মঙ্গলবার, ০৩ আগস্ট ২০২১, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৩ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

২০১৮ সনে দেড় লাখ হজযাত্রী হজে যাবেন-আলহাজ বজলুল হক হারুন এমপি

মানসম্পন্ন ট্রলিব্যাগ ক্রয় নিশ্চিত করতে হবে

| প্রকাশের সময় : ২০ জুলাই, ২০১৭, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : ধর্ম মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটি’র সভাপতি ও সউদী-বাংলাদেশ সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপের চেয়ারম্যান আলহাজ বজলুল হক হারুন এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিকনির্দেশনায় সুষ্ঠু ও সুন্দর হজ ব্যবস্থাপনার কার্যক্রম দ্রুত এগিয়ে চলছে। দেশের জনগণের অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নতি এবং সুষ্ঠু রাজনৈতিক পরিবেশ বিরাজ করায় প্রতি বছর হজযাত্রীর সংখ্যা বাড়ছে।
তিনি বলেন, আমরা সবুজ সংকেত পেয়েছি, ইন-শা আল্লাহ আগামী বছর (২০১৮) হজে বাংলাদেশ থেকে প্রায় দেড় লাখ হজযাত্রী হজ পালন করতে সউদী আরবে যাবেন। আলহাজ বজলুল হক হারুন এমপি বলেন, হজযাত্রীরা যাতে মানসম্পন্ন ট্রলিব্যাগ পায় তা নিশ্চিত করতে হবে। মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এ ব্যাপারে হাবকে দায়-দায়িত্ব নিতে হবে। গতকাল বুধবার ধর্মমন্ত্রী’র দপ্তরে হজ ব্যবস্থাপনার সার্বিক কার্যক্রম তদারকি কমিটির সভাপতি আলহাজ বজলুল হক হারুন এমপি’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ট্রলিব্যাগ ক্রয় সংক্রান্ত সভার পূর্বে প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি একথা বলেন। এতে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ধর্ম মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটি’র সদস্য আলহাজ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী এমপি, হাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি মাওলানা ইয়াকুব শরাফতী, সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম আরেফ ও মহাসচিব মোঃ শাহাদাত হোসাইন তসলিম, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব মোঃ হাফিজ উদ্দিন, যুগ্ম-সচিব হাফিজুর রহমান, পরিচালক হজ মোঃ সাইফুল ইসলাম, উপ-সচিব (হজ) শরাফত জামান।
সংসদীয় স্থায়ী কমিটি’র সভাপতি আলহাজ বজলুল হক হারুন এমপি বলেন, আগামী ২২ জুলাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হাজী ক্যাম্পে আনুষ্ঠানিকভাবে হজ কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন। প্রধানমন্ত্রী হাজী ক্যাম্পে আগত হজযাত্রীদের সাথে কুশল বিনিময় করবেন। আগামী ২৪ জুলাই থেকে প্রথম হজ ফ্লাইট শুরু হবে। তিনি বলেন, ২৪ জুলাই থেকে আগামী দশ দিনের হজ ফ্লাইটের সকল হজযাত্রী’র ট্রলিব্যাগ তৈরির কাজ সম্পন্ন হয়েছে। আলহাজ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী এমপি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ রয়েছে একজন হজযাত্রী যদি হজে যেতে না পারেন তার জন্য দায়ী ব্যক্তিকে কঠোর শাস্তি পেতে হবে। তিনি বলেন, মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মান সম্পন্ন ট্রলিব্যাগ হাজীদের কাছে সরবরাহ নিশ্চিতকরণে হাবকে দায়-দায়িত্ব নিতে হবে। বিনা টেন্ডারে ট্রলিব্যাগের টাকা কীভাবে হাবকে দেয়া হলো এমন প্রশ্নের জবাবে হাবের মহাসচিব শাহাদাত হোসাইন তসলিম বলেন, স্বল্প সময়ের মধ্যে ১ লাখ ২৩ হাজার হজযাত্রীর ট্রলিব্যাগ টেন্ডারের মাধ্যমে তৈরি করা সম্ভব নয়। হজ ফ্লাইট শুরুর মাত্র ১৪ দিন আগে ধর্ম মন্ত্রণালয় থেকে ট্রলিব্যাগের ৯ কোটি টাকা পাওয়া গেছে। হজনীতি অনুযায়ী ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের অনুমতি নিয়েই স্ব স্ব হজ এজেন্সিকে মানসম্পন্ন ট্রলিব্যাগ ক্রয়ের সুবিধা দেয়া হচ্ছে। ট্রলিব্যাগ বাণিজ্য নিয়ে কেউ যাতে দুর্নীতির সুযোগ না পায় সে জন্য স্ব স্ব হজ এজেন্সিগুলোকে প্রতিযোগিতামূলকভাবে ট্রলিব্যাগ ক্রয় করতে দেয়া হয়েছে। হাব মহাসচিব শাহাদাত হোসাইন তসলিম বলেন, ট্রলিব্যাগ ক্রয়ে ইতিপূর্বে অনেক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। হাবের ইসি জরুরী সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ীই স্বচ্ছ প্রক্রিয়া অনুসরণ করেই এজেন্সিগুলোকে ট্রলিব্যাগ ক্রয়ের নিদের্শ দেয়া হয়েছে। হজযাত্রীদের ট্রলিব্যাগ নিয়ে এবার কোনো দুর্নীতির সুযোগ নেই। এজেন্সিগুলো মানসম্পন্ন ট্রলিব্যাগ ক্রয় নিশ্চিত করবে। এক প্রশ্নের জবাবে যুগ্ম-সচিব হাফিজ উদ্দিন বলেন, ট্রলিব্যাগের ২৭ কোটি টাকার মধ্যে প্রথম ধাপে ৯ কোটি টাকা হাবকে দেয়া হয়েছে। গত মঙ্গলবারও হাবকে ট্রলিব্যাগের আরো টাকা দেয়া হয়েছে। হাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি মাওলানা ইয়াকুব শরাফতী বলেন, হজ এজেন্সিগুলো হজযাত্রীদের সেবার মান বাড়াতে বদ্ধপরিকর। এজেন্সিগুলো প্রতিযোগিতার ভিত্তিতে হজযাত্রীদের মানসম্পন্ন ট্রলিব্যাগ ক্রয় করছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন