ফারদিন হত্যা নিয়ে একবার বলছে সব আসামিরা চিহ্নিত, তারা যে কোনো সময় অ্যাকশনে যাবে। আবার বলছে, চনপাড়া বস্তিতে মাদক কারবারিদের হাতে ফারদিন নিহত হয়েছে। আবার বলছে, তিনি আত্মহত্যা করেছেন। যে ডিবি এবং র‌্যাব একেক সময়ে একেক রিপোর্ট দেয়, তাদের তদন্তে জনগণ আস্থা রাখতে পারে না। পুলিশকে একটি দলীয় বাহিনীতে পরিণত করা হয়েছে অভিযোগ করে সাবেক এই ছাত্রনেতা বলেন, র‌্যাবকে ডেথ স্কোয়াডে পরিণত করা হয়েছে। সামরিক বাহিনীকেও দিনদিন নষ্ট করা হচ্ছে। দেশে এ ধরনের নৈরাজ্য চলছে কথিত মুক্তিযুদ্ধের চেতনাধারী আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে। যারা গত ১৩ বছরে বিনা ভোটে ভারতের সহযোগিতায় এ দেশের মানুষের ওপর দমন-পীড়ন চালিয়েছে, এ দেশের মানুষের স্বাধীনতাকে ভারতের হাতে জিম্মি করে দিয়েছে।

এই সরকারের হাতে বিদেশি নাগরিকরাও নিরাপদ নয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, এতদিন দেশে গুম, খুন, হামলা, মামলার শিকার হয়েছে ভিন্ন মত ও বিরোধী দলের রাজনীতিকরা। অথচ কয়েকদিন আগে শাহীনবাগে গুম হওয়া এক ব্যক্তির পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যেয়ে মার্কিন রাষ্ট্রদূতও হামলার শিকার হতে যাচ্ছিলেন।
বিক্ষোভ সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক মো. রাশেদ খান, যুগ্ম আহ্বায়ক ফারুক হাসান, মালেক ফরাজী, সোহরাব হোসেন প্রমুখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন