ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ সফর ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

পাকিস্তানের সিদ্ধান্তে চরম ক্ষুদ্ধ ভারত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১১:৫৪ এএম | আপডেট : ১২:৪৩ পিএম, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

ভারতের প্রেসিডেন্ট রামনাথ কোবিন্দের বিমানকে আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি না দেওয়ায় ইসলামাবদের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করেছে দিল্লি। গত শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রাবিশ কুমার পাকিস্তানের এই সিদ্ধান্ত যথার্থ নয় বলে মন্তব্য করেছেন। পাকিস্তানের পদক্ষেপে ক্ষোভ প্রকাশ করে এ সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার আহ্বান জানিয়েছে দিল্লি।
রাষ্ট্রীয় সফরে আজ সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) আইসল্যান্ডের উদ্দেশে রওনা হওয়ার কথা ভারতীয় প্রেসিডেন্ট রামনাথ কোবিন্দের। প্রেসিডেন্টকে বহনকারী উড়োজাহাজকে পাকিস্তানের আকাশসীমা ব্যবহার করতে দেওয়ার জন্য ইসলামাবাদের কাছে অনুরোধ জানিয়েছিল দিল্লি। তবে ওই অনুরোধ সরাসরি নাকচ করে দেয় পাকিস্তান। মূলত ভারত অধিকৃত কাশ্মিরে দিল্লির ব্যাপক দমন-পীড়নের প্রতিবাদে এ সিদ্ধান্ত নেয় ইসলামাবাদ। দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান নিজেই ভারতের এই অনুরোধ প্রত্যাখ্যানের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রনালয়।
এর আগে পাকিস্তানের বালাকোটে দিল্লি বিমান হামলা চালানোর পর ভারতের জন্য নিজ দেশের আকাশপথ বন্ধ করে দিয়েছিল ইসলামাবাদ। তখন প্রায় চার মাস পাকিস্তানের আকাশসীমা হয়ে ভারতের বিমান চলাচল বন্ধ থাকে। ২৬ ফেব্রুয়ারি বন্ধ করে দেওয়ার পর গত ১৬ জুলাই ফের আকাশপথ আংশিক খুলে দেয় পাকিস্তান। পরে কাশ্মির ইস্যুতে ফের একই পথ অনুসরণ করে ইসলামাবাদ। এতে চরম বিপাকে পড়ে ভারত। কেননা, স্বাভাবিক সময়ে ভারতীয় বিমান সংস্থা এয়ার ইন্ডিয়ার কমবেশি ৫০টি বিমান বিভিন্ন রুটে প্রতিদিন পাকিস্তানের আকাশপথ ব্যবহার করে। এই বিমানগুলো মূলত যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপ ও মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে যাতায়াত করে।
২০১৯ সালের ৫ আগস্ট ভারত অধিকৃত কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসন বাতিল করে অঞ্চলটিকে দুই টুকরো করে দেয় দিল্লি। ওই দিন সকাল থেকে কার্যত অচলাবস্থার মধ্যে নিমজ্জিত হয় দুনিয়ার ভূ-স্বর্গখ্যাত কাশ্মির উপত্যকা। একে কেন্দ্র করে ভারতের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক হ্রাস করাসহ ইসলামাবাদে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনারকে বহিষ্কার করে পাকিস্তান। দুই দেশের সীমান্তে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করা হয়। কাশ্মির সীমাস্তে চলছে টানটান উত্তেজনা। একইসঙ্গে সব ধরনের দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য চুক্তি স্থগিত ও ভারতের স্বাধীনতা দিবসকে কালো দিবস হিসেবে পালন করেছে ইসলামাবাদ। এর মধ্যেই ভারতের প্রেসিডেন্টকেও নিজ দেশের আকাশপথ ব্যবহারের অনুমতি দিতে অস্বীকৃতি জানালো পাকিস্তান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (4)
মোহাম্মদে আলী ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৪:৪৫ এএম says : 1
সাবাস পাকিস্তান
Total Reply(0)
Md. Abdur Razzak ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৫:২৯ পিএম says : 0
continue
Total Reply(0)
Jahangir ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৪:১৯ পিএম says : 0
Thanks Pakistan for humanitarian approach.
Total Reply(0)
ash ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৬:০৫ এএম says : 0
GOOD JOB PAKISTAN ! WHO GIVES DAMMMMMMMMMMM ABOUT INDIA !
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন