ঢাকা, শনিবার, ০৪ এপ্রিল ২০২০, ২১ চৈত্র ১৪২৬, ০৯ শাবান ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

মাদাম তুসো থেকেও সরানো হল হ্যারি-মেগানকে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১০ জানুয়ারি, ২০২০, ৪:৩১ পিএম

বুধবার প্রিন্স হ্যারি এবং তার স্ত্রী মেগান ঘোষণা করেছেন, তারা ‘সিনিয়র রয়্যাল’ হিসেবে আর গণ্য হতে চান না। এরপরই ব্রিটিশ রাজপরিবারে রীতিমতো ঝড় ওঠে। তার জেরে লন্ডনের মাদাম তুসো জাদুঘরেও পরিবারের থেকে আলাদা করে দেওয়া হল ডিউক এবং ডাচেস অফ সাসেক্সকে।

ব্রিটিশ রাজপরিবারের বাকিদের থেকে তারা বরাবরাই অন্যরকম। ছোট ছোট নানা ঘটনায় সে পরিচয় দিয়েছেন প্রিন্স হ্যারি এবং তার স্ত্রী মেগান। কিন্তু তা বলে তারা এমন একটা সিদ্ধান্ত নেবেন, তাও রাজ পরিবারের কাউকে কিছু না জানিয়ে? এমনটা কেউই আঁচ করতে পারেননি। বুধবার আচমকাই ডিউক এবং ডাচেস অফ সাসেক্সের ঘোষণা, ‘সিনিয়র রয়্যাল’ হিসেবে আর গণ্য হতে চান না তারা। যার অর্থ, রাজ পরিবারের সঙ্গে আর লন্ডনে থাকবেন না। রাজকোষের অর্থ ব্যবহার না করে অর্থনৈতিকভাবে স্বাধীন হওয়ার চেষ্টা চালাবেন।

সূত্রের খবর, পরিবারের বয়োজ্যেষ্ঠদের সঙ্গে কোনও আলোচনা না-করেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মেগান-হ্যারি। আপাতত রাজপরিবারের অন্য কেউ বিষয়টি নিয়ে মুখই খুলতে চাইছেন না। বুধবারের বিবৃতিতে হ্যারি-মেগানের দাবি, অনেক ভেবেচিন্তে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। রাজপরিবারের ‘সিনিয়র মেম্বার’ হিসেবে গণ্য না-হয়ে অর্থনৈতিকভাবে স্বাধীন হওয়ার চেষ্টা চালাবেন তারা। আর তার জন্য কিছু সময় ব্রিটেন, বাকি সময় উত্তর আমেরিকায় কাটাবেন। তবে, ব্রিটেনের রানি, কমনওয়েলথ এবং পৃষ্ঠপোষকদের প্রতি দায়িত্ব পালনে কোনও ত্রুটি রাখবেন না।

এই ঘোষণার পরই মাদাম তুসো মিউজিয়াম কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, হ্যারি ও মেগানের মোমের মূর্তি আগে রানি এলিজাবেথ দ্বিতীয়, প্রিন্স ফিলিপ, প্রিন্স চার্লস ও তার স্ত্রী ক্যামিলা, প্রিন্স উইলিয়াম ও কেট মিডলটনের সঙ্গেই থাকত। তবে এখন আর এই জুটির মূর্তি রাজ পরিবারের সেটের সঙ্গে থাকবে না। সেগুলি সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। সূত্র: বিবিসি।

 

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন