রোববার, ২৬ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯, ২৫ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

মহানগর

খুলনায় জঙ্গি সম্পৃক্ত সন্দেহে কুয়েট ছাত্রসহ গ্রেফতার ৬ জন

প্রকাশের সময় : ১৪ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

খুলনা ব্যুরো : ফেসবুকসহ বিভিন্ন মাধ্যমে জঙ্গি তৎপরতার অভিযোগে খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) ছাত্রসহ ৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে কয়রা থানা পুলিশ অস্ত্র, গুলি ও বোমাসদৃশ বস্তুসহ জঙ্গি সন্দেহে ৪ জনকে গ্রেফতার করে।
পুলিশ জানায়, গতকাল বুধবার ভোরে খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র মোঃ রবিউল হাসান ইমনকে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে ফেসবুকে জঙ্গি তৎপরতার অভিযোগ রয়েছে। খানজাহান আলী থানার এস আই আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ইমনের বিরুদ্ধে ফেসবুকে জঙ্গি তৎপরতার অভিযোগ পেয়েই তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে কুয়েট উপাচার্যের সঙ্গে বৈঠক করে বিষয়টি আরও অধিক যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। এরপরই তার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।
অপরদিকে বুধবার ভোরে কয়রা উপজেলার দক্ষিণ বেদকাশি ইউনিয়নের কারিকরপাড়া এলাকার ইদ্রিসের বাড়ি থেকে কেশবপুর উপজেলার হাসানপুর মাইলবগা গ্রামের আনছার শেখের ছেলে আলমগীর হোসেন ওরফে জুবায়ের (২৮), ডুমুরিয়া উপজেলার মিকশিমিল  গ্রামের রাজ্জাক গাজীর ছেলে রাজীর গাজী ওরফে রাকিব (২৩), পাইকগাছা উপজেলার খাটুয়াখালি গ্রামের মাহফুজুল হকের ছেলে ফয়সাল ওরফে আলামিন (২৪) এবং রহমত সরদারের ছেলে তানভীর সরদার (২৪) নামে চার যুবককে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে একটি দেশি সাটারগান, ৩ রাউন্ড বন্দুকের কার্তুজ, একটি বন্দুকের গুলির খোসা এবং ৫টি বোমাসদৃশ্য বস্তুসহ কয়েকটি জিহাদি বই উদ্ধার করেছে বলে পুলিশ দাবি করেছে।
কয়রা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ শমসের আলী বলেন, গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও নাশকতার অভিযোগে দু’টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।
এর আগে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (কুয়েট) ক্যাম্পাসে সন্দেহজনক ঘোরাঘুরির অভিযোগে মোঃ আরজ আলী (২৫) নামে এক কলেজ ছাত্রকে নিরাপত্তা কর্মীরা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন। গ্রেফতারকৃত যুবক নিজেকে ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের কুষ্টিয়া জেলা শাখার সহ-সভাপতি এবং কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের সম্মান শেষ বর্ষের ছাত্র বলে দাবি করেন। তিনি কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার ধলা গ্রামের মৃত মো. আব্দুল মান্নান মিয়ার ছেলে। খানজাহান আলী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আশরাফুল আলম জানান, কুয়েট থেকে আটক দুই ছাত্রের বিষয়ে যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps