ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ১০ আষাঢ় ১৪২৮, ১২ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

মহানগর

সদরঘাটে এমভি কির্তনখোলা-২ লঞ্চের ক্যান্টিনের বাবুর্চিকে কুপিয়ে হত্যা: আটক ২

কেরানীগঞ্জ(ঢাকা)উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৮ অক্টোবর, ২০১৯, ৩:০৫ পিএম | আপডেট : ৩:২২ পিএম, ১৮ অক্টোবর, ২০১৯

ঢাকার কেরানীগঞ্জে বুড়িগঙ্গা নদীর সদরঘাটে এমভি কির্তনখোলা-২ লঞ্জের ক্যান্টিনের বাবুর্চিকে তুচ্ছ ঘটনার জেড়ধরে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে । এই ঘটনায় সন্দেহজনকভাবে ক্যান্টিনের ম্যানেজারসহ দুইজনকে আটক করা হয়েছে। নিহত বাবুর্চির নাম মোঃ রুবেল হোসেন(২২)। তার বাড়ি পটুয়াখালী জেলায়। আর আটককৃতরা হচ্ছে ক্যান্টিনের ম্যানেজার শহিদুল ইসলাম মিন্টু(৪০) ও রবিউল হাসান(২৪)। এই ঘটনাটি ঘটেছে আজ শুক্রবার(১৮ অক্টোবর) দুপুর ১২টায় সদরঘাট টার্মিনাল এলাকায় এমভি কির্তনখোল-২ লঞ্চের ক্যান্টিনে। দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ নিহতের লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করেছে।

দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানার এসআই ইমরান উকিল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এমভি কির্তনখোল-২ লঞ্চের ক্যান্টিনে বাবুর্চি রুবেল হোসেনের সাথে একই লঞ্চের স্টাফ মোঃ ইয়ামিন(২২)এর সাথে তরকারী কাটাকে কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটি হয়। কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে ইয়ামিনের হাতে থাকা একটি ধারালো বটি দিয়ে সে রুবেল হোসেনর গলায় একাধিক কোপ দেয়। এতে সাথে সাথেই রুবেল হোসেন নিহত হয়। এই ঘটনায় ঘাতক ইয়ামিন দৌড়িয়ে লঞ্চ থেকে দ্রুত পালিয়ে যায়। এসময় ক্যান্টিনের ম্যানেজারসহ অন্যান্য স্টাফরা ঘটনাটি দাড়িয়ে দেখলেও তারা ঘাতক ইয়ামিনকে আটক করেনি। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে নিহতের লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। এই ঘটনায় সন্দেহজনকভাবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ক্যান্টিনের ম্যানেজার শহিদুল ইসলাম মিন্টু ও লঞ্চের স্টাফ রবিউল হাসানকে আটক করা হয়েছে। ঘাতক ইয়ামিনের বাবার নাম ইসাহাক সরদার । বাড়ি ঝালকাঠি জেলার নলছিটি থানায় ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন