ঢাকা, রোববার , ১৯ জানুয়ারী ২০২০, ০৫ মাঘ ১৪২৬, ২২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

৪০ বছরের সবচেয়ে বড় রাজনৈতিক সংকটে ইরান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:২৮ পিএম

১৯৭৯ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি ঐতিহাসিক ইসলামী বিপ্লবের পর ইতিহাসে সবচেয়ে প্রাণঘাতী রাজনৈতিক সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে ইরান। গত মাস থেকে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ ছেয়ে গেছে পুরো দেশ। জনতার এই ক্ষোভ শক্ত হাতে দমন করেছে কর্তৃপক্ষ। বিক্ষোভের প্রথম সপ্তাহেই দেশটিতে নিরাপত্তাবাহিনীর দমন অভিযানে নিহত হয়েছে অন্তত ১৮০ জন। প্রকৃত সংখ্যা আরো বেশি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।
বিক্ষোভের সূত্রপাত ঘটে প্রায় তিন সপ্তাহ আগে। ১৫ই নভেম্বর অপ্রত্যাশিতভাবে জ্বালানি তেলের দাম ২০০ শতাংশ বাড়িয়ে দেয় সরকার। এ সিদ্ধান্তের তিন দিনের মধ্যে দেশজুড়ে শুরু হয় সরকার-বিরোধী বিক্ষোভ।
বহু শহরে বিক্ষোভকারীদের দমাতে ফাঁকা গুলি চালিয়েছে নিরাপত্তাবাহিনী। প্রাণ হারিয়েছেন অনেকে। এদের বেশিরভাগই তরুণ।
প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস জানিয়েছে, কেবল মাহশাহরেই ইসলামিক রেভ্যুলুশন গার্ড কোরের সদস্যদের গুলিতে প্রাণ হারিয়েছে ৪০ থেকে ১০০ বিক্ষোভকারী। নিউ ইয়র্ক-ভিত্তিক সংগঠন ‘সেন্টার ফর হিউম্যান রাইটস ইন ইরান’-এর উপ-পরিচালক ওমিদ মেমারিয়ান বলেন, ইরান সরকার জনগণের বিরুদ্ধে নজিরবিহীন প্রাণঘাতী শক্তি প্রয়োগ করছে।
আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংঠন, বিরোধী দল ও স্থানীয় সাংবাদিকদের বরাত দিয়ে নিউ ইয়র্ক টাইমস জানিয়েছে, বিক্ষোভের প্রথম চার দিনে প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত ১৮০ থেকে ৪৫০ জন। প্রকৃত সংখ্যা আরো বেশি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। আহত হয়েছেন ২ হাজারের বেশি। আটক করা হয়েছে অন্তত ৭ হাজার মানুষকে।
ইরানে সর্বশেষ বড় ধরনের বিক্ষোভ হয়েছিল ২০০৯ সালের নির্বাচনের পর। সে সময়ও বিক্ষোভকারীদের কঠোর হস্তে দমন করেছিল সরকার। ১০ মাসে নিহত হয়েছিল ৭২ জন। সে তুলনায় বর্তমানের বিক্ষোভ দমনে সরকারের পদক্ষেপ শিহরণ জাগিয়ে তোলে। প্রাথমিক পর্যায়ে দেশজুড়ে ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। সম্প্রতি তা ফের ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে। এর পর থেকে প্রকাশ পাচ্ছে হতাহতের খবর।
বিক্ষোভকারীদের সংখ্যাগরিষ্ঠই নিম্ন ও মধ্যম-আয়ের মানুষ। সাম্প্রতিক বছরগুলোয় ইরানে দ্রব্যমূল্য অত্যধিক বেড়েছে। গত বছর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প ইরানের সঙ্গে আন্তর্জাতিক পারমাণবিক চুক্তি থেকে সরে গিয়ে দেশটির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন। এতে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দেশটির তেল ও ব্যাংক খাত। ফলস্বরূপ চাপ পড়েছে দেশের অর্থনীতিতে ও তার পরিণতি ভোগ করেছেন দেশবাসী।
এখন পর্যন্ত সাম্প্রতিক বিক্ষোভে হতাহত, আটক হওয়া ব্যক্তিদের কোনো সংখ্যা জানায়নি সরকার। উল্টো আন্তর্জাতিক সংগঠনগুলোর দেয়া সংখ্যাগুলোকে ‘কল্পনাপ্রসূত’ বলে সমালোচনা করেছে। তবে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দোলরেজা রহমানি ফাজলি দেশজুড়ে অস্থিরতার কথা স্বীকার করেছেন। রাষ্ট্র পরিচালিত টিভিতে দেয়া এক বক্তব্যে তিনি বলেন, ইরানের ৩১টি প্রদেশের মধ্যে ২৯টিতেই বিক্ষোভ দেখা দিয়েছে। হামলা হয়েছে ৫০টি সামরিক ঘাঁটিতে। বিক্ষোভকারীদের হামলায় একাধিক নিরাপত্তাকর্মী নিহতের খবরও প্রকাশ পেয়েছে।
তিনি আরো জানান, সব মিলিয়ে ৭৩১টি ব্যাংকে হামলা হয়েছে, ১৪০টি সরকারি স্থাপনা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়া ৯টি ধর্মীয় কেন্দ্র, ৭০টি গ্যাস স্টেশন, ৩০৭টি গাড়ি, ১৮৩টি পুলিশের গাড়ি, ১ হাজার ৭৬টি মোটরসাইকেল ও ৩৪টি অ্যাম্বুলেন্স ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।
রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, বিক্ষোভকারীরা প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির বিরুদ্ধে বড় ধরনের আঘাত হেনেছে। বিক্ষোভ দমনে সরকারের কঠোর অবস্থান আগাম নির্বাচনে বড় ধরনের প্রভাব ফেলবে। রাজনৈতিক ঝুঁকি পর্যালোচনা বিষয়ক সংগঠন ইউরেশিয়া গ্রুপের ইরান বিষয়ক বিশ্লেষক হেনরি রোম বলেন, বিক্ষোভকারীদের প্রতি সরকারের প্রতিক্রিয়া ছিল আপসহীন, নির্মম ও দ্রæত। কিন্তু এর মধ্য দিয়ে এটাও প্রমাণ হয়েছে যে, ইরানিরা রাস্তায় নামতে ভয় পায় না।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
Md Afjal Khan nyn ৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৩:৩৩ পিএম says : 0
একটি মুসলিমদেশের এই অবস্থা দেখে আমেরিকার মানবাধিকার সংগঠন গুলোর এই ব্যপারে তাদের উদ্বেগ জানান আর অন্যান্য অমুসলিম দেশে হাজার হাজার মুসলিমদের হত্যা করা হচ্ছে তখন তাদের মানবাধিকার সংগঠন গুলো কি কাজ করে?
Total Reply(1)
mahbubur rahman babu ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১১:৩৬ পিএম says : 0
চিনের মুসলিমদের উপর অত্যাচারের প্রতিবাদ কয়টা মুসলিম দেশ করেছে।
Md Afjal Khan nyn ৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ৩:৩৩ পিএম says : 0
একটি মুসলিমদেশের এই অবস্থা দেখে আমেরিকার মানবাধিকার সংগঠন গুলোর এই ব্যপারে তাদের উদ্বেগ জানান আর অন্যান্য অমুসলিম দেশে হাজার হাজার মুসলিমদের হত্যা করা হচ্ছে তখন তাদের মানবাধিকার সংগঠন গুলো কি কাজ করে?
Total Reply(1)
mahbubur rahman babu ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১১:৩১ পিএম says : 0
মুসলিমরা এখন পর্যন্ত কে সত্যি কারের শত্রু কে সত্যি কারের মিত্র চিনতে পারলো না

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন