ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

স্বাস্থ্য

একিউট সাইনুসাইটিস বা সাইনাসের তীব্র প্রদাহ

| প্রকাশের সময় : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ১২:০০ এএম

সাইনুসাইটিস একটি অতি সাধারণ রোগ। শতকরা পঁচিশ শতাংশ জনগণ উক্ত রোগে ভোগে থাকে। নাকের চারপাশে অস্থিসমূহে বাতাসপূর্ণ কুঠুরি থাকে যাদেরকে সাইনাস বলা হয়। সাইনুসাইটিস হলো উক্ত সাইনাসসমূহের ব্যাকটেরিয়াজনিত ইনফেকশন।
সাইনাসসমূহের কাজ :
মাথাকে হালকা রাখা
মস্তিষ্ককে আঘাত হতে রক্ষা করা
সাইনাসগুলো কণ্ঠস্বরকে অনুরণিত এবং সুরেলা করে
দাঁত ও চোয়াল গঠনে সহায়তা করে
মুখমÐল গঠনে সাহায্য করে
সাইনাসের প্রদাহের কারণসমূহ :
সাইনাসসমূহের প্রদাহের মধ্যে ম্যাগজিলারি সাইনাসের প্রদাহ সবচেয়ে বেশি হয়। নাকের ইনফেকশন থেকে শতকরা নব্বই ভাগ। উপরের দাঁতের ইনফেকশন যাহা উপরের চোয়াল থেকে ছড়ায় এবং ইহা ম্যাগজিলারি সাইনাস বা কুঠুরির কাছাকাছি অবস্থিত।
রোগের লক্ষণসমূহ :
নাকের পাশে, মাথার সামনের দিকে এবং মাথার দুই পাশে ব্যথা। মাথা ভারী হওয়া বা ভারী ভারী লাগা। নাক দিয়ে পানি পড়া। নাক বন্ধ থাকা। কাজকর্মে অনিহা।
চিকিৎসা :
সাইনাসের ইনফেকশনের জন্য প্রাথমিকভাবে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ সেবন করতে হবে। যেহেতু সাইনুসাইটিস একটি ব্যাকটেরিয়া জনিত অসুখ, ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী এন্টিবায়টিক খেতে হবে। ব্যথার জন্য ব্যথা নাশক ওষুধ খাওয়া যেতে পারে। নাকের ড্রপ এবং এন্টিহিস্টামিন জাতীয় ওষুধ নেয়া যায়। নাকে গরম পানির ভাব (মেনথল দিয়ে) নিলে অনেক উপকার পাওয়া যায়।
ষ অধ্যাপক ডাঃ এম আলমগীর চৌধুরী
নাক, কান, গলা বিশেষজ্ঞ সার্জন, বিভাগীয় প্রধান, ইএনটি বিভাগ, আনোয়ার খান মডার্ণ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল,
রোড ৮, ধানমন্ডি, ঢাকা, ০১৯১৯ ২২২ ১৮২
ধষধসমরৎ.পযড়ফিযঁৎু০৭@মসধরষ.পড়স

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন