ঢাকা শুক্রবার, ০২ অক্টোবর ২০২০, ১৭ আশ্বিন ১৪২৭, ১৪ সফর ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

লক্ষ্মীপুরে রামগতি থেকে তরুনী হত্যা মামলার প্রধান আসামী সালাউদ্দিন গ্রেপ্তার

স্ত্রীর স্বীকৃতি চাইতে গিয়ে তরুনী হত্যা

লক্ষ্মীপুর জেলা সংবাদাতা | প্রকাশের সময় : ২৯ এপ্রিল, ২০১৯, ৫:৫০ পিএম | আপডেট : ৬:০৮ পিএম, ২৯ এপ্রিল, ২০১৯

স্ত্রীর স্বীকৃতি চাইতে গিয়ে লক্ষ্মীপুরে কমলনগরে কেরোসিন ঢেলে তরুনী শাহেনুর আক্তারকে হত্যা মামলার প্রধান আসামী সালাউদ্দিনকে গ্রেপ্তার করছে পুলিশ। আজ সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে রামগতির বুড়াকর্তার আশ্রম এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ নিয়ে সালাউদ্দিনের দুইভাই আবুদর রহমান ও আলাউদ্দিন এবং ইউপি সদস্য হাফিজ উদ্দিন ও গ্রাম পুলিশ আবু তাহেরসহ গ্রেপ্তার হলো ৫ আসামী। এর আগে গ্রেপ্তারকৃত ওই ৪ আসামীকে দুইদিন করে রিমান্ড শেষে গত শুক্রবার আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

পুলিশ সুপার আ স মাহাতাব উদ্দিন জানান, তরুনী শাহেনুর আক্তারকে পুড়িয়ে হত্যা মামলার প্রধান আসামী সালাউদ্দিনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ মামলায় এখন পর্যন্ত ৫ আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেপ্তারের অভিযান চলছে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য যে, ২১ এপ্রিল রোববার বিকেলে কমলনগর উপজেলার আইয়ুবনগর এলাকার একটি সয়াবিন ক্ষেত থেকে তরুনী শাহেনুর আক্তারকে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। অবস্থার অবনতি হওয়ায় ওইদিন রাতে তাকে ঢাকা মেডিকেল বার্ণ ইউনিটে পাঠানো হয়। সোমবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় তরুনী শাহেনুর আক্তার। পরের দিন মঙ্গলবার রাতে ওই তরুনীর বাবা ফয়েজ আহমদ বাদী হয়ে কমলনগর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় প্রধান আসামী করা হয়, তরুনীর স্বামী সালাউদ্দিন এবং তার দুই ভাই আবদুর রহমান ও আলাউদ্দিন। এছাড়া মামলার অন্য আসামীরা হচ্ছে স্থানীয় ইউপি সদস্য হাফিজ উদ্দিন,গ্রাম পুলিশ আবু তাহেরসহ ৫জনের নাম উল্লেখ করে আরো ৮জনকে অজ্ঞাত আসামী।

অভিযোগ রয়েছে, স্ত্রীর স্বীকৃতি চাইতে গিয়ে শাহেনুর আক্তারকে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যা করে সালাউদ্দিনসহ অন্য আসামীরা। এর আগে মোবাইল ফোনে সালাউদ্দিনের সঙ্গে পরিচয় হয় চট্রগ্রামের রাউজানের তরুনী শাহেনুর আক্তার। দেড় বছর সম্পর্কের পর দুইজনে কাজী অফিসে গিয়ে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। গত ৬ মাস আগে তরুণী জানতে পারে সালাউদ্দনি বিবাহিত। এই কথা শোনার পর বেশ কয়েকবার কমলনগরে স্ত্রীর স্বীকৃতির জন্য সালাউদ্দিনের কাছে ছুটে আসে সে। এরপর এ ঘটনা ঘটৈ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন