ঢাকা রোববার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ৮ কার্তিক ১৪২৭, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ডা. মঈন নিজ কর্মস্থলেই চিকিৎসা না পাওয়ায় নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড়

শ্রদ্ধাভরে স্মরণ সামাজিক মাধ্যমে

আবদুল মোমিন: | প্রকাশের সময় : ১৫ এপ্রিল, ২০২০, ১১:৫০ পিএম

করোনাভাইরাস সঙ্কটে জনগণকে চিকিৎসা দিতে গিয়ে নিজেই আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া দেশের প্রথম চিকিৎসক ডা. মো. মঈন উদ্দিনকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেছেন দেশের সর্বস্তরের মানুষ। প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে সকল রাজনৈতিক দল ও শ্রেণি-পেশার মানুষ তার অসামান্য অবদানকে স্মরণ করেছেন। শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি জানিয়েছেন সমবেদনা।

ডা. মো. মঈন সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ছিলেন। অথচ সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক হয়েও তিনি পাননি নিজের প্রতিষ্ঠানের আইসিইউ, পাননি সরকারের অ্যাম্বুলেন্স। সিনিয়র এই চিকিৎসক নিজ কর্মস্থলসহ সিলেটে চিকিৎসা না পাওয়ায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। এই ঘটনায় ওসমানী মেডিকেল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার জোর দাবি উঠেছে।

মানবিক ডাক্তার হিসেবে পরিচিত করোনা যুদ্ধে শহীদ হওয়া ডা. মঈন ছিলেন ভদ্র ও বিনয়ী। তিনি গরীব মানুষের ফি নিতেন না।

ওমর ফারুক লিখেছেন, ‘‘ইন্না-লিল্লাহ ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন। করোনা যুদ্ধে সক্রিয় অংশগ্রহণকারী এই বীর সৈনিকের রুহের মাগফেরাত কামনা করছি। সেই সাথে মহান আল্লাহ যেন তাকে শহীদের মর্যাদা দান করেন সেই প্রার্থনা করছি।’’

এহসান নুর লিখেছেন, ‘‘বলতেই হয় শহীদ। ডাক্তার মঈন স্যারকে জেনে বুঝে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়া হয়েছে। বরং যতটা দ্রুত মৃত্যু নিশ্চিত করা যায় সেই কাজ করেছে ওসমানী মেডিক্যালের মহাপরিচালক এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।’’

রেজা তামিম লিখেছেন, ‘‘নিজ কর্মস্থলেই চিকিৎসা পাননি ওসমানী মেডিকেলের ডা. মঈন ভাই। এই জবাব তো প্রথম সেই মেডিকেল কলেজের পরিচালককে দিতে হবে। চিকিৎসক কমিউনিটি আঙ্গুল ঐইদিকে দেখান আগে।’’

মিজানুর রহমান লিখেছেন, ‘‘আল্লাহ তা'য়ালা ভাইকে শহীদ হিসেবে কবুল করে জান্নাতুল ফিরদাউসের মেহমান করে নিন। তার শোকাহত পরিবারকে সবরে জামিল করার তাওফিক দিন। তাঁর সন্তান কে নিয়ে বাবার যে আশা ছিল আপনি তা কবুল করে নিন। আল্লাহুম্মা আমীন।’’

কাজী বেলায়েত হোসেন লিখেছেন, ‘‘এটাকে কেবল মৃত্যু বলবো না, এটা একটা সিস্টেম্যাটিক কিলিং। রাষ্ট্রীয় অব্যবস্থাপনার শিকার হয়েছেন গরীবের চিকিৎসক খ্যাত এই মেধাবী মানুষটি।’’

এবিএস সোহেল লিখেছেন, ‘‘একজন মানুষ ৫০ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেছেন তার বড় সন্তানের বয়স কতো যানেন? ১২ বছর হ্যা ১২ বছর।অর্থাৎ তার প্রথম সন্তান যখন হয় তখন তার বয়স ৩৮ বছর। কি একটু হলেও বেমানান লাগে না? এবার তার নামের পাশের ডিগ্রীগুলো দেখুন এফসিপিএস, এমডি। হ্যাঁ এমন ডিগ্রী অর্জন করে আপনাদের জন্য যোগ্য ডাক্তার হতে গিয়ে এমন অনেক ডাক্তার দম্পতির জীবনের আনন্দময় অনেকটা সময় চলে যায় পড়ার টেবিলে।আজ তিনি মারা গেলেন COVID 19 এ আক্রান্ত হয়ে। যানেন তিনি কিভাবে আক্রান্ত হয়েছিলেন? তিনি আক্রান্ত হয়েছিলেন রোগীর সেবা দিতে গিয়ে। কারন তখনো তাকে সুরক্ষা পোষাক দেয়া হয়নি। অসুস্থ হলে তাকে রাষ্ট্র থেকে দেয়া হয়নি সামান্য ঢাকা আনার আধুনিক ব্যবস্থা! এখন বীর বলেন আর যাই বলেন ফিরিয়ে দিতে পারবেন ঐ ১২ আর ৮ বছরের ছেলেদুটোকে তাদের বাবাকে? কি বলবেন তাদেরকে যখন তারা জানবে যে তাদের বাবা আক্রান্ত হয়েছে আপনাদের অদক্ষতায়, মৃত্যুর আগে পেয়েছে আপনাদের অবহেলা! আর বীর বীর কইরেন না ঘেন্না লাগে!’’

লাভলু সেলিম লিখেছেন, ‘‘একজন সিনিয়র চিকিৎসক হয়ে যদি চিকিৎসা না পান, তাহলে সাধারণ জনগণের কি অবস্থা হবে ভাবতে পারছেন?

তারিক খান লিখেছেন, ‘‘দেশের জন্য দেশের মানুষের জন্য জীবন দেওয়াটা হয়তো অন্যায় তাই এগুলো থেকে বঞ্চিত হয়েছে...হায়রে কপাল আমাদের মূল্যবান মানুষের কদর আমরা বুঝিনা।’’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (12)
মরহুম ডাঃ মঈন অসুস্থ্য হলে নিজ কর্মস্থলের মেডিক্যালে ICU তে জায়গা হয়নি তাঁর এবং ঢাকা নেবার জন্যে Ambulance মিলেনি এ সংবাদটি উনার মৃত্যুর আগেই Face book এ Post করা হয়েছে। কেবল সিলেটের কর্তৃপক্ষ কেনো স্বাস্থ্যমন্ত্রী মহোদয় এ দায় এড়াতে পারেন? আমরা কোথায় আছি,কোথায় যাচ্ছি এবং কি আছে কপালে তা বুঝে নেয়া আজ বড়োই কঠিন হয়ে পড়েছে। Nation demand justice & trie against the authority of S.O.M.College & against the other accused accordingly as per law.
Total Reply(0)
মরহুম ডাঃ মঈন অসুস্থ্য হলে নিজ কর্মস্থলের মেডিক্যালে ICU তে জায়গা হয়নি তাঁর এবং ঢাকা নেবার জন্যে Ambulance মিলেনি এ সংবাদটি উনার মৃত্যুর আগেই Face book এ Post করা হয়েছে। কেবল সিলেটের কর্তৃপক্ষ কেনো স্বাস্থ্যমন্ত্রী মহোদয় এ দায় এড়াতে পারেন? আমরা কোথায় আছি,কোথায় যাচ্ছি এবং কি আছে কপালে তা বুঝে নেয়া আজ বড়োই কঠিন হয়ে পড়েছে। Nation demand justice & trie against the authority of S.O.M.College & against the other accused accordingly as per law.
Total Reply(0)
Źúßøråj Áhmēđ Śhøhãg ১৬ এপ্রিল, ২০২০, ১:০৫ এএম says : 0
সরকার চাইলেই একজন নেতা তৈরি করতে পারবে,কিন্তু সে চাইলেই একজন ডাক্তার তৈরি করতে পারবে না।একজন ডাক্তার তৈরি করতে যে পরিমান ত্যাগ শিকার করতে হয় সেটা একমাত্র বাবা আর মা ই বুঝে। ডাক্তারদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেওয়া হোক,কেন না ১৬ কোটি মানুষের নিশ্বাসের বিশ্বাস ঘাতকতা যেন না হয় এটাই আমাদের প্রত্যাশা।
Total Reply(0)
Mohammad Mosheur Alam Shamon ১৬ এপ্রিল, ২০২০, ১:০৫ এএম says : 0
ডা.মঈনের অপরাধ ছিল একজন দেশপ্রেমিক হওয়া। ডা.মঈনের অপরাধ ছিল একজন আদর্শ শিক্ষক হওয়া।যার কাছ থেকে শিক্ষা লাভ করে হাজারো ছাত্র ডাক্তার হয়েছে। ডা.মঈনের অপরাধ ছিল আত্নমানবতার সেবায় নিজেকে বিলিয়ে দিতেন।বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিতেন। ডা.মঈনের সবচেয়ে বড় অপরাধ ছিল তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজের বাংলাদেশ ইসলামি ছাত্রশিবিরের সভাপতি ছিলেন। যার জন্য রাষ্ট্র তাকে হত্যা করেছে।
Total Reply(0)
মানিক মাহামুদ ১৬ এপ্রিল, ২০২০, ১:০৬ এএম says : 0
ধিক্কার এই রাষ্ট্রের ব্যবস্থাপনাকে আল্লাহ ডা. মঈন স্যারকে জান্নাতের সুউচ্চ মর্যাদা দান করুন
Total Reply(0)
Azizul Hoque ১৬ এপ্রিল, ২০২০, ১:০৭ এএম says : 0
যেই দেশে একজন ডাক্তার আই,সি,ইউ।সুবিধা পায় না সেখানে সাধারণ মানুষের কি অবস্থা হব??
Total Reply(0)
Mohiuddin Shohail ১৬ এপ্রিল, ২০২০, ১:০৭ এএম says : 0
দেশের স্বাস্থ্য খাত কোন দিন ভালো ছিলো না, হবেও না। জাহিদ মালেক মার্কা মন্ত্রী থাকলে ওই খাত এমনিতেই শেষ হয়ে যাবে।স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কাজ করে একটা ভালো মানুষ আছে।স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে চলে টেন্ডার বাণিজ্য আর মেশিন সরবরাহ বাণিজ্য।
Total Reply(0)
শাহীন মাহামুদ ১৬ এপ্রিল, ২০২০, ১:০৮ এএম says : 0
একজন ডা: যদি এভাবে অবহেলিত হয়, তাহইলে সাধারন মানুষের কি অবস্তা হবে।
Total Reply(0)
Nazmul Huda ১৬ এপ্রিল, ২০২০, ১:০৮ এএম says : 0
"এমন জীবন তুমি করিও গঠন,মরনে হাসিবে তুমি কাঁদিবে ভুবন,"দেশের ক্রান্তিকালে তাঁর মতো আর্ত উৎসর্গ কারী বীর যোদ্ধার বলিদান জাতি চিরকাল স্রদ্ধাভরে স্বরন করবে, তিনি অমর হয়ে থাকবেন মানবতায়, আল্লাহ পাক তাকে শহীদ হিসেবে কবুল করুন, "আমীন"
Total Reply(0)
MD Omor Faruk ১৬ এপ্রিল, ২০২০, ১:০৯ এএম says : 0
অনেক দুঃখ জনক কথা, চিকিৎক হয়ে, চিকিৎসা না পায়,তাহলে সাধারন মানুষের কি অবস্থা হবে।
Total Reply(0)
jack ali ১৬ এপ্রিল, ২০২০, ১২:১৯ পিএম says : 0
O'Allah wipe out, wipe out those who are in power.. O'Allah they don't care about us. O'Allah install a Muslim leader who will rule our country the way Our Beloved Prophet [SAW], Abu Bakr [RA], Omar [RA], Osman [RA] and Ali [RA] also the great great Grandson of Omar [RA] Omar Bin Abdul Aziz..
Total Reply(0)
মোঃ ইসমাইল হোসেন মজুমদার ১৬ এপ্রিল, ২০২০, ৮:৫৫ এএম says : 0
ইন্নালিল্লাহি ওয়া আন্না ইলাহি রাজি উন।ডাঃ মঈনকে আল্লাহ্ শহীদ হিসেবে কবুল করূন। পত্রিকা পড়ে যা বুঝলাম ডাঃ মঈন সময় মত সু- চিকিত্সা না পেয়ে মারা গিয়েছেন।যারা ডাক্তারদের শিক্ষক তার যদি এত অবহেলা পড়েন তা সাধারণ লোকের কি হবে।মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করব নিরপেক্ষ তদন্ত কমিটি গঠন করে এই মৃত্যুর সঠিক কারণ অনুসন্ধান করা হউক এবং ডাঃ মঈনের পরিবারটিকে দৃষ্টান্তমূলক প্রনোদনা দেয়া হউক যাতে অন্য ডাক্তারগণ সেবায় আরো মনোযোগী হন।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন