ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

মহানগর

বাণিজ্যমেলায় উপচেপড়া ভিড়

প্রকাশের সময় : ৩০ জানুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : দেশের সবচেয়ে বড় বাণিজ্যিক আসর ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা শেষ হচ্ছে আজ শনিবার। ব্যবসায়ীদের সময় বাড়ানো দাবি নাকচ করে দিয়েছে রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো। 

তবে শেষের আগের দিনে গতকাল ছুটি দিনে ছিল মেলা উপচেপড়া ভিড়। সকাল থেকে মধ্যরাত সারাদিন ছিল লোকের সমাগম। মেলা প্রান্তর ছড়িয়ে লোক সমাগম হয় বিস্তীর্ণ এলাকায়। মেলার চতুর্দিকের রাস্তাসমূহে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়। এদিকে, মেলার শেষদিকে এসে বিক্রেতারা মহাছাড় দিয়ে ক্রেতা ভেড়ানোর চেষ্টা করেছে।
শুক্রবার সকাল থেকে মেলায় আসতে শুরু করে ক্রেতা-দর্শনার্থী। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রাজধানীর বিভিন্ন প্রান্ত ছাড়াও দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ক্রেতা-দর্শনার্থীরা আসতে শুরু করেন। দুপুরের আগেই মেলার পার্কিং কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে গেছে। বিশেষ করে মেলা সংলগ্ন ১ ও ২ নম্বর গেটে আর গাড়ি রাখার টোকেন দেওয়া বন্ধ হয়ে যায়। ফলে শের-ই-বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন ৩ নম্বর গেটে পার্কিং চলে।
এদিকে, মেলার ভেতরেও ছিল উৎসবমুখর পরিবেশ। শিশু থেকে শুরু প্রবীণ পর্যন্ত সব পেশার মানুষ প্যাভিলিয়ন ঘুরে ঘুরে পছন্দের পণ্যসামগ্রী ক্রয় করছেন। তবে এদের মধ্যে ইউনিফর্ম পরিহিত বেশক’টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদেরও দেখা গেছে। যারা ব্যস্ত রয়েছে সেলফি তুলতে। বাচ্চাদের বায়নায় কোনো কোনো বাবা-মাকে দেখা গেছে হকারদের কাছ থেকে আম ভর্তা, পেয়ারা, আচার কিনতে।
এদিকে, লোক সমাগমের সাথে সাথে আনন্দমুখর পরিবেশেই চলছে বেচাকেনা। দোকানদাররা ব্যস্ত ক্রেতা-আকৃষ্টে। শেষের দিকে আয়োজন বলেই হয়তো তারা হাঁক ডেকে চলছেন।
এদিকে, মেলার দর্শনার্থীদের বাড়তি চাপে এই এলাকায় সৃষ্টি হয় বাড়তি যানজট। মেলা এলাকার ফার্মগেট, খামারবাড়ি হয়ে মিরপুর-১০ নম্বর রুট ও মহাখালী থেকে বিজয় সরণি হয়ে মিরপুর রুটে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে রোডের উল্টো রুটেও আগারগাঁও পর্যন্ত যানজট ছিল। এলাকা গাবতলী-নিউমার্কেট রোডেও কলেজ গেইট এলাকায় যানজটের সৃষ্টি হয়। একপর্যায় শিশুমেলা ও আসাদগেইট পর্যন্ত তা ছড়িয়ে যায়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন