ঢাকা, সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১১ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৯ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

অভিশংসন বিচার জোরদার করছে রিপাবলিকানরা

ট্রাম্পের পক্ষে লড়বেন ক্লিন্টনের বিরুদ্ধে তদন্তকারীরা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০১ এএম

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসন বিচার প্রক্রিয়া জোরদার করেছেন রিপাবলিকান দলের সিনেটররা। রিপাবলিকান সিনেটররা ট্রাম্পের আইন বিষয়ক টিম এবং ম্যানেজার বা বিচারককে ২৪ ঘন্টা করে সময় দেবেন। ১৯৯৯ সালে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের ব্যাপারেও একই ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছিল। মার্কিন পত্রিকা ‘দি হিল’ শুক্রবার রিপাবলিকান সিনেটরদের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে। পত্রিকাটি বলেছে, দুপক্ষকেই দুই দিনের মধ্যে তাদের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ করতে হবে। রিপাবলিকান দলের সিনেটর টেড ক্রুজ ফক্সও নিউজকে এ তথ্য জানিয়েছেন। উন্নত প্রভাবশালী সিনেটর লিন্ডসে গ্রাহামও একই কথা জানিয়েছেন। ট্রাম্পের ইমপিচমেন্টের বিচার সম্পন্ন করার জন্য মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের পক্ষ থেকে স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি একজন বিচারক নিয়োগ করেছেন। প্রতিনিধি পরিষদে বিরোধীদলের সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে। তবে সিনেটে ট্রাম্পের রিপাবলিকান দলের প্রাধান্য রয়েছে। অপর দিকে বিবিসির খবরে বলা হয়, মার্কিন পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ সিনেটে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের হয়ে মামলা লড়বেন সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিন্টনের বিরুদ্ধে তদন্তকারী দুই আইনজীবী। ক্লিন্টনের অভিশংসন মামলায় তার বিরুদ্ধে তদন্তকারী ছিলেন বিশেষ প্রসিকিউটর কেন স্টার ও রবার্ট রে। তারাই এখন সিনেটে ট্রাম্পের পক্ষ নেবেন। এ ছাড়া ট্রাম্পের আইনজীবী টিমে আরো থাকছেন অ্যালান ডার্শওয়িটজ। পুরো টিমের নেতৃত্ব দেবেন হোয়াইট হাউজ কাউন্সেল প্যাট সিপোলোন ও ট্রাম্পের ব্যক্তিগত আইনজীবী জে সেকুলো। আগামী সপ্তাহে মামলার বিচারকার্য শুরু হবে। খবরে বলা হয়, বিল ও হিলারি ক্লিন্টনকে ঘিরে আশির দশকে সৃষ্ট ‘হোয়াইটওয়াটার অ্যাফেয়ার্স’ কেলেঙ্কারি মার্কিন রাজনীতিতে তুমুল আলোচনা সৃষ্টি করেছিল। ওই কেলেঙ্কারির তদন্তের দায়িত্বে ছিলেন কেন স্টার। তিনি তখন মার্কিন বিচার বিভাগের স্বাধীন কাউন্সেল হিসেবে কাজ করতেন। তদন্তে বেরিয়ে আসে, হোয়াইট হাউজ ইন্টার্ন মনিকা লিওয়িনস্কির সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল বিল ক্লিন্টনের। এই তদন্ত থেকেই তার বিরুদ্ধে ১৯৯৮ সালে অভিশংসন বিচারকার্য শুরু হয়। কিন্তু সিনেটে খালাসি পেয়ে যান ক্লিন্টন। কেলেঙ্কারিটি তদন্তের শেষ পর্যায়ে স্টারের স্থলাভিষিক্ত হন রে। শুক্রবার ট্রাম্পের আইনজীবী টিম ঘোষনার পর এক টুইটে লিওয়িনস্কি লিখেন, এটা নিশ্চিতভাবে ‘আমার সঙ্গে মজা করছো?’ ধরনের দিন। ২০১৬ সালে স্টার বেলর ইউনিভার্সিটির প্রেসিডেন্ট হিসেবে পদচ্যুত হন। সে সময় অভিযোগ ওঠেছিল, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদের ফুটবল খেলোয়ারদের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে যথাযথ পদক্ষেপ নেয়নি। প্রেসিডেন্ট হিসেবে পদচ্যুৎ হওয়ার পাশাপাশি সেখানকার চ্যান্সেলর ও আইন বিষয়ক অধ্যাপক হিসেবেও পদত্যাগ করেন তিনি। বিবিসি জানিয়েছে, ডার্শওয়িটজ হচ্ছেন হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটির একজন অবসরপ্রাপ্ত আইন বিষয়ক অধ্যাপক ও সাংবিধানিক আইন বিশেষজ্ঞ। প‚র্বে তিনি মার্কিন বক্সার মাইক টাইসনের মতো তারকাদের হয়ে লড়েছেন। তিনি ও স্টার উভয়েই যৌন নির্যাতন মামলায় মার্কিন ব্যবসায়ী জেফরি এপস্টেইনের পক্ষে লড়েছিলেন। ফক্স নিউজ, বিবিসি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (6)
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ১৯ জানুয়ারি, ২০২০, ১:৩১ এএম says : 0
অভিশংসন হতে বাঁচতেই ট্রাম্প ইরান ইস্যুর সৃষ্টি করেছে। যা আরোকটি অপকর্ম এবং শঠতা। এধরণের প্রতারকদেরকে আল্লাহ হেদায়েত দান করুন, হেদায়েত নসীবে না থাকলে কঠোর শাস্তি দান করুন।
Total Reply(0)
Humayun Kabir ১৯ জানুয়ারি, ২০২০, ১:৩১ এএম says : 0
চান্দু - এবার আর রক্ষা নাই।
Total Reply(0)
Takdir Ahmed ১৯ জানুয়ারি, ২০২০, ১:৩১ এএম says : 0
sorry, We should all have to STOP him....immediately......!
Total Reply(0)
Monju Arif ১৯ জানুয়ারি, ২০২০, ১:৩১ এএম says : 0
They should sent him a mental hospital.He is full mad.He don't what he thinks or do.
Total Reply(0)
Ismail Raju ১৯ জানুয়ারি, ২০২০, ১:৩২ এএম says : 0
আর তো সময় নাই... এগুলো বলে বলে ৪ বছর শেষ হল
Total Reply(0)
Joshim Ali ১৯ জানুয়ারি, ২০২০, ১:৩২ এএম says : 0
অবিশ্বাস্য মনে হলেও আমেরিকার আগামী প্রেসিডেন্ট DONALD TRUMP
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন