রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯, ০৩ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

পটুয়াখালীতে মা-মেয়ে গণধর্ষণ ঘটনায় আটক আরও ৩

প্রকাশের সময় : ১৬ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : পটুয়াখালী জেলায় মা-মেয়েকে গণ-ধর্ষণের ঘটনায় সন্দেহভাজন আরও ৩ জনকে গতকাল আটক করেছে পুলিশ। এর আগে ঘটনার পরদিন নূর আলম নামে একজনকে আটক করেছিল পুলিশ। বাউফল থানার ওসি আযম খান ফারুকী বলেছেন, আটক নূর আলম দোষ স্বীকার করেছেন। সে নাজিরপুর ইউনিয়নের স্বেচ্ছাসেবক লীগের ওয়ার্ড সহ-সভাপতি। মোটরবাইকে লোকজনকে পরিবহন করাই তার পেশা।
ওসি জনাব খান জানান, ‘নূর আলম পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষণের অভিযোগ স্বীকার করেছে। নিজের দোষ স্বীকার করে অন্য আসামিদের নামও বলেছে। সে স্বীকার করেছে যে, সেখানে গ্যাং রেপ হয়েছে’।
তিনি আরও জানান, গতকাল নতুন তিনজনকে আটক করা হয়েছে মূলত জিজ্ঞাসাবাদের জন্য। তাদের কাছ থেকে তথ্য নিয়ে মূল অপরাধীদের খুঁজে বের করতে চায় পুলিশ।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার কলেজ পড়–য়া মেয়েকে নিয়ে একজন নারী ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলে করে কাছেই একটি এলাকায় বেড়াতে যান।
একই মোটরসাইকেলে করে সেখান থেকে ফেরার সময় মোটরসাইকেলের চালক ও আরও কয়েকজন তাদের ট্রলারে উঠিয়ে তেঁতুলিয়া নদীর মাঝামাঝি নিয়ে গিয়ে শ্লীলতাহানি করে। পরে জেলেরা নির্যাতিত মা ও তার মেয়ের চিৎকার শুনে এগিয়ে এলে অপরাধীরা নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে সাঁতরে পালিয়ে যায়।
পরদিন পরিবারটির পক্ষ থেকে দায়ের করা মামলায় ৮/৯ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত অন্যদের এখনও গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।
এদিকে, আটক তিনজনের পরিচয় জানতে চাইলে পুলিশ ‘তাদের (পরিবারটির) এলাকার ঘনিষ্ঠ’ বলে জানায়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps