ঢাকা, সোমবার ২৭ মে ২০১৯, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২১ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

দেশে ৮টি মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হবে

জাতীয় স্বাস্থ্যসেবা ও জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

বর্তমান সরকার স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়নসহ স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনায় যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, স্বাস্থ্যসেবার আরও ব্যাপক উন্নয়ন ও প্রসার ঘটানোর জন্য পর্যায়ক্রমে ৮টি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তোলা হবে। এ সময় স্বাস্থ্য সচেতনতা সৃষ্টিসহ রোগ যাতে না হয় সে জন্য সবাইকে খাওয়া-দাওয়া ও চলাফেরার অভ্যাস পরিবর্তন করে স্বাস্থ্যসম্মত জীবন গড়ে তোলার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।
গতকাল জাতীয় স্বাস্থ্যসেবা সপ্তাহ ও জাতীয় পুষ্টি সপ্তাহের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে সকলের সুস্থতা নিশ্চিতকল্পে ‘স্বাস্থ্যসেবা অধিকার-শেখ হাসিনার অঙ্গীকার’ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ‘জাতীয় স্বাস্থ্যসেবা সপ্তাহ’ শুরু হয়েছে। অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক সভাপতিত্ব করেন।
শেখ হাসিনা বলেন, সর্বজনীন স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়নে শুধু সরকার একা নয়, সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানকেও এগিয়ে আসতে হবে। তাহলেই আমরা মানুষের ঘরে ঘরে স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছাতে পারব। বেসরকারি খাতে হাসপাতাল ও মেডিকেল কলেজ গড়ে তোলার জন্য এবং যন্ত্রপাতি ক্রয়ের ক্ষেত্রে আমরা বিশেষ সুযোগ দিচ্ছি। শিশুদের ইনকিউবেটর মেশিন আনার বিষয়ে ট্যাক্স ফ্রি করে দিয়েছি।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়নসহ স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনায় যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। যার সুফল জনগণ ইতোমধ্যে পেতে শুরু করেছে। চিকিৎসাসেবাকে সাধারণ মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে ইউনিয়ন পর্যায়ে স্বাস্থ্যসেবা সম্প্রসারণে যুগান্তকারী উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। স্বাস্থ্যখাতের সাফল্যের স্বীকৃতিস্বরূপ বাংলাদেশ এমডিজি অ্যাওয়ার্ড, সাউথ সাউথ অ্যাওয়ার্ড ও গ্যাভি অ্যাওয়ার্ডের মতো আন্তর্জাতিক পুরস্কার অর্জন করেছে।
শেখ হাসিনা বলেন, গ্রাম পর্যায়ে সবার জন্য স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে প্রতি ৬ হাজার গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর জন্য একটি করে কমিউনিটি ক্লিনিক নির্মাণ করা হচ্ছে। ১৪ হাজার প্রশিক্ষিত কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডারের (সিএইচসিপি) মাধ্যমে প্রায় ১৪ হাজার কমিউনিটি ক্লিনিকের কার্যক্রম চালু হয়েছে।
শুধু অ্যালোপ্যাথিক নয় হোমিওপ্যাথিক ও ভেষজ ওষুধের ওপর গুরুত্ব দিতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের ওষুধ কোম্পানিগুলো মানসম্পন্ন ওষুধ তৈরি করছে। এই ওষুধ বিদেশেও রফতানি হচ্ছে। কিছু ভেষজ ওষুধ রয়েছে, সেগুলোর প্রতিও গুরুত্ব দিতে হবে। এগুলো খুব গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এর চাহিদা বাংলাদেশে রয়েছে। এ ধরনের চিকিৎসার দিকে বিশেষ দৃষ্টি রাখতে হবে।
যেকোনো বিষয়ে পড়ে নার্সিং পেশায় আসার সুযোগ সৃষ্টি করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বতমানে আমাদের একটা সমস্যা রয়েছে যে, নার্সিংয়ে কেউ যদি আসতে চায় তাকে সায়েন্স স্টুডেন্ট হতে হবে। ইতিমধ্যে এ ব্যাপারে আমি নির্দেশ দিয়েছি কোনো বাধ্যবাধকতা থাকা উচিত না। নার্সিং পড়ার সময় সায়েন্সের যে সাবজেক্ট যতটুকু প্রয়োজন, এটা ওই নার্সিং এডুকেশনের যে কারিকুলাম সেখানেই সংযুক্ত করার নির্দেশ দেন তিনি।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান। অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উন্নয়নের ওপর একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। এছাড়া বিভিন্ন উপজেলায় জিপ গাড়ি ও অ্যাম্বুলেন্স বিতরণ করেন প্রধানমন্ত্রী।
১০টি উপজেলায় অ্যাম্বুলেন্স এবং জিপ গাড়ি উপহার দেয়া হয়। এই জিপগুলো স্থানীয় মেডিকেল অফিসাররা রোগি দেখার জন্য ব্যবহার করবে। অ্যাম্বুলেন্সগুলো মূমুর্ষ রোগী হাসপাতালে আনা-নেয়ার জন্য ব্যবহৃত হবে। নিজ নিজ হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার এবং স্থানীয় এমপি যৌথভাবে চাবিগুলো গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে।
ডাক্তারদের উদ্দেশে তিনি বলেন, সব সময় যে এই জিপ গাড়ি নিয়ে চিকিৎসা সেবা দিতে হবে এমন নয়। গ্রামের অলিগলি ছোট রাস্তায় যেতে হলে এই গাড়ি সব জায়গায় যাবে না। এরকম পরিস্থিতি হলে অনেকে সাইকেলেও যেতে পারেন এবং চিকিৎসা সেবা দিতে পারেন। তা আপনার শরীরের জন্য ভালো, আপনার শরীর ভালো থাকবে।#

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (8)
Prince Fakrul Islam ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:২২ এএম says : 0
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনাকে ধন্যবাদ
Total Reply(0)
Suvro ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:২৫ এএম says : 0
Thanks to PM for good advises and planing . we want to see it in reality
Total Reply(0)
Alamin Huq ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:১২ এএম says : 0
মহানমানবতাবাদী এক মমতাময়ী মা জননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আল্লাহ পাক আমাদের মহান নেত্রীর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু দান করুন।আমিন
Total Reply(0)
Bikash Talukder ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:১৩ এএম says : 0
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমরা যারা মাঠপর্যায়ে টিকাদান কর্মসূচী (ইপিআই) এর সাথে সম্পৃক্ত স্বাস্থ্য সহকারী,সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য পরিদর্শদদের মান উন্নয়নে কাজ করা এখন সময়ের দাবী।
Total Reply(0)
Hazzi Mohammed Rostom Ali Sorder ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:১৩ এএম says : 0
মানবতার মা দেশরত্ন শেখ হাসিনার নিকট আকুল আবেদন, বিষেশায়িত হসপিটালে ও বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের চেম্বারে, কম খরচে গরিব রোগিদের চিকিৎসার ব্যাবস্থা নেওয়ার অনুরোধ করছি।
Total Reply(0)
Howladar Nayem Islam ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:১৪ এএম says : 0
স্বাস্থ্যসেবার আরও ব্যাপক উন্নয়ন ও প্রসার ঘটানোর জন্য পর্যায়ক্রমে ৮টি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তোলার ঘোষনা দেয়া প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
Total Reply(0)
Nais Uddin ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:১৭ এএম says : 0
সরকার অনুমোদিত সকল ক্লিনিকে মানসম্মত ডাক্তার দিয়ে সুচিকিৎসা নিশ্চিত করা হোক।
Total Reply(0)
Mohammad Azad ১৭ এপ্রিল, ২০১৯, ৩:১৯ এএম says : 0
অনুগ্রহ করে ডাক্তারদের কসাই দৃষ্টীভঙ্গি ছেড়ে মানবিক হতে বলুন। তারা উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করে কী করছে আর সাধারণ মানুষেই বা তাদের কাছে থেকে কী শিখবে। আমার ভাবতে অবাক লাগে এই মহান পেশাটাকে তারা কীভাবে কলংকিত করেছে।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন