রোববার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ৩০ আষাঢ় ১৪৩১, ০৭ মুহাররম ১৪৪৬ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

শেখ হসিনা ধ্বংসস্তূপে দাঁড়িয়ে সৃষ্টির কথা ভাবেন

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে ওবায়দুল কাদের

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ১২:০০ এএম

শেখ হাসিনার জন্যই বাংলাদেশের গণতন্ত্র শৃংখলা মুক্ত হয়েছে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, এদেশে গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠিত করতে শেখ হাসিনাকে সবচেয়ে বেশি চ্যালেঞ্জ অতিক্রম ও সংগ্রাম করতে হয়েছে। শেখ হাসিনার জন্যই বাংলাদেশের গণতন্ত্র শৃংখলা মুক্ত হয়েছে। গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবে সংরক্ষিত নারী আসনে জাতীয় পার্টির মনোনীত এমপি অধ্যক্ষ রওশন আরা মান্নান রচিত ‘দেশরত্ন শেখ হাসিনার স্বর্ণযুগ’ নামক গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, রাজনৈতিক পরিবর্তনের আধুনিক রূপকার শেখ হাসিনা। ১৪ বছরের সফল নেত্রী শেখ হাসিনা, এদেশের রাজনীতির একটি ইতিহাস।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের দেশে যারা নেতৃত্বদেন তাদের রাজনীতি জ্ঞানের স্বল্পতা রয়েছে। তারা অনেকেই বিভেদের রাজনীতি করে। শেখ হাসিনার কাছে শেখার অনেক কিছু রয়েছে। শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। তিনি বলেন, বর্তমান সময়ের সবচেয়ে বিচক্ষণ রাজনৈতিক এর নাম শেখ হাসিনা। যিনি ধ্বংস স্তুপের ওপর দাঁড়িয়ে সৃষ্টির কথা ভাবেন। শেখ হাসিনা পরবর্তী নির্বাচন নিয়ে ভাবেন না, তিনি ভাবেন আগামীর প্রজন্মের কাছে সুন্দর একটি দেশ উপহার দেওয়ার কথা ভাবেন।

পরিবর্তনের আরেক নাম শেখ হাসিনা উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, শেখ হাসিনার জন্যই বাংলাদেশের গণতন্ত্র শৃংখলা মুক্ত হয়েছে। বিএনপি গণতন্ত্রকে হত্যা করেছিলো ইতিহাস তা স্বাক্ষী দেয়। ভোট জালিয়াতি শুরু করেছিলো বিএনপি। তারা কীভাবে গণতন্ত্রের কথা বলে।
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপির টার্গেটই একদফা সরকার হটাও, ক্ষমতা দখল করো। বিএনপির দৃশ্যমান কোনো উন্নয়ন নেই যা দেশের মানুষকে দেখাতে পারবেন। তাহলে কী দেখে তাদেরকে মানুষ ভোট দেবে। তিনি বলেন, সাহস আর সততার জন্য শেখ হাসিনা নিজের টাকায় সেতু করেছেন। এদেশের গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠা করতে শেখ হাসিনাকে সবচেয়ে বেশি চ্যালেঞ্জ অতিক্রম ও সংগ্রাম করতে হয়েছে। শান্তিপূর্ণ ক্ষমতা হস্তান্তর আওয়ামী লীগই করেছে যা এদেশের জন্য দৃষ্টান্ত।

তত্বাবধায়ক সরকারের নামে কতগুলো চক্রান্তকারীদের দিয়ে শেখ হাসিনাকে পদে পদে অপদস্ত করা হচ্ছে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, বিএনপি তত্ত্বাবধায়ক সরকারে বিশ্বাস করে। কিন্তু তত্ত্বাবধায়ক সরকার এদেশে আর আসবে না। যতই চেষ্টা করুক না কেনো আমরা সংবিধানের বাইরে যাবো না। ক্ষমতার পরিবর্তন চাইলে নির্বাচন আসতেই হবে এর কোনো বিকল্প নেই।

বিএনপির পঞ্চাশ লাখ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে সরকার মামলা দিয়েছে? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, তাদের এতো নেতাকর্মীই তো নেই। এসময় তিনি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে বলেন পারলে জাতীর সামনে তালিকা দেন। বিএনপির সময় হাস্যকর মামলা হয়েছে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে। জ্বালাও পোড়াও করে করে দেশের সম্পদ নষ্ট করেছে তা সবার জানা। মির্জা ফখরুল খুনের মামলার আসামি, মাদক মামলার আসামির জন্যও বিবৃতি দেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন