ঢাকা, সোমবার, ০৬ জুলাই ২০২০, ২২ আষাঢ় ১৪২৭, ১৪ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

লিবিয়ায় নিহত রাকিবের মায়ের কান্না ‘আমার সোনারে এনে দেন’

যশোর ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৩০ মে, ২০২০, ৮:৫৩ পিএম

লিবিয়ায় মানব পাচারকারী চক্রের গুলিতে নিহত ২৬ বাংলাদেশীর মধ্যে যশোরের ঝিকরগাছার এক যুবক রয়েছেন। শুক্রবার খবর পাওয়ার পর থেকে তার বাড়িতে পরিবারের আহাজারি থামছে না। নিহত রাকিবের মা মাহেরুননেছা কাঁদছে আর বলছে ‘ আপনারা আমার সোনা মানিককে এনে দেন।’ রাকিব যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার খাটবাড়িয়া গ্রামের ইসরাফিল হোসেনের ছেলে রাকিবুল ইসলাম রাকিব (২০)।
ছেলেকে হারিয়ে ভেঙে পড়েছেন ইসরাফিল হোসেন। তার কথা. জমি বিক্রি ও জমানো টাকায় দালালের মাধ্যমে ছেলেকে লিবিয়ায় পাঠিয়েছিলাম। তিনি জানতে পেরেছেন দালাল চক্র লিবিয়ার একটি শহরে রাকিবকে আটকে রেখে নির্যাতন শুরু করে। মোবাইল ফোনে তার কাছে দশ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। টাকা দিতে রাজিও হন তিনি। এরই মধ্যে রাকিবুলকে গুলি করে হত্যা করেছে।
রাকিবুল যশোর সরকারি সিটি কলেজে অর্থনীতি বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিলেন। রাকিবুলের চাচাতো ভাই ফিরোজ হোসেন লিবিয়া প্রবাসী। তিনি এক বাংলাদেশি দালাল আব্দুল্লাহ সঙ্গে যোগাযোগ করে রাকিবুলকে লিবিয়ায় নিয়ে যান। চার মাস আগে সাড়ে চার লাখ টাকা খরচ করে রাকিবুলকে লিবিয়ায় পাঠানো হয়েছিলো। পরিবারে আর্থিক স্বচ্ছলতা ফিরানোর ইচ্ছা নিয়ে রাকিবুল বিদেশে পাড়ি জমান। তার চাচাতো ভাই ফিরোজ হোসেনের মাধ্যমে লিবিয়ার দালাল আব্দুল্লাহর মাধ্যমে প্রথমে ভারত থেকে দুবাই তারপর মিশর হয়ে লিবিয়ার ত্রিপুরায় পৌঁছায়। সেখানে লিবিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় মিজদা শহরে জিম্মি হওয়ার পরে মানব পাচারকারীদদের গুলিতে নিহত ২৬ বাংলাদেশির মধ্যেও রাকিব নিহত হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
মোঃ আশরাফ-উল আলম ৩০ মে, ২০২০, ৯:৪২ পিএম says : 0
লিবিয়া সরকারের উচিত নিহত পরিবারকে ক্ষতিপূরন দেওয়া।
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন